ঢাকা ০৫:৪৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
বিমানবন্দর-টঙ্গী থেকে ধারালো অস্ত্রসহ ৮ ছিনতাইকারী গ্রেপ্তার কিশোরগঞ্জে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে স্কুলের উন্নয়ন খাতের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ সাংবাদিককে ৫ বছরের অভিজ্ঞতা ও গ্র্যাজুয়েট হতে হবে বেনজীরের আরও ১১৩ দলিলের সম্পদ ও গুলশানের ৪টি ফ্ল্যাট জব্দের আদেশ সুজানগরে গৃহবধূকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে কাউকে ছাড় দেব না : ইসি রাশেদা ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে একটি বাড়ি থেকে ১২ কোটি রুপির স্বর্ণ জব্দ সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে বৈধপথে রেমিট্যান্স প্রেরণের আহ্বান প্রবাসী কল্যাণ প্রতিমন্ত্রীর ঝালকাঠিতে রেমালের প্রভাবে নদীর পানি বেড়েছে ২১৭ নেতাকে বহিষ্কার করল বিএনপি
'গেস্টরুমে নির্যাতনে'র কথা এক্সপাঞ্জ উপাচার্যের

সিনেট অধিবেশন বর্জন করলেন সাদা দলের শিক্ষকরা

জাননাহ, ঢাবি প্রতিনিধি
  • Update Time : ১১:১৯:৩০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ জুন ২০২৩
  • / ১৬৮ Time View

আবাসিক হলের গেস্টরুমে শিক্ষার্থী নির্যাতনের বিষয়ে দেওয়া বক্তব্য এক্সপাঞ্জ করায় সিনেটের বার্ষিক অধিবেশন বয়কট করে ওয়াক আউট করেছেন ঢাবির সাদা দলের শিক্ষকরা।

বুধবার(২১ জুন) বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে বার্ষিক সিনেট অধিবেশনে এ ঘটনা ঘটে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষের বাজেট উপস্থাপনের পর বাজেটের ওপর আলোচনা হয়। আলোচনার এক পর্যায়ে বিএনপি-জামায়াতপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান আবাসিক হলগুলোতে গেস্টরুম নির্যাতনের প্রসঙ্গ নিয়ে আসেন।

অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে গণতান্ত্রিক পরিবেশ বজায় নেই। আবাসিক হলের গেস্টরুমে শিক্ষার্থী নির্যাতন করা হয়। এইগুলো আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করে।

তার এ বক্তব্যের পর সিনেট সভায় উপস্থিত নীল দল শিক্ষকদের সাথে বাগবিতণ্ডা হয় সাদা দলের শিক্ষকদের।

পরে অধ্যাপক লুৎফর রহমানের বক্তব্য এক্সপাঞ্জ করতে উপচার্যের প্রতি আহ্বান জানান নীল দলের সাবেক আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. আব্দুস ছামাদ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক নিজামুল হক ভূঁইয়া, শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আব্দুর রহীম ও শিক্ষা গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ড. এম অহিদুজ্জামানও অধ্যাপক লুৎফর রহমানের বক্তব্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানান।

এসময় উপাচার্য সিনেট চেয়ারম্যানের ক্ষমতাবলে বক্তব্য এক্সপাঞ্জ করেন। তখন সাদা দলের সিনেট সদস্য অধ্যাপক ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম বলেন, এটা আমাদের মনগড়া বক্তব্য নয়, পত্রিকায় নিয়মিত বিষয়গুলো আসছে। পত্রিকার রেফারেন্স টানার প্রয়োজন নেই বলে মন্তব্য করেন ঢাবি উপাচার্য।

এরপর উপাচার্য কর্তৃক বক্তব্য এক্সপাঞ্জ করার প্রতিবাদে সাদা দলের আহ্বায়ক ও সিনেট সদস্য অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান ও সাদা দলের সাবেক আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম অধিবেশন কক্ষ থেকে ওয়াকআউট করেন। নীল দলের শিক্ষকরা তাদের থাকার অনুরোধ জানালেও তারা আর ফেরেননি।

এ প্রসঙ্গে অধ্যাপক এবিএম ওবায়দুল ইসলাম বলেন, উপাচার্য পত্রিকার রেফারেন্স মানবেন না কেন, আমরা কি সবসময় সবকিছু নিজ চোখেই দেখি?

এসময় উপাচার্য অভিভাবকের দায়িত্ব পালন না করে একনায়কতন্ত্র কায়েম করেছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

'গেস্টরুমে নির্যাতনে'র কথা এক্সপাঞ্জ উপাচার্যের

সিনেট অধিবেশন বর্জন করলেন সাদা দলের শিক্ষকরা

Update Time : ১১:১৯:৩০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ জুন ২০২৩

আবাসিক হলের গেস্টরুমে শিক্ষার্থী নির্যাতনের বিষয়ে দেওয়া বক্তব্য এক্সপাঞ্জ করায় সিনেটের বার্ষিক অধিবেশন বয়কট করে ওয়াক আউট করেছেন ঢাবির সাদা দলের শিক্ষকরা।

বুধবার(২১ জুন) বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে বার্ষিক সিনেট অধিবেশনে এ ঘটনা ঘটে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষের বাজেট উপস্থাপনের পর বাজেটের ওপর আলোচনা হয়। আলোচনার এক পর্যায়ে বিএনপি-জামায়াতপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান আবাসিক হলগুলোতে গেস্টরুম নির্যাতনের প্রসঙ্গ নিয়ে আসেন।

অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে গণতান্ত্রিক পরিবেশ বজায় নেই। আবাসিক হলের গেস্টরুমে শিক্ষার্থী নির্যাতন করা হয়। এইগুলো আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করে।

তার এ বক্তব্যের পর সিনেট সভায় উপস্থিত নীল দল শিক্ষকদের সাথে বাগবিতণ্ডা হয় সাদা দলের শিক্ষকদের।

পরে অধ্যাপক লুৎফর রহমানের বক্তব্য এক্সপাঞ্জ করতে উপচার্যের প্রতি আহ্বান জানান নীল দলের সাবেক আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. আব্দুস ছামাদ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক নিজামুল হক ভূঁইয়া, শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আব্দুর রহীম ও শিক্ষা গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ড. এম অহিদুজ্জামানও অধ্যাপক লুৎফর রহমানের বক্তব্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানান।

এসময় উপাচার্য সিনেট চেয়ারম্যানের ক্ষমতাবলে বক্তব্য এক্সপাঞ্জ করেন। তখন সাদা দলের সিনেট সদস্য অধ্যাপক ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম বলেন, এটা আমাদের মনগড়া বক্তব্য নয়, পত্রিকায় নিয়মিত বিষয়গুলো আসছে। পত্রিকার রেফারেন্স টানার প্রয়োজন নেই বলে মন্তব্য করেন ঢাবি উপাচার্য।

এরপর উপাচার্য কর্তৃক বক্তব্য এক্সপাঞ্জ করার প্রতিবাদে সাদা দলের আহ্বায়ক ও সিনেট সদস্য অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান ও সাদা দলের সাবেক আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম অধিবেশন কক্ষ থেকে ওয়াকআউট করেন। নীল দলের শিক্ষকরা তাদের থাকার অনুরোধ জানালেও তারা আর ফেরেননি।

এ প্রসঙ্গে অধ্যাপক এবিএম ওবায়দুল ইসলাম বলেন, উপাচার্য পত্রিকার রেফারেন্স মানবেন না কেন, আমরা কি সবসময় সবকিছু নিজ চোখেই দেখি?

এসময় উপাচার্য অভিভাবকের দায়িত্ব পালন না করে একনায়কতন্ত্র কায়েম করেছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।