ঢাকা ০৩:০৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হত্যা চেষ্টা মামলার পলাতক প্রধান আসামী গ্রেফতার

Reporter Name
  • Update Time : ০৮:২৩:০১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৩
  • / ২১১ Time View

আল-আমিন,নীলফামারী: হত্যা চেষ্টা মামলার পলাতক প্রধান আসামী মোঃ নুরল আমিন দুলালকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১৩, সিপিসি-২

র‌্যাব-১৩, ক্রাইম প্রিভেনশন কোম্পানী-২, নীলফামারীর একটি চৌকস আভিযানিক দল সোমরার২৪ এপ্রিল ১৫.৪০ ঘটিকার সময় পঞ্চগড় জেলার সদর থানাধীন ব্যারিষ্টার বাজার এলাকা থেকে একজন বৃদ্ধকে হত্যা চেষ্টা মামলার প্রধান আসামী এবং মূল হোতা মোঃ নুরুল আমিন (দুলাল) (৩৯), পিতা-মৃত জুমার উদ্দিন, সাং-বুড়াবুড়ি, থানা-তেঁতুলিয়া, জেলা-পঞ্চগড়কে গ্রেফতার করে আইনি হেফাজতে সমর্পণ করেছে।

জানা যায়, পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া থানাধীন বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের মন্ডলপাড়া গ্রামের মোহাম্মদ আবদুল ওহাব (৬০) পিতা- মৃত আহামুউদ্দিন গংদের সাথে প্রতিবেশী মোঃ নুরুল আমিন (দুলাল)(৩৯) এর বসতভিটার জমি নিয়ে দীর্ঘকাল ধরে দ্বন্দ্ব চলছিল। চলমান দন্দ্বের প্রেক্ষিতে গত ১৯/০৪/২৩ ইং তারিখে দ্বন্দ্ব থাকা জমিতে বেড়া দেওয়াকে কেন্দ্র করে মোঃ আব্দুল ওহাব ও মোঃ নুরুল আমিন (দুলাল) এর মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়, কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে দুলাল তার ঘর থেকে কুঠার নিয়ে এসে মোঃ আব্দুল ওহাবকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার ঘাড় বরাবর কোপ দিলে উক্ত কুঠারের কোপটি আব্দুল ওহাবের ঘাড়ে লেগে রগ কেটে মারাত্মক জখম হয়। আব্দুল ওহাব মারা যেতে পারে অনুমান করে ঘাতক দুলাল ঘটনাস্থল ত্যাগ করে আত্মগোপনে চলে যায়। আব্দুল ওহাবকে তার আত্মীয়-স্বজনরা প্রথমে পঞ্চগড় সদর হাসপাতালে ভর্তি করলেও অবস্থা গুরুত্বর অনুভব করে পঞ্চগড় সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে রংপুর বিভাগীয় হাসপাতালে রেফার্ড করে। বর্তমান সে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রংপুর বিভাগীয় মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছে। ঘটনার গুরুত্ব অনুধাবন করে র‌্যাব-১৩, ক্রাইম প্রিভেনশন কোম্পানী-২, নীলফামারীর একটি চৌকস আভিযানিক দল উক্ত ঘটনার মূল হোতাকে গ্রেফতারের লক্ষ্যে তথ্য এবং উপাত্ত সংগ্রহসহ মাঠ পর্যায়ে তৎপরতা শুরু করে। র‌্যাব-১৩, ক্রাইম প্রিভেনশন কোম্পানী-২, নীলফামারী এর সময়োপযোগী এবং সজাগ নজরদাড়ির ফলে মূল অভিযুক্তকে স্বল্প সময়ের মধ্যে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা সম্ভব হয়েছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করে, গ্রেফতারকৃত আসামী হত্যা চেষ্টার কথা স্বীকার করে এবং আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য পঞ্চগড় জেলায় তেঁতুলিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

Please Share This Post in Your Social Media

হত্যা চেষ্টা মামলার পলাতক প্রধান আসামী গ্রেফতার

Update Time : ০৮:২৩:০১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৩

আল-আমিন,নীলফামারী: হত্যা চেষ্টা মামলার পলাতক প্রধান আসামী মোঃ নুরল আমিন দুলালকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১৩, সিপিসি-২

র‌্যাব-১৩, ক্রাইম প্রিভেনশন কোম্পানী-২, নীলফামারীর একটি চৌকস আভিযানিক দল সোমরার২৪ এপ্রিল ১৫.৪০ ঘটিকার সময় পঞ্চগড় জেলার সদর থানাধীন ব্যারিষ্টার বাজার এলাকা থেকে একজন বৃদ্ধকে হত্যা চেষ্টা মামলার প্রধান আসামী এবং মূল হোতা মোঃ নুরুল আমিন (দুলাল) (৩৯), পিতা-মৃত জুমার উদ্দিন, সাং-বুড়াবুড়ি, থানা-তেঁতুলিয়া, জেলা-পঞ্চগড়কে গ্রেফতার করে আইনি হেফাজতে সমর্পণ করেছে।

জানা যায়, পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া থানাধীন বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের মন্ডলপাড়া গ্রামের মোহাম্মদ আবদুল ওহাব (৬০) পিতা- মৃত আহামুউদ্দিন গংদের সাথে প্রতিবেশী মোঃ নুরুল আমিন (দুলাল)(৩৯) এর বসতভিটার জমি নিয়ে দীর্ঘকাল ধরে দ্বন্দ্ব চলছিল। চলমান দন্দ্বের প্রেক্ষিতে গত ১৯/০৪/২৩ ইং তারিখে দ্বন্দ্ব থাকা জমিতে বেড়া দেওয়াকে কেন্দ্র করে মোঃ আব্দুল ওহাব ও মোঃ নুরুল আমিন (দুলাল) এর মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়, কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে দুলাল তার ঘর থেকে কুঠার নিয়ে এসে মোঃ আব্দুল ওহাবকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার ঘাড় বরাবর কোপ দিলে উক্ত কুঠারের কোপটি আব্দুল ওহাবের ঘাড়ে লেগে রগ কেটে মারাত্মক জখম হয়। আব্দুল ওহাব মারা যেতে পারে অনুমান করে ঘাতক দুলাল ঘটনাস্থল ত্যাগ করে আত্মগোপনে চলে যায়। আব্দুল ওহাবকে তার আত্মীয়-স্বজনরা প্রথমে পঞ্চগড় সদর হাসপাতালে ভর্তি করলেও অবস্থা গুরুত্বর অনুভব করে পঞ্চগড় সদর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে রংপুর বিভাগীয় হাসপাতালে রেফার্ড করে। বর্তমান সে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রংপুর বিভাগীয় মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছে। ঘটনার গুরুত্ব অনুধাবন করে র‌্যাব-১৩, ক্রাইম প্রিভেনশন কোম্পানী-২, নীলফামারীর একটি চৌকস আভিযানিক দল উক্ত ঘটনার মূল হোতাকে গ্রেফতারের লক্ষ্যে তথ্য এবং উপাত্ত সংগ্রহসহ মাঠ পর্যায়ে তৎপরতা শুরু করে। র‌্যাব-১৩, ক্রাইম প্রিভেনশন কোম্পানী-২, নীলফামারী এর সময়োপযোগী এবং সজাগ নজরদাড়ির ফলে মূল অভিযুক্তকে স্বল্প সময়ের মধ্যে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা সম্ভব হয়েছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করে, গ্রেফতারকৃত আসামী হত্যা চেষ্টার কথা স্বীকার করে এবং আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য পঞ্চগড় জেলায় তেঁতুলিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।