ঢাকা ০৯:১৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ

৮ মামলায় জামিন পেলেন ইমরান খান

Reporter Name
  • Update Time : ০৯:২৮:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ মে ২০২৩
  • / ৬১ Time View

পিটিআই প্রধান ইমরান খানকে আট মামলায় জামিন দিয়েছে ইসলামাবাদের একটি সন্ত্রাসবাদবিরোধী আদালত। মঙ্গলবার জামিন চাইতে ইসলামাবাদ যান পাকিস্তানের সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী। পরে ইমরান খানের আবেদনের শুনানির সময় আগামী ৮ই জুন পর্যন্ত তার জামিন মঞ্জুর করে আদালত।

ডন জানিয়েছে, মঙ্গলবারই ন্যাশনাল একাউন্টেবিলিটি ব্যুরো বা ন্যাবের সামনে হাজির হওয়ার কথা ইমরান খানের। আল-কাদির ট্রাস্ট মামলার তদন্তের জন্য তাকে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে ন্যাব। একইদিনে ইমরান খানের স্ত্রী বুশরা বিবিকে এই মামলায় ৩১শে মে পর্যন্ত জামিন দিয়েছে আরেকটি আদালত। মঙ্গলবার সকালে বুশরা বিবি আদালতে গিয়ে নিজের জামিন আবেদন করেন।

শুনানি শুরু হওয়ার সাথে সাথে ইমরানের আইনজীবী আদালতকে জানান যে তার মক্কেলের বিরুদ্ধে মোট আটটি মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং ইমরান তার সবকটিতে তার স্টেটমেন্ট রেকর্ড করেছেন।

পিটিআই প্রধানের কৌঁসুলি ব্যারিস্টার সফদার আদালতের কাছে অনুরোধ করেন যাতে ইমরান খানকে একই দিনে সমস্ত মামলার যুক্তি উপস্থাপনের অনুমতি দেয়া হয়। সফদারের বক্তব্যের জবাবে প্রসিকিউটর অসন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ইমরান ইসলামাবাদ হাইকোর্টের নির্দেশ দেয়া সত্ত্বেও তদন্তকারী অফিসারের সামনে হাজির হননি।

শুনানি চলাকালীন ইমরান খান আদালতকে বলেন, তাকে হত্যার চেষ্টা চলছে। এমনকি আদালত প্রাঙ্গনেও তাকে হত্যার চেষ্টা হয়েছে।
তিনি নিজের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, যতবার আমি আমার বাড়ি থেকে বের হই, আমি আমার জীবনকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিই। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমার জীবনের ঝুঁকির কথা স্বীকার করেছেন এবং আমি বিশ্বাস করি আমি হুমকিতে রয়েছি।

ইমরান ইতিমধ্যেই বলেছেন যে, তিনি যখন তার আদালতে শুনানির জন্য রাজধানীতে থাকবেন তখন তাকে গ্রেপ্তার করা হতে পারে। তিনি এ বিষয়ে ৮০ শতাংশ নিশ্চিত বলেও জানান। সোমবার রাতে টুইটারে তিনি সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বলেন, তাকে গ্রেপ্তার করা হলে যেনো শান্তিপূর্ণ উপায়ে আন্দোলন অব্যাহত রাখেন তারা। কারণ সমর্থকরা সহিংস আচরণ করলে সরকার আরও দমনের সুযোগ পাবে। তিনি জোর দিয়ে বলেন, আমাদের সবসময় শান্তিপূর্ণ উপায়ে প্রতিবাদ জানাতে হবে।

এদিন পাকিস্তানের দুর্নীতি দমন সংস্থা ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টিবিলিটি ব্যুরোর (এনএবি) একটি মামলায় ইমরান খানের স্ত্রী বুশরা বিবিও জামিন লাভ করেন। পিটিআই প্রধান ইমরান খান এই মামলাগুলোতে গ্রেপ্তারের আশঙ্কা করেছিলেন। এ বিষয়ে সোমবার টুইটারে তিনি বলেন, আমি জনতাকে শান্ত থাকার আহ্বান জানাচ্ছি, কারণ যদি আপনারা সহিংস হয়ে ওঠেন, তারা আবার কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার আরও একটি সুযোগ পেয়ে যাবে। আমাদের সবসময় শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিবাদ করতে হবে।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি ইমরান খানকে গ্রেফতার নিয়ে উত্তাল হয়ে উঠে পাকিস্তানের রাজনীতি। পরে সুপ্রিমকোর্টের নির্দেশে তাকে মুক্তি দেওয়া হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

৮ মামলায় জামিন পেলেন ইমরান খান

Update Time : ০৯:২৮:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ মে ২০২৩

পিটিআই প্রধান ইমরান খানকে আট মামলায় জামিন দিয়েছে ইসলামাবাদের একটি সন্ত্রাসবাদবিরোধী আদালত। মঙ্গলবার জামিন চাইতে ইসলামাবাদ যান পাকিস্তানের সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী। পরে ইমরান খানের আবেদনের শুনানির সময় আগামী ৮ই জুন পর্যন্ত তার জামিন মঞ্জুর করে আদালত।

ডন জানিয়েছে, মঙ্গলবারই ন্যাশনাল একাউন্টেবিলিটি ব্যুরো বা ন্যাবের সামনে হাজির হওয়ার কথা ইমরান খানের। আল-কাদির ট্রাস্ট মামলার তদন্তের জন্য তাকে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে ন্যাব। একইদিনে ইমরান খানের স্ত্রী বুশরা বিবিকে এই মামলায় ৩১শে মে পর্যন্ত জামিন দিয়েছে আরেকটি আদালত। মঙ্গলবার সকালে বুশরা বিবি আদালতে গিয়ে নিজের জামিন আবেদন করেন।

শুনানি শুরু হওয়ার সাথে সাথে ইমরানের আইনজীবী আদালতকে জানান যে তার মক্কেলের বিরুদ্ধে মোট আটটি মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং ইমরান তার সবকটিতে তার স্টেটমেন্ট রেকর্ড করেছেন।

পিটিআই প্রধানের কৌঁসুলি ব্যারিস্টার সফদার আদালতের কাছে অনুরোধ করেন যাতে ইমরান খানকে একই দিনে সমস্ত মামলার যুক্তি উপস্থাপনের অনুমতি দেয়া হয়। সফদারের বক্তব্যের জবাবে প্রসিকিউটর অসন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ইমরান ইসলামাবাদ হাইকোর্টের নির্দেশ দেয়া সত্ত্বেও তদন্তকারী অফিসারের সামনে হাজির হননি।

শুনানি চলাকালীন ইমরান খান আদালতকে বলেন, তাকে হত্যার চেষ্টা চলছে। এমনকি আদালত প্রাঙ্গনেও তাকে হত্যার চেষ্টা হয়েছে।
তিনি নিজের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, যতবার আমি আমার বাড়ি থেকে বের হই, আমি আমার জীবনকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিই। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমার জীবনের ঝুঁকির কথা স্বীকার করেছেন এবং আমি বিশ্বাস করি আমি হুমকিতে রয়েছি।

ইমরান ইতিমধ্যেই বলেছেন যে, তিনি যখন তার আদালতে শুনানির জন্য রাজধানীতে থাকবেন তখন তাকে গ্রেপ্তার করা হতে পারে। তিনি এ বিষয়ে ৮০ শতাংশ নিশ্চিত বলেও জানান। সোমবার রাতে টুইটারে তিনি সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বলেন, তাকে গ্রেপ্তার করা হলে যেনো শান্তিপূর্ণ উপায়ে আন্দোলন অব্যাহত রাখেন তারা। কারণ সমর্থকরা সহিংস আচরণ করলে সরকার আরও দমনের সুযোগ পাবে। তিনি জোর দিয়ে বলেন, আমাদের সবসময় শান্তিপূর্ণ উপায়ে প্রতিবাদ জানাতে হবে।

এদিন পাকিস্তানের দুর্নীতি দমন সংস্থা ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টিবিলিটি ব্যুরোর (এনএবি) একটি মামলায় ইমরান খানের স্ত্রী বুশরা বিবিও জামিন লাভ করেন। পিটিআই প্রধান ইমরান খান এই মামলাগুলোতে গ্রেপ্তারের আশঙ্কা করেছিলেন। এ বিষয়ে সোমবার টুইটারে তিনি বলেন, আমি জনতাকে শান্ত থাকার আহ্বান জানাচ্ছি, কারণ যদি আপনারা সহিংস হয়ে ওঠেন, তারা আবার কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার আরও একটি সুযোগ পেয়ে যাবে। আমাদের সবসময় শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিবাদ করতে হবে।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি ইমরান খানকে গ্রেফতার নিয়ে উত্তাল হয়ে উঠে পাকিস্তানের রাজনীতি। পরে সুপ্রিমকোর্টের নির্দেশে তাকে মুক্তি দেওয়া হয়।