ঢাকা ০৩:৪৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সাঘাটায় অটোভ্যান চালক হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন, ৫ আসামী গ্রেফতার 

Reporter Name
  • Update Time : ০৭:০২:৫৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ এপ্রিল ২০২৩
  • / ১২৩ Time View

আঃ খালেক মন্ডল,গোবিন্দগঞ্জ(গাইবান্ধা): গাইবান্ধার সাঘাটা থানার বাদিনার পাড়া গ্রামে জনৈক মোঃ আব্দুল্লাহর ভুট্টা ক্ষেতের ভিতর রুবেল হোসেন (২২) নামে অটোভ্যান চালকের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ক্লুলেস এই হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটনসহ ৫ আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

হত্যাকান্ডের সাথে সরাসরি জড়িত গ্রেফতারকৃত আসামিরা হলো ৩জন -মোঃ ওবায়দুল ইসলাম (২৪) মোঃ রুবেল মিয়া (২২) মোঃ জসিম উদ্দিন (৩২)। তাদেরকে ঢাকা জিরাবো এলাকা হতে গ্রেফতার করে পুলিশ।

শুক্রবার সকালে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন গাইবান্ধা জেলা পুলিশ সুপার জনাব মোঃ কামাল হোসেন জানান,হত্যাকান্ডের সাথে সরাসরি জড়িত আসামী ওবাইদুল রুবেল ও জসিমকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা ঢাকা জিরাবো এলাকায় একসঙ্গে বিভিন্ন কাজকর্ম করে থাকে। ঘটনার ২দিন পূর্বে তারা ৩ জন একত্রে সাঘাটা নিজ এলাকার আসে এবং অটোভ্যান ছিনতাই করার পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনা মোতাবেক ঘটনার দিন গত (১৯ মার্চ) রাত ৯ টায় তারা রুবেলের অটোভ্যানটি সাঘাটা বাজার হইতে ভাড়া করে নিজ বাড়ী বাদিনারপাড়া গ্রামের দিকে নিয়ে যায়। পথিমধ্যে নির্জন এলাকায় অটোচালক রুবেলকে তার ব্যবহৃত চাদর গলায় পেঁচিয়ে হত্যা করে এবং মৃতদেহ পাশের ভুট্টা ক্ষেত্রের ভিতর ফেলে রেখে তারা অটো ভ্যান ও মোবাইল নিয়ে চলে যায়।

হত্যাকারী আসামীরা সাঘাটা থানার বারোকোনা বাজারের পার্শ্বে আসামী সাজু মিয়া ও রেজাউল করিমের নিকট অটোভ্যানটি ৯,৫০০/-টাকায় বিক্রি করে এবং ঐ রাতেই তারা একসাথে ঢাকায় চলে যায়।

জিজ্ঞাসাবাদে আসামী ওবাইদুল,রুবেল ও জসিম হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেন। আসামী ওবাইদুল, রুবেল ও জসিম ঢাকায় একই ভাড়া বাসায় থাকত। তারা মাদকাসক্ত। মূলত টাকার জন্যই আসামীরা অটো চালককে হত্যা করে অটোভ্যানটি নিয়ে যায়।তাদের ২জনের বাড়ি সাঘাটায় এবং অপর ১জন জনের বাড়ি বরিশাল জেলার হিজলা থানা এলাকায়।

গ্রেফতারকৃত ওবাইদুলের নিকট হতে মৃত রুবেল হোসেনের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। আসামীত্রয়ের দেওয়া তথ্য মতে চুরি যাওয়া অটোভ্যানটি ক্রয়-বিক্রয়ের সাথে জড়িত ২জন -মোঃ সাজু মিয়া (৪০) ও মোঃ রেজাউল করিম (৫০) গ্রেফতার করা হয় এবং তাদের হেফাজত হতে অটোভ্যানের বিভিন্ন অংশ ১টি টায়ার বিহীন চাকা,১টি হ্যান্ডেল,১টি লুকিং গ্লাস,১টি যাত্রী বসার সিট ও ১টি এক্সেল উদ্ধার করা হয়।

উল্লেখ্য-গত (২০ মার্চ) দুপুরে সাঘাটা থানার বাদিনার পাড়া গ্রামে জনৈক মোঃ আব্দুল্লাহর ভুট্টা ক্ষেতের ভিতর রুবেল হোসেন (২২), পিতা-মোঃ আজগর আলী, সাং-পবনতাইড় থানা- সাঘাটা,জেলা-গাইবান্ধা এর মৃতদেহ পাওয়া যায়। পরবর্তীতে ঘটনা সংক্রান্তে সাঘাটা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হলে ক্লুলেস এই হত্যাকান্ড রহস্য উদঘাটনে মাঠে নামে পুলিশ।

Please Share This Post in Your Social Media

সাঘাটায় অটোভ্যান চালক হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন, ৫ আসামী গ্রেফতার 

Update Time : ০৭:০২:৫৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ এপ্রিল ২০২৩

আঃ খালেক মন্ডল,গোবিন্দগঞ্জ(গাইবান্ধা): গাইবান্ধার সাঘাটা থানার বাদিনার পাড়া গ্রামে জনৈক মোঃ আব্দুল্লাহর ভুট্টা ক্ষেতের ভিতর রুবেল হোসেন (২২) নামে অটোভ্যান চালকের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ক্লুলেস এই হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটনসহ ৫ আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

হত্যাকান্ডের সাথে সরাসরি জড়িত গ্রেফতারকৃত আসামিরা হলো ৩জন -মোঃ ওবায়দুল ইসলাম (২৪) মোঃ রুবেল মিয়া (২২) মোঃ জসিম উদ্দিন (৩২)। তাদেরকে ঢাকা জিরাবো এলাকা হতে গ্রেফতার করে পুলিশ।

শুক্রবার সকালে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন গাইবান্ধা জেলা পুলিশ সুপার জনাব মোঃ কামাল হোসেন জানান,হত্যাকান্ডের সাথে সরাসরি জড়িত আসামী ওবাইদুল রুবেল ও জসিমকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা ঢাকা জিরাবো এলাকায় একসঙ্গে বিভিন্ন কাজকর্ম করে থাকে। ঘটনার ২দিন পূর্বে তারা ৩ জন একত্রে সাঘাটা নিজ এলাকার আসে এবং অটোভ্যান ছিনতাই করার পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনা মোতাবেক ঘটনার দিন গত (১৯ মার্চ) রাত ৯ টায় তারা রুবেলের অটোভ্যানটি সাঘাটা বাজার হইতে ভাড়া করে নিজ বাড়ী বাদিনারপাড়া গ্রামের দিকে নিয়ে যায়। পথিমধ্যে নির্জন এলাকায় অটোচালক রুবেলকে তার ব্যবহৃত চাদর গলায় পেঁচিয়ে হত্যা করে এবং মৃতদেহ পাশের ভুট্টা ক্ষেত্রের ভিতর ফেলে রেখে তারা অটো ভ্যান ও মোবাইল নিয়ে চলে যায়।

হত্যাকারী আসামীরা সাঘাটা থানার বারোকোনা বাজারের পার্শ্বে আসামী সাজু মিয়া ও রেজাউল করিমের নিকট অটোভ্যানটি ৯,৫০০/-টাকায় বিক্রি করে এবং ঐ রাতেই তারা একসাথে ঢাকায় চলে যায়।

জিজ্ঞাসাবাদে আসামী ওবাইদুল,রুবেল ও জসিম হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেন। আসামী ওবাইদুল, রুবেল ও জসিম ঢাকায় একই ভাড়া বাসায় থাকত। তারা মাদকাসক্ত। মূলত টাকার জন্যই আসামীরা অটো চালককে হত্যা করে অটোভ্যানটি নিয়ে যায়।তাদের ২জনের বাড়ি সাঘাটায় এবং অপর ১জন জনের বাড়ি বরিশাল জেলার হিজলা থানা এলাকায়।

গ্রেফতারকৃত ওবাইদুলের নিকট হতে মৃত রুবেল হোসেনের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। আসামীত্রয়ের দেওয়া তথ্য মতে চুরি যাওয়া অটোভ্যানটি ক্রয়-বিক্রয়ের সাথে জড়িত ২জন -মোঃ সাজু মিয়া (৪০) ও মোঃ রেজাউল করিম (৫০) গ্রেফতার করা হয় এবং তাদের হেফাজত হতে অটোভ্যানের বিভিন্ন অংশ ১টি টায়ার বিহীন চাকা,১টি হ্যান্ডেল,১টি লুকিং গ্লাস,১টি যাত্রী বসার সিট ও ১টি এক্সেল উদ্ধার করা হয়।

উল্লেখ্য-গত (২০ মার্চ) দুপুরে সাঘাটা থানার বাদিনার পাড়া গ্রামে জনৈক মোঃ আব্দুল্লাহর ভুট্টা ক্ষেতের ভিতর রুবেল হোসেন (২২), পিতা-মোঃ আজগর আলী, সাং-পবনতাইড় থানা- সাঘাটা,জেলা-গাইবান্ধা এর মৃতদেহ পাওয়া যায়। পরবর্তীতে ঘটনা সংক্রান্তে সাঘাটা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হলে ক্লুলেস এই হত্যাকান্ড রহস্য উদঘাটনে মাঠে নামে পুলিশ।