ঢাকা ০২:১২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
নোয়াখালীতে নকল ক্যাবল বিক্রির দায়ে জরিমানা কোটা সংস্কার আন্দোলনে যাওয়ায় ইবি শিক্ষার্থীকে বেধরক মারধর  পিবিআই এর দুই কর্মকর্তার বদলী জনিত বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত মোটরসাইকেল নিয়ে বিরোধ: নোয়াখালীতে বসতঘরে ঢুকে যুবককে গুলি করে হত্যা ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগরে সওজের জায়গায় অবৈধ দখলে থাকা দোকানপাট উচ্ছেদ দুই বঙ্গকন্যা ব্রিটিশ মন্ত্রীসভায় স্থান পাওয়ায় বঙ্গবন্ধু লেখক-সাংবাদিক ফোরামের আনন্দ সভা নতুন আশ্রয়ণের ঘর নির্মাণে খুশী গাইবান্ধার চরাঞ্চলের মানুষ গ্যাস সংকটে চার মাস ধরে শাহজালাল সার কারখানায় উৎপাদন বন্ধ সুবর্ণচরে বৃদ্ধকে জবাই করে হত্যা, গ্রেপ্তার ৩ নোয়াখালীতে নৈশ প্রহরীকে উলঙ্গ করে বেঁধে ১১ দোকানে ডাকাতি

সেতুর নাট খোলার সময় দুই চোর আটক, পুলিশ আসতে দেরি হওয়ায় মহাসড়ক অবরোধ

কামরুল হাসান টিটু, রংপুর ব্যুরো
  • Update Time : ০৮:৪২:১০ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জুলাই ২০২৪
  • / ২৩ Time View

রংপুরের তারাগঞ্জে সেতুর নাট চুরি করার সময় হাতে নাতে দুই চোরকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী। গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কের তারাগঞ্জের বরাতি সেতুতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশকে খবর দিলেও তাঁরা দীর্ঘ সময় ঘটনাস্থলে না আসায় এলাকাবাসী রাত ১ টার দিকে মহাসড়ক অবরোধ করেন।

আটক চোরেরা হলেন, রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলার লালচাদপুর গ্রামের একরামুল হকের ছেলে মাইদুল ইসলাম (৩৬) ও আব্দুল মজিদের ছেলে রুবেল হোসেন (৩৮)। পুলিশ বলছে, অন্য একটি সড়ক র্দুঘটনায় টহল গাড়ি থাকায় বরাতি সেতুতে পৌঁছাতে বিলম্ব হয়। আটক চোর থানা হাজতে আছে, এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কের যমুনেশ্বরীর নদীর বরাতি সেতুর ওপর দিয়ে রংপুর বিভাগের ৮ জেলা ও ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে যান বাহন চলাচল করেন। পুরোনো সেতুটি বিকল হলে জাইকার অর্থায়নে ২০২১ সালে সেখানে নতুন সেতু নির্মাণ করা হয়। এই সেতুর পাশে থাকা পুরো সেতুটিতে কৃষকেরা ধান, ভুট্টা ফসল শুকান। পুরোনো সেতুতে রাখা ধান, ভুট্টা টাকার বিনিময়ে পাহাড়া দেন সেতু ঘেঁষা গ্রাম নদীরপারের বাসিন্দা কাছু মামুদ ও মকবুল হোসেন। রাত ১১টার দিকে তাঁরা দুজনে নতুন সেতুতে নাট খোলার শব্দ পান। এরপর গ্রামবাসীকে বিষয়টি জানালে লোকজন ধাওয়া করে ওই দুই চোরকে আটক করেন। বিষয়টি থানা পুলিশকে জানান। দুই ঘণ্টায় ঘটনাস্থলে পুলিশ না আসায় ক্ষিপ্ত হয়ে এলাকাবাসী চোরকে নিয়ে মহাসড়ক অবরোধ করেন। পরে রাত দেড়টার দিকে তারাগঞ্জ থানা পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করে আটক দুই চোরকে জনতার কাছ থেকে থানায় নিয়ে যান।

 

বালাবাড়ি গ্রামের মকবুল হোসেন বলেন, রাত ১১টায় চোর ধরি থানা পুলিশ, ৯৯৯ এ খবর দিছি। রাত ১টাও পুলিশ আসবে আসবে করি আইসে নাই। বাধ্য হয়া গ্রামের লোকজন সড়কে দাঁড়াছিল। পদ্মা সেতুর একটা নাট খোলার জন্য দেশে কি হয়া গেইছে সবাই জানে। আমাদের বরাতি বিজ্র আমাদের কাছে দেশের বড় সম্পদ। সেই ব্রিজের নাট খুলে নড়বড়া বানাওছে, পুলিশের হুশ নাই।

 

থানা হাজতে আটক মাইদুল ইসলাম ও রুবেল হোসেন বলেন, আমাদের ডেকে এনে এ কাজ করানো হয়েছে। এখন বুঝতে পারছি, সেতুর নাট খোলা ঠিক হয়নি।

 

তারাগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ছিদ্দিকুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। একই মহাসড়কের অন্য আরেক জায়গায় একটি দুর্ঘটনা ঘটায় আহতদের উদ্ধারে পুলিশ থাকায় আটক চোরদের থানায় নিতে দেরি হয়েছে। ১১টি নাট ও একটি রেঞ্জ উদ্ধার করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

সেতুর নাট খোলার সময় দুই চোর আটক, পুলিশ আসতে দেরি হওয়ায় মহাসড়ক অবরোধ

কামরুল হাসান টিটু, রংপুর ব্যুরো
Update Time : ০৮:৪২:১০ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জুলাই ২০২৪

রংপুরের তারাগঞ্জে সেতুর নাট চুরি করার সময় হাতে নাতে দুই চোরকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী। গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কের তারাগঞ্জের বরাতি সেতুতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশকে খবর দিলেও তাঁরা দীর্ঘ সময় ঘটনাস্থলে না আসায় এলাকাবাসী রাত ১ টার দিকে মহাসড়ক অবরোধ করেন।

আটক চোরেরা হলেন, রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলার লালচাদপুর গ্রামের একরামুল হকের ছেলে মাইদুল ইসলাম (৩৬) ও আব্দুল মজিদের ছেলে রুবেল হোসেন (৩৮)। পুলিশ বলছে, অন্য একটি সড়ক র্দুঘটনায় টহল গাড়ি থাকায় বরাতি সেতুতে পৌঁছাতে বিলম্ব হয়। আটক চোর থানা হাজতে আছে, এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কের যমুনেশ্বরীর নদীর বরাতি সেতুর ওপর দিয়ে রংপুর বিভাগের ৮ জেলা ও ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে যান বাহন চলাচল করেন। পুরোনো সেতুটি বিকল হলে জাইকার অর্থায়নে ২০২১ সালে সেখানে নতুন সেতু নির্মাণ করা হয়। এই সেতুর পাশে থাকা পুরো সেতুটিতে কৃষকেরা ধান, ভুট্টা ফসল শুকান। পুরোনো সেতুতে রাখা ধান, ভুট্টা টাকার বিনিময়ে পাহাড়া দেন সেতু ঘেঁষা গ্রাম নদীরপারের বাসিন্দা কাছু মামুদ ও মকবুল হোসেন। রাত ১১টার দিকে তাঁরা দুজনে নতুন সেতুতে নাট খোলার শব্দ পান। এরপর গ্রামবাসীকে বিষয়টি জানালে লোকজন ধাওয়া করে ওই দুই চোরকে আটক করেন। বিষয়টি থানা পুলিশকে জানান। দুই ঘণ্টায় ঘটনাস্থলে পুলিশ না আসায় ক্ষিপ্ত হয়ে এলাকাবাসী চোরকে নিয়ে মহাসড়ক অবরোধ করেন। পরে রাত দেড়টার দিকে তারাগঞ্জ থানা পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করে আটক দুই চোরকে জনতার কাছ থেকে থানায় নিয়ে যান।

 

বালাবাড়ি গ্রামের মকবুল হোসেন বলেন, রাত ১১টায় চোর ধরি থানা পুলিশ, ৯৯৯ এ খবর দিছি। রাত ১টাও পুলিশ আসবে আসবে করি আইসে নাই। বাধ্য হয়া গ্রামের লোকজন সড়কে দাঁড়াছিল। পদ্মা সেতুর একটা নাট খোলার জন্য দেশে কি হয়া গেইছে সবাই জানে। আমাদের বরাতি বিজ্র আমাদের কাছে দেশের বড় সম্পদ। সেই ব্রিজের নাট খুলে নড়বড়া বানাওছে, পুলিশের হুশ নাই।

 

থানা হাজতে আটক মাইদুল ইসলাম ও রুবেল হোসেন বলেন, আমাদের ডেকে এনে এ কাজ করানো হয়েছে। এখন বুঝতে পারছি, সেতুর নাট খোলা ঠিক হয়নি।

 

তারাগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ছিদ্দিকুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। একই মহাসড়কের অন্য আরেক জায়গায় একটি দুর্ঘটনা ঘটায় আহতদের উদ্ধারে পুলিশ থাকায় আটক চোরদের থানায় নিতে দেরি হয়েছে। ১১টি নাট ও একটি রেঞ্জ উদ্ধার করা হয়েছে।