ঢাকা ০৪:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সাদুল্লাপুরে দাদা নাতনীর অবৈধ সম্পর্ক

১৩ বছরের নাতনীর পেটে দাদার সন্তান, দাদা গ্রেফতার

আঃ খালেক মন্ডল,গাইবান্ধা
  • Update Time : ০৯:০৪:০১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ জুন ২০২৩
  • / ৫১৫ Time View

গাইবান্ধায় ১৩ বছর বয়সী নাতনীর পেটে দাদার অবৈধ সন্তান, থানায় মামলা দায়ের করার পর পুলিশ অভিযুক্ত দাদাকে গ্রেফতার করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে সাদুল্ল্যাপুর উপজেলার ধাপেরহাট ইউনিয়নের বোয়ালিদহ গ্রামে।

ভিকটিম ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ওই গ্রামের জনৈক্য ব্যক্তির মা হারা অসহায় ১৩ বছরের মেয়েটি ৫ম শ্রেনী পর্যন্ত পড়ালেখা করেছে, বাবা বিয়ে করে সৎ মাকে নিয়ে ঢাকায় থাকে। লম্পট আঃ সামাদ (৭৫) গ্রাম সম্পর্কে দাদা হন, তিনি তাকে দিয়ে বাড়ীর সাংসারিক কাজ কর্ম করে নিতেন। এক পর্যায়ে নাতনীর উপর তার কু-দৃষ্টি পড়ে, ফাঁকা বাড়ী পেয়ে তাকে জীবন নাশের ভয়ভীতি দেখিয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে একাধিকবার ধর্ষন করেছে বলে জানিয়েছে ওই ভুক্তভোগী নাতনী।

গত (৩০ মে)রাতে ওই ভুক্তভোগি নাতনী জন্ম দেয় এক মৃত্যু সন্তান। জন্মের পরই সন্তানের বিষয়টি রাতেই ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয় লর্ম্পট দাদা। এ ঘটনায় ভিকটিমের আপন দাদী পারুল বেগম বাদী হয়ে সাদুল্ল্যাপুর থানায় মামলা দায়ের করে।

মামলার পর ওই রাতেই নারীলোভী দাদা সামাদকে ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই জিয়াউল হক মামুন সংঙ্গীয় ফোর্স সহ অভিযান চালিয়ে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করেছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই জিয়াউল মামুন জানান, মুল আসামীকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। ভিকটিম কে হাসপতালে আর মৃত নবজাতক সন্তানকে ময়না তদন্তের জন্য জেলা মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় আরও কেউ জড়িত আছে কিনা,তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Please Share This Post in Your Social Media

সাদুল্লাপুরে দাদা নাতনীর অবৈধ সম্পর্ক

১৩ বছরের নাতনীর পেটে দাদার সন্তান, দাদা গ্রেফতার

Update Time : ০৯:০৪:০১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ জুন ২০২৩

গাইবান্ধায় ১৩ বছর বয়সী নাতনীর পেটে দাদার অবৈধ সন্তান, থানায় মামলা দায়ের করার পর পুলিশ অভিযুক্ত দাদাকে গ্রেফতার করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে সাদুল্ল্যাপুর উপজেলার ধাপেরহাট ইউনিয়নের বোয়ালিদহ গ্রামে।

ভিকটিম ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ওই গ্রামের জনৈক্য ব্যক্তির মা হারা অসহায় ১৩ বছরের মেয়েটি ৫ম শ্রেনী পর্যন্ত পড়ালেখা করেছে, বাবা বিয়ে করে সৎ মাকে নিয়ে ঢাকায় থাকে। লম্পট আঃ সামাদ (৭৫) গ্রাম সম্পর্কে দাদা হন, তিনি তাকে দিয়ে বাড়ীর সাংসারিক কাজ কর্ম করে নিতেন। এক পর্যায়ে নাতনীর উপর তার কু-দৃষ্টি পড়ে, ফাঁকা বাড়ী পেয়ে তাকে জীবন নাশের ভয়ভীতি দেখিয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে একাধিকবার ধর্ষন করেছে বলে জানিয়েছে ওই ভুক্তভোগী নাতনী।

গত (৩০ মে)রাতে ওই ভুক্তভোগি নাতনী জন্ম দেয় এক মৃত্যু সন্তান। জন্মের পরই সন্তানের বিষয়টি রাতেই ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয় লর্ম্পট দাদা। এ ঘটনায় ভিকটিমের আপন দাদী পারুল বেগম বাদী হয়ে সাদুল্ল্যাপুর থানায় মামলা দায়ের করে।

মামলার পর ওই রাতেই নারীলোভী দাদা সামাদকে ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই জিয়াউল হক মামুন সংঙ্গীয় ফোর্স সহ অভিযান চালিয়ে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করেছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই জিয়াউল মামুন জানান, মুল আসামীকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। ভিকটিম কে হাসপতালে আর মৃত নবজাতক সন্তানকে ময়না তদন্তের জন্য জেলা মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় আরও কেউ জড়িত আছে কিনা,তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।