ঢাকা ১০:২৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ নভেম্বর ২০২৩, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মেসিকে ফেরাতে বার্সায় মেসির নামে যাদুঘর

Reporter Name
  • Update Time : ০৩:৪২:৪৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৬ এপ্রিল ২০২৩
  • / ১৩৪ Time View

বার্সেলোনায় ফেরার গুঞ্জন চলছে লিওনেল মেসির। জুনে পিএসজির সঙ্গে চুক্তি শেষ আর্জেন্টাইন তারকার। এরপর ফ্রি এজেন্টে ক্লাব পরিবর্তন করতে পারবেন তিনি। প্যারিসের ক্লাবটিতে চুক্তি নবায়নের প্রস্তাব থাকলেও মেসি তাতে সাড়া দিচ্ছেন না।

মৌসুম শেষ হতে আর মাস দুয়েক বাকি। এরমধ্যে অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে গেছে পিএসজিতে আর থাকছেন না লিওনেল মেসি। ফিরতে পারেন সাবেক ক্লাব বার্সেলোনায়। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে আর্থিক সংকটে থাকা ক্লাবটি মেসিকে ফেরানোর অর্থ পাবে কোথায়?

আর্থিক জটিলতার কারণেই ২০২১ সালের গ্রীষ্মে বার্সেলোনা ছাড়তে হয়েছিল মেসিকে। বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছিল লা লিগার ফিনান্সিয়াল ফেয়ার প্লে পলিসি। এবারও সেই একই বাঁধা। তাকে ফেরাতে হলে বড় অঙ্কের ব্যয় কমাতে হবে দলটিকে। যা বিশাল চ্যালেঞ্জিং ক্লাবটির জন্য। তবে ভিন্ন উপায়ে আয় বাড়ানোর উপায় খুঁজছে ক্লাবটি।

যদিও মেসিকে ফেরানোর জন্য অর্থ যোগাতে এরমধ্যেই কাজ শুরু করে দিয়েছে বার্সেলোনা। প্রথম টার্গেট দলের কিছু খেলোয়াড় বিক্রি করা। এ তালিকায় আছে বড় বড় নামও। কিন্তু তাদের বিক্রি না করেও মেসিকে ফিরিয়ে আনার উপায় বের করেছে তারা। স্প্যানিশ আউটলেট এএসের সংবাদ অনুযায়ী, মেসির নামে যাদুঘর খুলতে চায় তারা।

অবশ্য এ পরিকল্পনা নতুন নতুন কিছু নয়। ক্যাম্প ন্যু-এর পাশে অবস্থিত তাদের বিখ্যাত যুব একাডেমি লা মাসিয়ার পুরানো সদর দফতরকে মেসি যাদুঘর তৈরির বিষয়টি নিয়ে অনেক আলোচনাই হয়েছে। কিন্তু আলোর মুখ দেখেনি। সংবাদ অনুযায়ী, এবার এটা বাস্তবে পরিণত করতে টেলিযোগাযোগ সংস্থা টেলিফোনিকার সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে ক্লাবটি।

এর আগে এএস জানিয়েছিল, মেসিকে ফেরানোর বিষয়ে লা লিগার ফেয়ার প্লে পলিসি নিয়ে ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে লা লিগা সভাপতি হ্যাভিয়ার তেবাসের সঙ্গে। আর সেখানে মেসিকে ফেরানোর কিছু উপায় বলে দেন লা লিগা সভাপতি। তার সঙ্গে আলোচনার পরপরই মেসি যাদুঘর তৈরির গুঞ্জন উঠল।

ধারণা করা হচ্ছে হাজার হাজার পর্যটক এবং ভক্তদের আকৃষ্ট করবে মেসি যাদুঘর। যা আর্জেন্টাইন অধিনায়ককে স্বাক্ষর করানোর জন্য একটি ধারাবাহিক আয়ের উৎস হবে। যদিও ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো ও কিলিয়ান এমবাপের পর ফুটবল বিশ্বে বর্তমানে তৃতীয় সর্বোচ্চ বেতন পান মেসি। তবে বার্সায় যোগ দিলে বড় অঙ্কের ছাড় দিবেন তিনি। তা হতে পারে তিন চতুর্থাংশ পর্যন্ত। কিন্তু তারপরও যে পরিমাণ বেতন দিতে হবে তাকে তা কার্যত কঠিনই ক্লাবটির জন্য।

উল্লেখ্য, মেসি দল ছাড়ার পর খেলোয়াড় কেনার জন্য সম্প্রচারষত্বের পাশাপাশি ক্লাবের নানা ধরণের সম্পদ বিক্রি করেছিল বার্সেলোনা। কিন্তু গত দুই মৌসুমে ইউরোপীয় প্রতিযোগিতায় ভরাডুবির ফলে সে সংকট থেকে বের হতে পারেনি ক্লাবটি।

Please Share This Post in Your Social Media

মেসিকে ফেরাতে বার্সায় মেসির নামে যাদুঘর

Update Time : ০৩:৪২:৪৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৬ এপ্রিল ২০২৩

বার্সেলোনায় ফেরার গুঞ্জন চলছে লিওনেল মেসির। জুনে পিএসজির সঙ্গে চুক্তি শেষ আর্জেন্টাইন তারকার। এরপর ফ্রি এজেন্টে ক্লাব পরিবর্তন করতে পারবেন তিনি। প্যারিসের ক্লাবটিতে চুক্তি নবায়নের প্রস্তাব থাকলেও মেসি তাতে সাড়া দিচ্ছেন না।

মৌসুম শেষ হতে আর মাস দুয়েক বাকি। এরমধ্যে অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে গেছে পিএসজিতে আর থাকছেন না লিওনেল মেসি। ফিরতে পারেন সাবেক ক্লাব বার্সেলোনায়। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে আর্থিক সংকটে থাকা ক্লাবটি মেসিকে ফেরানোর অর্থ পাবে কোথায়?

আর্থিক জটিলতার কারণেই ২০২১ সালের গ্রীষ্মে বার্সেলোনা ছাড়তে হয়েছিল মেসিকে। বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছিল লা লিগার ফিনান্সিয়াল ফেয়ার প্লে পলিসি। এবারও সেই একই বাঁধা। তাকে ফেরাতে হলে বড় অঙ্কের ব্যয় কমাতে হবে দলটিকে। যা বিশাল চ্যালেঞ্জিং ক্লাবটির জন্য। তবে ভিন্ন উপায়ে আয় বাড়ানোর উপায় খুঁজছে ক্লাবটি।

যদিও মেসিকে ফেরানোর জন্য অর্থ যোগাতে এরমধ্যেই কাজ শুরু করে দিয়েছে বার্সেলোনা। প্রথম টার্গেট দলের কিছু খেলোয়াড় বিক্রি করা। এ তালিকায় আছে বড় বড় নামও। কিন্তু তাদের বিক্রি না করেও মেসিকে ফিরিয়ে আনার উপায় বের করেছে তারা। স্প্যানিশ আউটলেট এএসের সংবাদ অনুযায়ী, মেসির নামে যাদুঘর খুলতে চায় তারা।

অবশ্য এ পরিকল্পনা নতুন নতুন কিছু নয়। ক্যাম্প ন্যু-এর পাশে অবস্থিত তাদের বিখ্যাত যুব একাডেমি লা মাসিয়ার পুরানো সদর দফতরকে মেসি যাদুঘর তৈরির বিষয়টি নিয়ে অনেক আলোচনাই হয়েছে। কিন্তু আলোর মুখ দেখেনি। সংবাদ অনুযায়ী, এবার এটা বাস্তবে পরিণত করতে টেলিযোগাযোগ সংস্থা টেলিফোনিকার সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে ক্লাবটি।

এর আগে এএস জানিয়েছিল, মেসিকে ফেরানোর বিষয়ে লা লিগার ফেয়ার প্লে পলিসি নিয়ে ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে লা লিগা সভাপতি হ্যাভিয়ার তেবাসের সঙ্গে। আর সেখানে মেসিকে ফেরানোর কিছু উপায় বলে দেন লা লিগা সভাপতি। তার সঙ্গে আলোচনার পরপরই মেসি যাদুঘর তৈরির গুঞ্জন উঠল।

ধারণা করা হচ্ছে হাজার হাজার পর্যটক এবং ভক্তদের আকৃষ্ট করবে মেসি যাদুঘর। যা আর্জেন্টাইন অধিনায়ককে স্বাক্ষর করানোর জন্য একটি ধারাবাহিক আয়ের উৎস হবে। যদিও ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো ও কিলিয়ান এমবাপের পর ফুটবল বিশ্বে বর্তমানে তৃতীয় সর্বোচ্চ বেতন পান মেসি। তবে বার্সায় যোগ দিলে বড় অঙ্কের ছাড় দিবেন তিনি। তা হতে পারে তিন চতুর্থাংশ পর্যন্ত। কিন্তু তারপরও যে পরিমাণ বেতন দিতে হবে তাকে তা কার্যত কঠিনই ক্লাবটির জন্য।

উল্লেখ্য, মেসি দল ছাড়ার পর খেলোয়াড় কেনার জন্য সম্প্রচারষত্বের পাশাপাশি ক্লাবের নানা ধরণের সম্পদ বিক্রি করেছিল বার্সেলোনা। কিন্তু গত দুই মৌসুমে ইউরোপীয় প্রতিযোগিতায় ভরাডুবির ফলে সে সংকট থেকে বের হতে পারেনি ক্লাবটি।