ঢাকা ০২:১৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ

হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের আশ্বাসে সড়ক অবরোধ তুলে নিল ঢাবি শিক্ষার্থীরা

জাননাহ, ঢাবি প্রতিনিধি
  • Update Time : ০৬:০০:২০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৬ জুন ২০২৩
  • / ৭২ Time View

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অমর একুশে হলের শিক্ষার্থীদের ওপর সংঘবদ্ধ হামলার অভিযোগে সড়ক অবরোধ করেন শিক্ষার্থীরা। পরে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের আশ্বাস দেওয়া হলে অবরোধ তুলে নেন তারা।

বৃহস্পতিবার(১৫ জুন) বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার এ ঘটনা ঘটে। তারপর রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত অমর একুশে হলে ছাত্ররা ফ্লাইওভারসংলগ্ন সড়ক অবরোধ করে রাখে।

জানা গেছে, এ হামলায় হলের কর্মচারীসহ পাঁচজন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা হলসংলগ্ন মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের চানখারপুল অংশ অবরোধ করে রাখেন।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা বলছেন, হামলাকারীরা ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাসিবুর রহমান মানিকের অনুসারী। হামলার সময় দুই শিক্ষার্থীকে হলের কর্মচারীরা বাঁচাতে এলে তাদেরও মারধর করা হয়।

এ সময় ফ্লাইওভারের সামনে কর্তব্যরত সার্জেন্টও কোনো ভূমিকা পালন করেনি বলে অভিযোগ করেন শিক্ষার্থীরা। হামলাকারীরা সার্জেন্টদের হাতে থাকা লাঠি নিয়েও শিক্ষার্থীদের পেটায় বলে দাবি শিক্ষার্থীদের ।

তবে এ সকল অভিযোগ অস্বীকার করেছেন কাউন্সিলর মানিক। তিনি বলেন, আমি নিজেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। ছাত্রদের মারধরের প্রশ্নই ওঠে না। হামলাকারীরা আমার অনুসারী নয়।এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচারও দাবি করেন তিনি ।

ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি মাজহারুল কবির শয়ন জানান, বিকেলে ১০-১৫টা মোটরসাইকেলে করে ১৫-২০ জন যুবক উল্টোপথে এসে একুশে হলের সামনে হর্ন দিতে থাকে। এ সময় হলের দুইজন শিক্ষার্থী তাদের হর্ন দিতে এবং উল্টোপথে চলাচল করতে নিষেধ করে। পরে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে তারা শিক্ষার্থীদের এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করে।

হল প্রশাসন, পুলিশ ও ঢাবি ছাত্রলীগের মধ্যস্ততায় আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের আশ্বাস পেয়ে শিক্ষার্থীরা অবরোধ তুলে নিয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের আশ্বাসে সড়ক অবরোধ তুলে নিল ঢাবি শিক্ষার্থীরা

Update Time : ০৬:০০:২০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৬ জুন ২০২৩

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অমর একুশে হলের শিক্ষার্থীদের ওপর সংঘবদ্ধ হামলার অভিযোগে সড়ক অবরোধ করেন শিক্ষার্থীরা। পরে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের আশ্বাস দেওয়া হলে অবরোধ তুলে নেন তারা।

বৃহস্পতিবার(১৫ জুন) বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার এ ঘটনা ঘটে। তারপর রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত অমর একুশে হলে ছাত্ররা ফ্লাইওভারসংলগ্ন সড়ক অবরোধ করে রাখে।

জানা গেছে, এ হামলায় হলের কর্মচারীসহ পাঁচজন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা হলসংলগ্ন মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের চানখারপুল অংশ অবরোধ করে রাখেন।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা বলছেন, হামলাকারীরা ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাসিবুর রহমান মানিকের অনুসারী। হামলার সময় দুই শিক্ষার্থীকে হলের কর্মচারীরা বাঁচাতে এলে তাদেরও মারধর করা হয়।

এ সময় ফ্লাইওভারের সামনে কর্তব্যরত সার্জেন্টও কোনো ভূমিকা পালন করেনি বলে অভিযোগ করেন শিক্ষার্থীরা। হামলাকারীরা সার্জেন্টদের হাতে থাকা লাঠি নিয়েও শিক্ষার্থীদের পেটায় বলে দাবি শিক্ষার্থীদের ।

তবে এ সকল অভিযোগ অস্বীকার করেছেন কাউন্সিলর মানিক। তিনি বলেন, আমি নিজেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। ছাত্রদের মারধরের প্রশ্নই ওঠে না। হামলাকারীরা আমার অনুসারী নয়।এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচারও দাবি করেন তিনি ।

ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি মাজহারুল কবির শয়ন জানান, বিকেলে ১০-১৫টা মোটরসাইকেলে করে ১৫-২০ জন যুবক উল্টোপথে এসে একুশে হলের সামনে হর্ন দিতে থাকে। এ সময় হলের দুইজন শিক্ষার্থী তাদের হর্ন দিতে এবং উল্টোপথে চলাচল করতে নিষেধ করে। পরে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে তারা শিক্ষার্থীদের এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করে।

হল প্রশাসন, পুলিশ ও ঢাবি ছাত্রলীগের মধ্যস্ততায় আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের আশ্বাস পেয়ে শিক্ষার্থীরা অবরোধ তুলে নিয়েছে।