ঢাকা ০৪:৫৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বৃষ্টিতে বন্ধ বাংলাদেশ-আয়ারল্যান্ডের প্রথম ওয়ানডে

Reporter Name
  • Update Time : ১১:১৩:৩৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ মে ২০২৩
  • / ১০৫ Time View

চেমসফোর্ডে ২৪৭ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে তিন উইকেট হারিয়ে চাপে পড়েছে আয়ারল্যান্ড দল। এমতাবস্থায় শুরু হয়েছে বৃষ্টি। ফলে বন্ধ রয়েছে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডে। বৃষ্টি আসার আগে ৩ উইকেট হারিয়ে ৬৫ রান তুলেছে স্বাগতিকরা। ফলে জয়ের জন্য এখন দরকার ১৮২ রান। হাতে রয়েছে সাতটি উইকেট।

এখন ২১ রানে হ্যারি টেক্টর ও ২ রানে লরকান টাকার অপরাজিত রয়েছেন।

এর আগে ম্যাচের শুরুতে টস জিতে বাংলাদেশকে ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানান আইরিশ দলনেতা অ্যান্ড্রু বালবির্নি। প্রথম ওভারেই শূন্যরানে সাজঘরে ফেরেন লিটন কুমার দাস। আরেক ওপেনার তামিম ইকবাল ফেরেন ১৯ বলে ১৪ রানে। আর সাকিব আল হাসানের ব্যাট থেকে আসে ২০ রান।

এদিকে চতুর্থ উইকেট জুটিতে তাওহীদ হৃদয়কে সঙ্গে নিয়ে ৫০ রানের জুটি গড়েন নাজমুল হোসেন শান্ত। এ সময় ইতিবাচক ক্রিকেটই খেলছিল টাইগাররা। কিন্তু ৪৪ রানে শান্ত ও ২৭ রানে হৃদয় আউট হলে ফের চাপে পড়ে টাইগাররা। এর মাঝে ব্যক্তিগত ২৭ রানে আউট হন মেহেদি হাসান মিরাজ।

এদিকে একাই খেলতে তাকেন মুশফিকুর রহিম। তুলে নেন ব্যক্তিগত অর্ধশতক। এরপর আর বেশিক্ষণ ক্রিজে থাকতে পারেননি তিনি। ফেরেন ৬০ রানে। এছাড়া তাইজুল ১৪ ও শরিফুল ১৬ রান করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

বৃষ্টিতে বন্ধ বাংলাদেশ-আয়ারল্যান্ডের প্রথম ওয়ানডে

Update Time : ১১:১৩:৩৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ মে ২০২৩

চেমসফোর্ডে ২৪৭ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে তিন উইকেট হারিয়ে চাপে পড়েছে আয়ারল্যান্ড দল। এমতাবস্থায় শুরু হয়েছে বৃষ্টি। ফলে বন্ধ রয়েছে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডে। বৃষ্টি আসার আগে ৩ উইকেট হারিয়ে ৬৫ রান তুলেছে স্বাগতিকরা। ফলে জয়ের জন্য এখন দরকার ১৮২ রান। হাতে রয়েছে সাতটি উইকেট।

এখন ২১ রানে হ্যারি টেক্টর ও ২ রানে লরকান টাকার অপরাজিত রয়েছেন।

এর আগে ম্যাচের শুরুতে টস জিতে বাংলাদেশকে ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানান আইরিশ দলনেতা অ্যান্ড্রু বালবির্নি। প্রথম ওভারেই শূন্যরানে সাজঘরে ফেরেন লিটন কুমার দাস। আরেক ওপেনার তামিম ইকবাল ফেরেন ১৯ বলে ১৪ রানে। আর সাকিব আল হাসানের ব্যাট থেকে আসে ২০ রান।

এদিকে চতুর্থ উইকেট জুটিতে তাওহীদ হৃদয়কে সঙ্গে নিয়ে ৫০ রানের জুটি গড়েন নাজমুল হোসেন শান্ত। এ সময় ইতিবাচক ক্রিকেটই খেলছিল টাইগাররা। কিন্তু ৪৪ রানে শান্ত ও ২৭ রানে হৃদয় আউট হলে ফের চাপে পড়ে টাইগাররা। এর মাঝে ব্যক্তিগত ২৭ রানে আউট হন মেহেদি হাসান মিরাজ।

এদিকে একাই খেলতে তাকেন মুশফিকুর রহিম। তুলে নেন ব্যক্তিগত অর্ধশতক। এরপর আর বেশিক্ষণ ক্রিজে থাকতে পারেননি তিনি। ফেরেন ৬০ রানে। এছাড়া তাইজুল ১৪ ও শরিফুল ১৬ রান করেন।