ঢাকা ০৬:৩৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভাগ্নে-ভাগ্নিকে গলা কেটে হত্যার দায়ে মামার মৃত্যুদন্ড থমথমে রংপুর: কোটাবিরোধী শিক্ষার্থীদের দখলে রাজপথ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ মুক্ত ঘোষণা সিলেট শাবি’র হলে হলে আন্দোলকারীদের তল্লাশী, অস্ত্র উদ্ধার,ক্যাম্পাস না ছাড়ার ঘোষণা মোটরসাইকেল নিয়ে দ্বন্দ্বে ঘরে ঢুকে যুবককে গুলি করে হত্যা, গ্রেপ্তার ২ কোটাবিরোধী আন্দোলন: নোয়াখালীতে যুবদল-ছাত্রদলের ৫ নেতা গ্রেপ্তার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় আবাসিক হল বন্ধ ঘোষণা, হল ছাড়তে নারাজ শিক্ষার্থীরা পুলিশের ওপর হামলা ও আগুন লাগার ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে – আর‌পিএম‌পি ক‌মিশনার কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত বেরোবি শিক্ষার্থী আবু সাঈদের দাফন সম্পন্ন আমার ভাই মরলো কেন! প্রশাসন জবাব চাই’ শ্লোগানে উত্তাল গাইবান্ধা

সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীর শারীরিক অবস্থার উন্নতি

মো.মুহিবুর রহমান, সিলেট
  • Update Time : ০৪:৫৬:৩৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪
  • / ৬১ Time View

নির্বাচনী এলাকা সিলেটে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ায় সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য মঙ্গলবার (১১ জুন) ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে।

বুধবার (১২ জুন) অবস্থার উন্নতি হওয়ায় তাকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়েছে। তার পরেও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেনকে পর্যবেক্ষণে রাখা হবে বলে জানিয়েছেন সিএমএইচের চিকিৎসকরা।

শারীরিক অবস্থার উন্নতির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, ড. মোমেনের ব্যক্তিগত সহকারী শফিউল আলম জুয়েল। জুয়েল জানান, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিলেট সদর উপজেলার একটি অনুষ্ঠানে অংশ নেন। পরে টিলা ধসের স্থান পরিদর্শন করেন। প্রচুর হেঁটেছেনও। গরম আর ডায়াবেটিক মিলে হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে ঢাকার সিএমএইচে ভর্তি করা হয়। শারীরিক অবস্থার উন্নতি হওয়ায় তাকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়েছে। চিকিৎসকরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন ডিহাইড্রেট হওয়ার কারণে তিনি অসুস্থ হয়েছেন। তবে আর কোন সমস্যা আছে কি না তা আজকের মধ্যে জানাবেন চিকিৎসকরা।

এদিকে,সিলেটে টিলা ধসের ঘটনায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। মঙ্গলবার (১১ জুন) দুপুর ১২ টায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন তারা। পরিদর্শনকালে ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, টিলা কেটে দেয়াল নির্মাণ করা হয়েছে। প্রাকৃতিক কোনো দুর্যোগ আসলে এখানে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে। গতকালের মর্মান্তিক ঘটনায় দুঃখ পেয়েছি। এধরণের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে আমাদের সচেতন হতে হবে। টিলা ধসের ঘটনায় নিহতদের পরিবার এবং আহতদের চিকিৎসার জন্য আর্থিক ও ত্রান সহায়তা করা হয়। ড. এ কে আব্দুল মোমেন আরো বলেছেন কয়েক বছর ধরে সিলেট প্রাকৃতিক দুর্যোগপূর্ণ অঞ্চল হয়ে উঠেছে। ২০২০ সালের বন্যায় বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয় সিলেট। এবারেও বন্যা হয়ে ক্ষতির মুখে সিলেট। বজ্রপাতে স¤প্রতি ঘন ঘন প্রাণহানি ঘটছে এ অঞ্চলে। এছাড়া ঘন ঘন হচ্ছে ভূমিকম্পও। এসব প্রাকৃতিক দুর্যোগে সিলেটের জন্য ‘ক্লাইমেট প্রকেটশন ফান্ড’ গঠন করতে চাই। যাতে সহজেই দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানো যায়। সিলেট মহানগরের মেজরটিলার চামেলীভাগ আবাসিক এলাকায় টিল ধসে নিহত ৩ জনের পরিবারের সদস্যদের সান্ত¡না দিতে গিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন- সিলেটে অবৈধভাবে টিলা কাটা হয় প্রচুর। এগুলো রোধ করতে হবে। প্রয়োজনে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ কমিটি করে টিলা কাটা ঠেকাতে হবে। অভিযোগ রয়েছে- স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা এসব কাজে জড়িত থাকেন। তাই তাদের মাধ্যমেই টিলার মাটি কাটা রোধ করা প্রয়োজন।

এর আগে মঙ্গলবার (১১ জুন) বেলা সাড়ে ১১টায় ড. এ কে আব্দুল মোমেন নিহতদের বাড়িতে যান। এসময় তিনি নিহত ৩ জনের মা-ভাই ও স্বজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন এবং ব্যক্তিগত পক্ষ আর্থিক অনুদান প্রদান করেন।

এসময় তাঁর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী, সিলেট সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক, সিলেট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাছরীন আক্তার ও সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ৩৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

Please Share This Post in Your Social Media

সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীর শারীরিক অবস্থার উন্নতি

মো.মুহিবুর রহমান, সিলেট
Update Time : ০৪:৫৬:৩৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪

নির্বাচনী এলাকা সিলেটে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ায় সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য মঙ্গলবার (১১ জুন) ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে।

বুধবার (১২ জুন) অবস্থার উন্নতি হওয়ায় তাকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়েছে। তার পরেও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেনকে পর্যবেক্ষণে রাখা হবে বলে জানিয়েছেন সিএমএইচের চিকিৎসকরা।

শারীরিক অবস্থার উন্নতির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, ড. মোমেনের ব্যক্তিগত সহকারী শফিউল আলম জুয়েল। জুয়েল জানান, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিলেট সদর উপজেলার একটি অনুষ্ঠানে অংশ নেন। পরে টিলা ধসের স্থান পরিদর্শন করেন। প্রচুর হেঁটেছেনও। গরম আর ডায়াবেটিক মিলে হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে ঢাকার সিএমএইচে ভর্তি করা হয়। শারীরিক অবস্থার উন্নতি হওয়ায় তাকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়েছে। চিকিৎসকরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন ডিহাইড্রেট হওয়ার কারণে তিনি অসুস্থ হয়েছেন। তবে আর কোন সমস্যা আছে কি না তা আজকের মধ্যে জানাবেন চিকিৎসকরা।

এদিকে,সিলেটে টিলা ধসের ঘটনায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। মঙ্গলবার (১১ জুন) দুপুর ১২ টায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন তারা। পরিদর্শনকালে ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, টিলা কেটে দেয়াল নির্মাণ করা হয়েছে। প্রাকৃতিক কোনো দুর্যোগ আসলে এখানে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে। গতকালের মর্মান্তিক ঘটনায় দুঃখ পেয়েছি। এধরণের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে আমাদের সচেতন হতে হবে। টিলা ধসের ঘটনায় নিহতদের পরিবার এবং আহতদের চিকিৎসার জন্য আর্থিক ও ত্রান সহায়তা করা হয়। ড. এ কে আব্দুল মোমেন আরো বলেছেন কয়েক বছর ধরে সিলেট প্রাকৃতিক দুর্যোগপূর্ণ অঞ্চল হয়ে উঠেছে। ২০২০ সালের বন্যায় বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয় সিলেট। এবারেও বন্যা হয়ে ক্ষতির মুখে সিলেট। বজ্রপাতে স¤প্রতি ঘন ঘন প্রাণহানি ঘটছে এ অঞ্চলে। এছাড়া ঘন ঘন হচ্ছে ভূমিকম্পও। এসব প্রাকৃতিক দুর্যোগে সিলেটের জন্য ‘ক্লাইমেট প্রকেটশন ফান্ড’ গঠন করতে চাই। যাতে সহজেই দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানো যায়। সিলেট মহানগরের মেজরটিলার চামেলীভাগ আবাসিক এলাকায় টিল ধসে নিহত ৩ জনের পরিবারের সদস্যদের সান্ত¡না দিতে গিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন- সিলেটে অবৈধভাবে টিলা কাটা হয় প্রচুর। এগুলো রোধ করতে হবে। প্রয়োজনে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ কমিটি করে টিলা কাটা ঠেকাতে হবে। অভিযোগ রয়েছে- স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা এসব কাজে জড়িত থাকেন। তাই তাদের মাধ্যমেই টিলার মাটি কাটা রোধ করা প্রয়োজন।

এর আগে মঙ্গলবার (১১ জুন) বেলা সাড়ে ১১টায় ড. এ কে আব্দুল মোমেন নিহতদের বাড়িতে যান। এসময় তিনি নিহত ৩ জনের মা-ভাই ও স্বজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন এবং ব্যক্তিগত পক্ষ আর্থিক অনুদান প্রদান করেন।

এসময় তাঁর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী, সিলেট সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক, সিলেট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাছরীন আক্তার ও সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ৩৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।