ঢাকা ০৭:১৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
লন্ডনে ‘ডিজিটাল থেকে স্মার্ট বাংলাদেশ অগ্রযাত্রায় আমাদের করণীয়’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত সিলেটে বন্যায় ৭ লাখ ৭২ হাজার শিশু ক্ষতিগ্রস্ত হাঁড়িভাঙ্গা আম ও সবজি সংরক্ষণের মিঠাপুকুরে বিশেষায়িত হিমাগার স্থাপিত হবে – কৃষিমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর ভারত-চীন সফরেই তিস্তা মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নের পথ সুগম করার দাবি সৈয়দপুর হিউম্যানিটি ইন ডিস্ট্রেস (হিড) এর কোরবানি প্রোগ্রামে ১৪,৩৯,০০০ টাকার দুর্নীতির অভিযোগ নামাজ-পড়ালেখা নিয়ে শাসন করায় ফাঁস নিল কিশোরী ১ম বঙ্গবন্ধু ইন্দো-বাংলা ফুটসাল সিরিজের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত দেশে নয়টি ড্রেজিং স্টেশন তৈরি করা হচ্ছে : সিলেটে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী সিলেটে জনদুর্ভোগ অব্যাহত; পানি কোথাও কমছে কোথাও বাড়ছে তিস্তার পানি কমতে শুরু করেছে, বাড়ছে নদীভাঙন

বাংলাদেশ পুলিশের আয়োজনে জয় বাংলা ম্যারাথন অনুষ্ঠিত

স্টাফ রিপোর্টার
  • Update Time : ০৫:০৬:৫৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ জুন ২০২৪
  • / ১৮ Time View

নারী ও পুরুষ অ্যাথলেটদের অংশগ্রহণে বাংলাদেশ পুলিশ অ্যাথলেটিকস ও সাইক্লিং ক্লাব কর্তৃক আয়োজিত “জয় বাংলা ম্যারাথন-২০২৪” অত্যন্ত জাঁকজমকপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৭ই জুন ২০২৪ (শুক্রবার) ভোর ৫ টায় রাজধানীর দৃষ্টিনন্দন হাতিরঝিলে মনোরম পরিবেশে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগীদেরকে ২১.০৯ কিলোমিটার দৌড়াতে হয়।

প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা জনাব সালমান ফজলুর রহমান এমপি এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র জনাব মোঃ আতিকুল ইসলাম। এ সময় পিবিআই প্রধান এবং বাংলাদেশ পুলিশ অ্যাথলেটিকস ও সাইক্লিং ক্লাবের সভাপতি সহ আয়োজক কমিটির ঊর্ধ্বতন পুলিশ অফিসারগণ উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিযোগিতায় অ্যাথলেটগণ ৪টি ক্যাটাগরিতে অংশগ্রহণ করেন। প্রতিযোগিতার ব্যাপ্তিকাল ছিল ৩ ঘন্টা ৪০ মিনিট। ৫০ ঊর্ধ্ব মহিলাদের ক্যাটাগরিতে ১ম স্থান অধিকার করেন নারী অ্যাথলেট ইরি লি কৈকি; তিনি ২ ঘন্টা ২০ মিনিট ০৪ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব আসাদুজ্জামান খান এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে অনুপ্রেরণা দিয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের সম্মানিত ইন্সপেক্টর জেনারেল ও বাংলাদেশ পুলিশ ক্রীড়া পরিষদের সভাপতি জনাব চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বিপিএম (বার), পিপিএম। অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন) জনাব মোঃ কামরুল আহসান বিপিএম (বার), ডিএমপি কমিশনার জনাব হাবিবুর রহমান বিপিএম (বার), পিপিএম (বার), বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপিগণ, ডিআইজিগণসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকতাগণ উপস্থিত ছিলেন।

পুরস্কার প্রাপ্ত সৌভাগ্যবান হলেন-

১৬-৫০ বছর বয়সী পুরুষ ক্যাটাগরিতে:

১ম- আল-আমিন; তিনি ১ ঘন্টা ১৬ মি. ৯১ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

২য়- মোঃ আসিফ বিশ্বাস; তিনি ১ ঘন্টা ১৭ মি. ২৭ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৩য়- মেহেদী হাসান; তিনি ১ ঘন্টা ১৮ মি. ০৯ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৪র্থ- মোঃ সোহানুর রহমান; তিনি ১ ঘন্টা ১৮ মি. ২৬ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৫ম- মোঃ ফরিদ মিয়া; তিনি ১ ঘন্টা ১৮ মি. ২৭ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৬ষ্ঠ- মোঃ এলাহী সরদার; তিনি ১ ঘন্টা ১৮ মি. ৩০ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৭ম- মোঃ ইমরান হাস; তিনি ১ ঘন্টা ১৮ মি. ৪৯ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৮ম- মাহাবুর রহমান হৃদয়; তিনি ১ ঘন্টা ২০ মি. ০২ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৯ম- মোঃ নাজিমুল হক; তিনি ১ ঘন্টা ২০ মি. ৫০ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

১০ম- সোহেল রানা; তিনি ১ ঘন্টা ২৫ মি. ১০ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

১৬-৫০ বছর বয়সী নারী ক্যাটাগরিতে:

১ম- পাপিয়া খাতুন; তিনি ১ ঘন্টা ৪২ মি. ৩৮ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

২য়- লাপিয়া খাতুন; তিনি ১ ঘন্টা ৪২ মি. ৩৯ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৩য়- প্রীতি আক্তার; তিনি ১ ঘন্টা ৪৬ মি. ২০ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৪র্থ – রিংকি বিশ্বাস; তিনি ১ ঘন্টা ৪৭ মি. ০৬ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৫ম- মোসাঃ প্রিয়া; তিনি ১ ঘন্টা ৫০ মি. ০৬ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৬ষ্ঠ- মোসাঃ সামিয়া; তিনি ১ ঘন্টা ৫৩ মি. ৩৬ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৭ম- অনন্যা বিশ্বাস; তিনি ১ ঘন্টা ৫৪ মি. ৫১ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৮ম- স্মৃতি আক্তার; তিনি ১ ঘন্টা ৫৭ মি. ৫২ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৯ম- মুন্নি কর্মকার; তিনি ১ ঘন্টা ৫৮ মি. ৪৩ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

১০ম- রিয়া আক্তার; তিনি ২ ঘন্টা ০১ মি. ১২ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৫১ বছর ঊর্ধ্বে পুরুষ ক্যাটাগরিতে:

১ম- জসিম উদ্দিন আহাম্মেদ; তিনি ১ ঘন্টা ২৯ মি. ৫৯ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

২য়- মোঃ ওহাব খান; তিনি ১ ঘন্টা ৪৫ মি. ০০ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৩য়- আমিনুর রহমান; তিনি ১ ঘন্টা ৪৪ মি. ২৩ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৪র্থ- বাবর উদ্দিন; তিনি ১ ঘন্টা ৫৬ মি. ৪৯ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৫ম- মোঃ পেরুল ইসলাম; তিনি ১ ঘন্টা ৫৯ মি. ৪০ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৫১ বছর ঊর্ধ্বে নারী ক্যাটাগরিতে:

১ম- ইরি লি কৈকি; তিনি ২ ঘন্টা ২০ মি. ০৪ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

২য়- শাহ্ তামান্না সিদ্দিকী; তিনি ২ ঘন্টা ৪০ মি. ৫৪ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৩য়- আয়েশা মুন্নি; তিনি ২ ঘন্টা ৫৬ মি. ২৯ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৪র্থ- ডাঃ শাহ্ ফাহমিদা সিদ্দিকী ; তিনি ৩ ঘন্টা ০৩ মি. ৩৪ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৫ম- জেসমিন আক্তার; তিনি ৩ ঘন্টা ১২ মি. ৪৭ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব আসাদুজ্জামান খান এমপি বলেন, আজকে ম্যারাথনের মাধ্যমে পুলিশ দেখিয়ে দিলেন যে, পুলিশ সবই পারে। করোনার সময় মা সন্তানকে ফেলে রেখে চলে গিয়েছে। দাফন করতেও আসে নাই। এমন অসহায় অবস্থায় পুলিশ তাদের পাশে ছিল। যেখানেই যা প্রয়োজন পুলিশ জনগণের সহযোগিতা করেছে যা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল। পুলিশ মানুষকে এক প্লাটফরমে এনে স্পোর্টস এর মাধ্যমে একত্রিত করার দক্ষতা দেখিয়ে দিয়েছে। তাদের ধন্যবাদ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ পুলিশের সম্মানিত ইন্সপেক্টর জেনারেল ও বাংলাদেশ পুলিশ ক্রীড়া পরিষদের সভাপতি জনাব চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বিপিএম (বার), পিপিএম বলেন, বাংলাদেশ পুলিশ অ্যাথলেটিকস ও সাইক্লিং ক্লাব একটি অসাধারণ ম্যারাথন আয়োজন করেছে। নিঃসন্দেহে এটি অত্যন্ত প্রশংসার দাবীদার। এর মাধ্যমে আগামী প্রজন্ম ৬ দফা দাবীর গুরুত্ব অনুধাবন করতে পারবে। তিনি সফল ম্যারাথন আয়োজনের জন্য পিবিআই প্রধান ও বাংলাদেশ পুলিশ অ্যাথলেটিকস ও সাইক্লিং ক্লাবের সভাপতি জনাব বনজ কুমার মজুমদার, বিপিএম (বার), পিপিএম এবং ডিএমপির সিটিটিসি এর প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ও জয় বাংলা ম্যারাথন ২০২৪ প্রতিযোগিতা আয়োজক কমিটির সভাপতি জনাব মোঃ আসাদুজ্জামান বিপিএম (বার) সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান। উল্লেখ্য, জনাব মোহাম্মদ জায়েদুল আলম, বিপিএম, পিপিএম (বার), যুগ্ম পুলিশ কমিশনার (লজিস্টিকস্), ডিএমপি ও সদস্য সচিব, জয় বাংলা ম্যারাথন ২০২৪ প্রতিযোগিতা আয়োজক কমিটি, সাধারণ সম্পাদক ও পুলিশ সুপার, ঢাকা জেলা জনাব মোঃ আসাদুজ্জামান বিপিএম, পিপিএম (বার), সহ এক ঝাঁক মেধাবী পুলিশ অফিসারের অল্প দিনের মেধা ও শ্রমের ফলে জয় বাংলা ম্যারাথন-২০২৪ সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। প্রধান অতিথি এবং বিশেষ অতিথি সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

Please Share This Post in Your Social Media

বাংলাদেশ পুলিশের আয়োজনে জয় বাংলা ম্যারাথন অনুষ্ঠিত

Update Time : ০৫:০৬:৫৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ জুন ২০২৪

নারী ও পুরুষ অ্যাথলেটদের অংশগ্রহণে বাংলাদেশ পুলিশ অ্যাথলেটিকস ও সাইক্লিং ক্লাব কর্তৃক আয়োজিত “জয় বাংলা ম্যারাথন-২০২৪” অত্যন্ত জাঁকজমকপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৭ই জুন ২০২৪ (শুক্রবার) ভোর ৫ টায় রাজধানীর দৃষ্টিনন্দন হাতিরঝিলে মনোরম পরিবেশে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগীদেরকে ২১.০৯ কিলোমিটার দৌড়াতে হয়।

প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা জনাব সালমান ফজলুর রহমান এমপি এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র জনাব মোঃ আতিকুল ইসলাম। এ সময় পিবিআই প্রধান এবং বাংলাদেশ পুলিশ অ্যাথলেটিকস ও সাইক্লিং ক্লাবের সভাপতি সহ আয়োজক কমিটির ঊর্ধ্বতন পুলিশ অফিসারগণ উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিযোগিতায় অ্যাথলেটগণ ৪টি ক্যাটাগরিতে অংশগ্রহণ করেন। প্রতিযোগিতার ব্যাপ্তিকাল ছিল ৩ ঘন্টা ৪০ মিনিট। ৫০ ঊর্ধ্ব মহিলাদের ক্যাটাগরিতে ১ম স্থান অধিকার করেন নারী অ্যাথলেট ইরি লি কৈকি; তিনি ২ ঘন্টা ২০ মিনিট ০৪ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব আসাদুজ্জামান খান এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে অনুপ্রেরণা দিয়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের সম্মানিত ইন্সপেক্টর জেনারেল ও বাংলাদেশ পুলিশ ক্রীড়া পরিষদের সভাপতি জনাব চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বিপিএম (বার), পিপিএম। অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন) জনাব মোঃ কামরুল আহসান বিপিএম (বার), ডিএমপি কমিশনার জনাব হাবিবুর রহমান বিপিএম (বার), পিপিএম (বার), বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপিগণ, ডিআইজিগণসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকতাগণ উপস্থিত ছিলেন।

পুরস্কার প্রাপ্ত সৌভাগ্যবান হলেন-

১৬-৫০ বছর বয়সী পুরুষ ক্যাটাগরিতে:

১ম- আল-আমিন; তিনি ১ ঘন্টা ১৬ মি. ৯১ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

২য়- মোঃ আসিফ বিশ্বাস; তিনি ১ ঘন্টা ১৭ মি. ২৭ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৩য়- মেহেদী হাসান; তিনি ১ ঘন্টা ১৮ মি. ০৯ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৪র্থ- মোঃ সোহানুর রহমান; তিনি ১ ঘন্টা ১৮ মি. ২৬ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৫ম- মোঃ ফরিদ মিয়া; তিনি ১ ঘন্টা ১৮ মি. ২৭ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৬ষ্ঠ- মোঃ এলাহী সরদার; তিনি ১ ঘন্টা ১৮ মি. ৩০ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৭ম- মোঃ ইমরান হাস; তিনি ১ ঘন্টা ১৮ মি. ৪৯ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৮ম- মাহাবুর রহমান হৃদয়; তিনি ১ ঘন্টা ২০ মি. ০২ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৯ম- মোঃ নাজিমুল হক; তিনি ১ ঘন্টা ২০ মি. ৫০ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

১০ম- সোহেল রানা; তিনি ১ ঘন্টা ২৫ মি. ১০ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

১৬-৫০ বছর বয়সী নারী ক্যাটাগরিতে:

১ম- পাপিয়া খাতুন; তিনি ১ ঘন্টা ৪২ মি. ৩৮ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

২য়- লাপিয়া খাতুন; তিনি ১ ঘন্টা ৪২ মি. ৩৯ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৩য়- প্রীতি আক্তার; তিনি ১ ঘন্টা ৪৬ মি. ২০ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৪র্থ – রিংকি বিশ্বাস; তিনি ১ ঘন্টা ৪৭ মি. ০৬ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৫ম- মোসাঃ প্রিয়া; তিনি ১ ঘন্টা ৫০ মি. ০৬ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৬ষ্ঠ- মোসাঃ সামিয়া; তিনি ১ ঘন্টা ৫৩ মি. ৩৬ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৭ম- অনন্যা বিশ্বাস; তিনি ১ ঘন্টা ৫৪ মি. ৫১ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৮ম- স্মৃতি আক্তার; তিনি ১ ঘন্টা ৫৭ মি. ৫২ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৯ম- মুন্নি কর্মকার; তিনি ১ ঘন্টা ৫৮ মি. ৪৩ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

১০ম- রিয়া আক্তার; তিনি ২ ঘন্টা ০১ মি. ১২ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৫১ বছর ঊর্ধ্বে পুরুষ ক্যাটাগরিতে:

১ম- জসিম উদ্দিন আহাম্মেদ; তিনি ১ ঘন্টা ২৯ মি. ৫৯ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

২য়- মোঃ ওহাব খান; তিনি ১ ঘন্টা ৪৫ মি. ০০ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৩য়- আমিনুর রহমান; তিনি ১ ঘন্টা ৪৪ মি. ২৩ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৪র্থ- বাবর উদ্দিন; তিনি ১ ঘন্টা ৫৬ মি. ৪৯ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৫ম- মোঃ পেরুল ইসলাম; তিনি ১ ঘন্টা ৫৯ মি. ৪০ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৫১ বছর ঊর্ধ্বে নারী ক্যাটাগরিতে:

১ম- ইরি লি কৈকি; তিনি ২ ঘন্টা ২০ মি. ০৪ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

২য়- শাহ্ তামান্না সিদ্দিকী; তিনি ২ ঘন্টা ৪০ মি. ৫৪ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৩য়- আয়েশা মুন্নি; তিনি ২ ঘন্টা ৫৬ মি. ২৯ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৪র্থ- ডাঃ শাহ্ ফাহমিদা সিদ্দিকী ; তিনি ৩ ঘন্টা ০৩ মি. ৩৪ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

৫ম- জেসমিন আক্তার; তিনি ৩ ঘন্টা ১২ মি. ৪৭ সেকেন্ড সময়ে ফিনিসিং লাইন অতিক্রম করেছেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব আসাদুজ্জামান খান এমপি বলেন, আজকে ম্যারাথনের মাধ্যমে পুলিশ দেখিয়ে দিলেন যে, পুলিশ সবই পারে। করোনার সময় মা সন্তানকে ফেলে রেখে চলে গিয়েছে। দাফন করতেও আসে নাই। এমন অসহায় অবস্থায় পুলিশ তাদের পাশে ছিল। যেখানেই যা প্রয়োজন পুলিশ জনগণের সহযোগিতা করেছে যা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল। পুলিশ মানুষকে এক প্লাটফরমে এনে স্পোর্টস এর মাধ্যমে একত্রিত করার দক্ষতা দেখিয়ে দিয়েছে। তাদের ধন্যবাদ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ পুলিশের সম্মানিত ইন্সপেক্টর জেনারেল ও বাংলাদেশ পুলিশ ক্রীড়া পরিষদের সভাপতি জনাব চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বিপিএম (বার), পিপিএম বলেন, বাংলাদেশ পুলিশ অ্যাথলেটিকস ও সাইক্লিং ক্লাব একটি অসাধারণ ম্যারাথন আয়োজন করেছে। নিঃসন্দেহে এটি অত্যন্ত প্রশংসার দাবীদার। এর মাধ্যমে আগামী প্রজন্ম ৬ দফা দাবীর গুরুত্ব অনুধাবন করতে পারবে। তিনি সফল ম্যারাথন আয়োজনের জন্য পিবিআই প্রধান ও বাংলাদেশ পুলিশ অ্যাথলেটিকস ও সাইক্লিং ক্লাবের সভাপতি জনাব বনজ কুমার মজুমদার, বিপিএম (বার), পিপিএম এবং ডিএমপির সিটিটিসি এর প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ও জয় বাংলা ম্যারাথন ২০২৪ প্রতিযোগিতা আয়োজক কমিটির সভাপতি জনাব মোঃ আসাদুজ্জামান বিপিএম (বার) সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান। উল্লেখ্য, জনাব মোহাম্মদ জায়েদুল আলম, বিপিএম, পিপিএম (বার), যুগ্ম পুলিশ কমিশনার (লজিস্টিকস্), ডিএমপি ও সদস্য সচিব, জয় বাংলা ম্যারাথন ২০২৪ প্রতিযোগিতা আয়োজক কমিটি, সাধারণ সম্পাদক ও পুলিশ সুপার, ঢাকা জেলা জনাব মোঃ আসাদুজ্জামান বিপিএম, পিপিএম (বার), সহ এক ঝাঁক মেধাবী পুলিশ অফিসারের অল্প দিনের মেধা ও শ্রমের ফলে জয় বাংলা ম্যারাথন-২০২৪ সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। প্রধান অতিথি এবং বিশেষ অতিথি সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।