ঢাকা ০৩:১৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ

ভূয়া উপসচিব ও প্রোগ্রাম অফিসার পরিচয়ে প্রতারনা, মূল হোতা সহ দুই জন গ্রেফতার

আরিফুল হক নোভেল
  • Update Time : ০৭:৫৩:০৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ৪২ Time View

মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের ভূয়া উপ-সচিব ও প্রোগ্রাম অফিসার পরিচয়ে মাদ্রাসার শিক্ষকদের এমপিওভূক্তি ও নব নিয়োগপ্রাপ্ত লাইব্রেরিয়ানদের বেতন ভাতাদি নিয়মিত করে দেওয়ার আশ্বাসে কোটি কোটি টাকা প্রতারণা করে আতসাৎ করার অপরাধে জড়িত আসামী জুবায়ের @ মোঃ আসাদুজ্জামান মানিক @ লুৎফর রহমান (৪৭) কে গত ১৫/০২/২০২৪খ্রিঃ রাত ০২.০০ ঘটিকার সময় গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ থানার ফলগাছা গ্রাম হতে গ্রেফতার করা হয়।

পরবর্তীতে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে অপর সহযোগী আসামী মোঃ আব্দুল গফফার @ সুমন চৌধুরী @ সাইফুল (৭৭) কে গত ১৫/০২/২০২৪খ্রিঃ তারিখ বেলা ১৬.০০ ঘটিকার সময় ঢাকা মহানগরের উত্তরা-পশ্চিম থানা এলাকা হতে গ্রেফতার করা হয়।

প্রতারিত মোঃ কামরুজ্জামান কুচিয়ামোড়া ইসলামিয়া ফাযিল মাদ্রাসা, চরফ্যাশন, ভোলা তৎসহ আছলামিয়া হামেলা খাতুন বালিকা দাখিল মাদ্রাসা, দক্ষিণ চরফ্যাশন শামছুল উলুম দাখিল মাদ্রাসা, আমিনাবাদ হাকিমিয়া দাখিল মাদ্রাসা, আছলামপুর মোহাম্মদীয়া দাখিল মাদ্রাসা, দক্ষিণ আছলামপুর মোবারক আলী দাখিল মাদ্রাসা, কুন্ডের হাওলা রাশিদীয়া দাখিল মাদ্রাসা, নূরাবাদ হোসাইনীয়া ফাজিল মাদ্রসা, লালমোহন ইসলামীয়া কামিল মাদ্রাসা, উওর চরমানিকা লতিফীয়া দাখিল মাদ্রাসা এবং পূর্ব ফরিদাবাদ ইউনূসীয়া জিহাদূল উলূম দাখিল মাদ্রাসার এমপিওভ‚ক্তি বাতিল করার ভয়-ভীতি দেখিয়ে এবং এমপিওভ‚ক্তি বহাল রাখা সহ উক্ত মাদ্রাসা গুলোর নব নিযুক্ত লাইব্রেরিয়ানদের বেতন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরী ও মাদ্রসা শাখা হতে নিয়মিত করে দিবে মর্মে উক্ত মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও সুপারদের জুবায়ের @ মোঃ আসাদুজ্জামান মানিক @ লুৎফর রহমান এর সাথে দেখা করার জন্য আসামী তার মোবাইল নম্বর হতে গত ২৮/০৭/২০২১খ্রিঃ তারিখ উল্লেখিত মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও সুপারদের মোবাইল নাম্বারে ফোন করে ঢাকায় আসতে বলে।

গত ০২/০৮/২০২১খ্রিঃ তারিখ উল্লেখিত মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও সুপারগণ আসামীর কথায় বিশ্বাস করে সম্মিলিতভাবে গত ০২/০৮/২০২১খ্রিঃ তারিখে আসামীর কথামত বাংলাদেশ সচিবলায়ের বিপরীতে ওসমানী মিলনায়তনের সামনে এসে আসামীর মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করলে আসামী সচিবলায়ের ভিতর থেকে বাইরে এসে নিজকে জোবায়ের রহমান, প্রোগ্রাম অফিসার, কারিগরী ও মাদ্রসা শাখা, শিক্ষা মন্ত্রাণালয় পরিচয় দিয়ে বাদী’সহ অন্যান্য মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও সুপারগণ সহ গাড়ীতে উঠে বংশাল থানাধীন রায় সাহেব বাজারের সামনে রাস্তার উপরে এসে বাদীকে ১২,০০,০০০/-টাকা দিতে বললে বাদী তার কাছে থাকা নগদ ৬,৯০,০০০/-টাকা ধৃত আসামীকে প্রদান করেন। বাকী টাকা আসামীর দেওয়া মোবাইল নম্বর ০১৩০৯৩৪৩৭৪২, ০১৮১২১৬৭৫৫৫, ০১৬১৭১১২০৩১, ০১৮১৮৬৮১৮৬৬তে  নগদ ও বিকাশের মাধ্যমে গত ০২/০৮/২০২১খ্রিঃ তারিখ হতে ০৫/০৮/২০২১খ্রিঃ তারিখের মধ্যে মোট ৪,৬১,১০০/-টাকা প্রেরণ করেন।

ইতোমধ্যে উল্লেখিত সকল মাদ্রাসার শিক্ষক কর্মচারির বেতন বন্ধ হয়ে যায় ও নিয়োগ প্রাপ্ত লাইব্রিয়ানদের বেতনের অগ্রগতি না দেখতে পেয়ে বাদীর সন্দেহ হলে বাদী মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরে খোঁজ খবর নিয়ে বাদী জানতে পারেন জুবায়ের @ মোঃ আসাদুজ্জামান মানিক @ লুৎফর রহমান (৪৭) নামে কোন প্রোগ্রাম অফিসার উক্ত অফিসে কর্মরত নাই। আসামী বাদী’সহ অপরাপর মাদ্রাসার শিক্ষকদের মনে সরল বিশ্বাস স্থাপন করতঃ প্রতারণার মাধ্যমে সর্বমোট ১১,৫১,১০০/-টাকা আত্মসাৎ করেন।

উক্ত বিষয়ে বাদী বংশাল থানায় এজাহার দায়ের করলে অফিসার ইনচার্জ, বংশাল থানা, ডিএমপি, ঢাকা বংশাল থানার মামলা নং-০৮, তারিখ-০৯/১২/২০২৩খ্রিঃ, ধারা-১৭০/৪০৬/৪২০/৫০৬/১০৯ পেনাল কোড রুজু করে এর তদন্তভার এসআই(নিঃ) মোঃ ইউনুচ মোল্লা, বিপি-৭৮৯৭০১৮০০৫, বংশাল থানা, ডিএমপি, ঢাকা এর নিকট অর্পণ করেন। পরবর্তীতে মামলাটির তদন্তভার পিবিআই ঢাকা মেট্রো (উত্তর) এর উপর ন্যাস্ত হলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা হিসেবে এসআই(নিঃ) মোঃ সিরাজ উদ্দিন কে নিয়োগ করা হয়।

অ্যাডিশনাল আইজিপি, পিবিআই জনাব বনজ কুমার মজুমদার, বিপিএম (বার), পিপিএম এর সার্বিক তত্ত্বাবধান ও দিক-নিদের্শনায় এবং পিবিআই ঢাকা মেট্রো (উত্তর) এর অতিরিক্ত ডিআইজি জনাব মোঃ জাহাঙ্গীর আলম বিপিএম-সেবা এর নিবিড় তদারকিতে পিবিআই ঢাকা মেট্রো (উত্তর) এর এসআই(নিঃ)/মোঃ সিরাজ উদ্দিন, এসআই(নিঃ)/ মধুসুদন শীল ও কনস্টেবল/ জহির উদ্দিন’দের সমন্বয়ে পিবিআই ঢাকা মেট্রো (উত্তর) এর একটি বিশেষ টিম কর্তৃক ঘটনার মূল হোতা এজাহারনামীয় ১নং আসামী জুবায়ের @ মোঃ আসাদুজ্জামান মানিক @ লুৎফর রহমান (৪৭) কে গত ১৫/০২/২০২৪খ্রিঃ গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ থানার ফলগাছা গ্রাম হতে গ্রেফতার করা হয়।

পরবর্তীতে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে তার সহযোগী অপর আসামী মোঃ আব্দুল গফফার @ সুমন চৌধুরী @ সাইফুল (৭৭) একই তারিখ ঢাকা মহানগরের উত্তরা-পশ্চিম থানা এলাকা হতে গ্রেফতার করা হয়।

ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আসামীদেরকে বিজ্ঞ আদালতে উপস্থাপন করলে বিজ্ঞ আদালত  আসামীদের ০২(দুই) দিনের পুলিশ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পুলিশ রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে আসামীদ্বয় পূর্ব হাজার বটতলা সিনিয়র মাদ্রাসা বরগুনা হতে ১৩,৭০,০০০/- টাকা, বাগাতিপাড়া টেকনিক্যাল এন্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট ইনস্টিটিউট নাটোর হতে ৮৫,০০০/- টাকা, উওর চরমানিকা লতিফীয়া দাখিল মাদ্রাসা ভোলা হতে ১১,৬০,০০০/- টাকা, মোহাব্বতপুর আমিনিয়া ফাজিল মাদ্রাসা জয়পুরহাট হতে ২,৭০,০০০/-টাকা সহ আরও অন্যান্য মাদ্রাসার শিক্ষকদের এমপিওভ’ক্তি বাতিল করার ভয়-ভীতি দেখিয়ে আসামীদের ব্যবহৃত বিভিন্ন বিকাশ ও নগদ নম্বরে সর্বমোট ৪,০১,১৩৯৭২/-(চার কোটি একলক্ষ তেরহাজার নয়শত বাহাত্তর) টাকা হাতিয়ে নিয়েছে মর্মে জানা যায়।

Please Share This Post in Your Social Media

ভূয়া উপসচিব ও প্রোগ্রাম অফিসার পরিচয়ে প্রতারনা, মূল হোতা সহ দুই জন গ্রেফতার

Update Time : ০৭:৫৩:০৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের ভূয়া উপ-সচিব ও প্রোগ্রাম অফিসার পরিচয়ে মাদ্রাসার শিক্ষকদের এমপিওভূক্তি ও নব নিয়োগপ্রাপ্ত লাইব্রেরিয়ানদের বেতন ভাতাদি নিয়মিত করে দেওয়ার আশ্বাসে কোটি কোটি টাকা প্রতারণা করে আতসাৎ করার অপরাধে জড়িত আসামী জুবায়ের @ মোঃ আসাদুজ্জামান মানিক @ লুৎফর রহমান (৪৭) কে গত ১৫/০২/২০২৪খ্রিঃ রাত ০২.০০ ঘটিকার সময় গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ থানার ফলগাছা গ্রাম হতে গ্রেফতার করা হয়।

পরবর্তীতে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে অপর সহযোগী আসামী মোঃ আব্দুল গফফার @ সুমন চৌধুরী @ সাইফুল (৭৭) কে গত ১৫/০২/২০২৪খ্রিঃ তারিখ বেলা ১৬.০০ ঘটিকার সময় ঢাকা মহানগরের উত্তরা-পশ্চিম থানা এলাকা হতে গ্রেফতার করা হয়।

প্রতারিত মোঃ কামরুজ্জামান কুচিয়ামোড়া ইসলামিয়া ফাযিল মাদ্রাসা, চরফ্যাশন, ভোলা তৎসহ আছলামিয়া হামেলা খাতুন বালিকা দাখিল মাদ্রাসা, দক্ষিণ চরফ্যাশন শামছুল উলুম দাখিল মাদ্রাসা, আমিনাবাদ হাকিমিয়া দাখিল মাদ্রাসা, আছলামপুর মোহাম্মদীয়া দাখিল মাদ্রাসা, দক্ষিণ আছলামপুর মোবারক আলী দাখিল মাদ্রাসা, কুন্ডের হাওলা রাশিদীয়া দাখিল মাদ্রাসা, নূরাবাদ হোসাইনীয়া ফাজিল মাদ্রসা, লালমোহন ইসলামীয়া কামিল মাদ্রাসা, উওর চরমানিকা লতিফীয়া দাখিল মাদ্রাসা এবং পূর্ব ফরিদাবাদ ইউনূসীয়া জিহাদূল উলূম দাখিল মাদ্রাসার এমপিওভ‚ক্তি বাতিল করার ভয়-ভীতি দেখিয়ে এবং এমপিওভ‚ক্তি বহাল রাখা সহ উক্ত মাদ্রাসা গুলোর নব নিযুক্ত লাইব্রেরিয়ানদের বেতন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরী ও মাদ্রসা শাখা হতে নিয়মিত করে দিবে মর্মে উক্ত মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও সুপারদের জুবায়ের @ মোঃ আসাদুজ্জামান মানিক @ লুৎফর রহমান এর সাথে দেখা করার জন্য আসামী তার মোবাইল নম্বর হতে গত ২৮/০৭/২০২১খ্রিঃ তারিখ উল্লেখিত মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও সুপারদের মোবাইল নাম্বারে ফোন করে ঢাকায় আসতে বলে।

গত ০২/০৮/২০২১খ্রিঃ তারিখ উল্লেখিত মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও সুপারগণ আসামীর কথায় বিশ্বাস করে সম্মিলিতভাবে গত ০২/০৮/২০২১খ্রিঃ তারিখে আসামীর কথামত বাংলাদেশ সচিবলায়ের বিপরীতে ওসমানী মিলনায়তনের সামনে এসে আসামীর মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করলে আসামী সচিবলায়ের ভিতর থেকে বাইরে এসে নিজকে জোবায়ের রহমান, প্রোগ্রাম অফিসার, কারিগরী ও মাদ্রসা শাখা, শিক্ষা মন্ত্রাণালয় পরিচয় দিয়ে বাদী’সহ অন্যান্য মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও সুপারগণ সহ গাড়ীতে উঠে বংশাল থানাধীন রায় সাহেব বাজারের সামনে রাস্তার উপরে এসে বাদীকে ১২,০০,০০০/-টাকা দিতে বললে বাদী তার কাছে থাকা নগদ ৬,৯০,০০০/-টাকা ধৃত আসামীকে প্রদান করেন। বাকী টাকা আসামীর দেওয়া মোবাইল নম্বর ০১৩০৯৩৪৩৭৪২, ০১৮১২১৬৭৫৫৫, ০১৬১৭১১২০৩১, ০১৮১৮৬৮১৮৬৬তে  নগদ ও বিকাশের মাধ্যমে গত ০২/০৮/২০২১খ্রিঃ তারিখ হতে ০৫/০৮/২০২১খ্রিঃ তারিখের মধ্যে মোট ৪,৬১,১০০/-টাকা প্রেরণ করেন।

ইতোমধ্যে উল্লেখিত সকল মাদ্রাসার শিক্ষক কর্মচারির বেতন বন্ধ হয়ে যায় ও নিয়োগ প্রাপ্ত লাইব্রিয়ানদের বেতনের অগ্রগতি না দেখতে পেয়ে বাদীর সন্দেহ হলে বাদী মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরে খোঁজ খবর নিয়ে বাদী জানতে পারেন জুবায়ের @ মোঃ আসাদুজ্জামান মানিক @ লুৎফর রহমান (৪৭) নামে কোন প্রোগ্রাম অফিসার উক্ত অফিসে কর্মরত নাই। আসামী বাদী’সহ অপরাপর মাদ্রাসার শিক্ষকদের মনে সরল বিশ্বাস স্থাপন করতঃ প্রতারণার মাধ্যমে সর্বমোট ১১,৫১,১০০/-টাকা আত্মসাৎ করেন।

উক্ত বিষয়ে বাদী বংশাল থানায় এজাহার দায়ের করলে অফিসার ইনচার্জ, বংশাল থানা, ডিএমপি, ঢাকা বংশাল থানার মামলা নং-০৮, তারিখ-০৯/১২/২০২৩খ্রিঃ, ধারা-১৭০/৪০৬/৪২০/৫০৬/১০৯ পেনাল কোড রুজু করে এর তদন্তভার এসআই(নিঃ) মোঃ ইউনুচ মোল্লা, বিপি-৭৮৯৭০১৮০০৫, বংশাল থানা, ডিএমপি, ঢাকা এর নিকট অর্পণ করেন। পরবর্তীতে মামলাটির তদন্তভার পিবিআই ঢাকা মেট্রো (উত্তর) এর উপর ন্যাস্ত হলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা হিসেবে এসআই(নিঃ) মোঃ সিরাজ উদ্দিন কে নিয়োগ করা হয়।

অ্যাডিশনাল আইজিপি, পিবিআই জনাব বনজ কুমার মজুমদার, বিপিএম (বার), পিপিএম এর সার্বিক তত্ত্বাবধান ও দিক-নিদের্শনায় এবং পিবিআই ঢাকা মেট্রো (উত্তর) এর অতিরিক্ত ডিআইজি জনাব মোঃ জাহাঙ্গীর আলম বিপিএম-সেবা এর নিবিড় তদারকিতে পিবিআই ঢাকা মেট্রো (উত্তর) এর এসআই(নিঃ)/মোঃ সিরাজ উদ্দিন, এসআই(নিঃ)/ মধুসুদন শীল ও কনস্টেবল/ জহির উদ্দিন’দের সমন্বয়ে পিবিআই ঢাকা মেট্রো (উত্তর) এর একটি বিশেষ টিম কর্তৃক ঘটনার মূল হোতা এজাহারনামীয় ১নং আসামী জুবায়ের @ মোঃ আসাদুজ্জামান মানিক @ লুৎফর রহমান (৪৭) কে গত ১৫/০২/২০২৪খ্রিঃ গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ থানার ফলগাছা গ্রাম হতে গ্রেফতার করা হয়।

পরবর্তীতে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে তার সহযোগী অপর আসামী মোঃ আব্দুল গফফার @ সুমন চৌধুরী @ সাইফুল (৭৭) একই তারিখ ঢাকা মহানগরের উত্তরা-পশ্চিম থানা এলাকা হতে গ্রেফতার করা হয়।

ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আসামীদেরকে বিজ্ঞ আদালতে উপস্থাপন করলে বিজ্ঞ আদালত  আসামীদের ০২(দুই) দিনের পুলিশ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পুলিশ রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে আসামীদ্বয় পূর্ব হাজার বটতলা সিনিয়র মাদ্রাসা বরগুনা হতে ১৩,৭০,০০০/- টাকা, বাগাতিপাড়া টেকনিক্যাল এন্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট ইনস্টিটিউট নাটোর হতে ৮৫,০০০/- টাকা, উওর চরমানিকা লতিফীয়া দাখিল মাদ্রাসা ভোলা হতে ১১,৬০,০০০/- টাকা, মোহাব্বতপুর আমিনিয়া ফাজিল মাদ্রাসা জয়পুরহাট হতে ২,৭০,০০০/-টাকা সহ আরও অন্যান্য মাদ্রাসার শিক্ষকদের এমপিওভ’ক্তি বাতিল করার ভয়-ভীতি দেখিয়ে আসামীদের ব্যবহৃত বিভিন্ন বিকাশ ও নগদ নম্বরে সর্বমোট ৪,০১,১৩৯৭২/-(চার কোটি একলক্ষ তেরহাজার নয়শত বাহাত্তর) টাকা হাতিয়ে নিয়েছে মর্মে জানা যায়।