ঢাকা ০২:৪৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
রমেশ চন্দ্র সেন এমপি

বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশে পরিনত করতে প্রধানমন্ত্রী নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন

মো: মেহেদী হাসান, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি
  • Update Time : ০৯:৪২:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ মে ২০২৩
  • / ৯৪ Time View

বাংলাদেশ আ’লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও ঠাকুরগাঁও-১ আসনের সংসদ সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন বলেছেন, বাংলাদেশকে উন্নয়ণশীল দেশে পরিনত করতে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী এদেশটাকে উন্নত করার জন্য বিভিন্ন দেশে যাচ্ছেন। যে সকল জিনিস আমাদের দেশে নেই সে সকল জিনিস নিয়ে আসছেন। মানুষের জীবন মান উন্নয়নে নিজের সর্বোচ্চ দিয়ে কাজ করে চলেছেন।

তিনি বৃহস্পতিবার বিকেলে সদর উপজেলা পরিষদ হলরুমে ২৩-২৪ অর্থবছরের বাজেট অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।

তিনি বলেন, দেশকে উন্নত করতে হলে দেশের মর্যাদা রাখতে হবে। দেশে যারা কাজ করছে তাদের সহযোগিতা করতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু কামনা করবেন এবং যে সমস্ত কাজ এখনও হয়নি সেগুলো করার চেষ্টা করবো। দিবা রাত্রি চেষ্টা করছি দেশের জন্য। এদেশের উন্নয়নের জন্য সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। আমাদের কাজ হলো মানুষের সেবা করা। কেউ যাতে করে কারও ক্ষতি না করে সেদিকে লক্ষ্য রাখা। আগামী জানুয়ারিতে হয়তো জাতীয় নির্বাচন হবে। এবারের নির্বাচন অত্যন্ত পরিচ্ছন্ন হবে। যাতে কেউ কোন সমস্যা সৃষ্টি করতে পারবে না মনে হয়। ঠাকুরগাঁওয়ে আশাতীত উন্নয়ন হয়েছে। ১শ বেড থেকে ২৫০ শর্যায় উন্নীত করা হয়েছে। আমাদের উপজেলা অনেক পুরাতন উপজেলা। আমাদের এ অঞ্চলের মানুষ অত্যন্ত সৎ, সচেতন এবং ঠান্ডা মাথায় ভোট দেন। স্কুল-কলেজের ভবন নির্মান করা হয়েছে। হাসপাতালে প্রতিদিন ৭শ থেকে ৮শ মানুষ চিকিৎসা সেবা নিচ্ছেন।

সদর উপজেলা যে কাজগুলি বর্তমান সরকার করেছে সেটা অত্যন্ত দেখার মত। আমাদের সদর উপজেলা হয়েছে আলোকিত ঠাকুরগাঁও। প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ সরকার দিয়েছে। প্রতি ঘরে ঘরে নলকূপ দেওয়া হচ্ছে। আমাদের কাজই হচ্ছে মানুষকে দেওয়া। আমরা নেইনা। আমরা শুধু দেই। সরকারী বরাদ্দ সুষ্ঠভাবে বন্টন করার চেষ্টা করি।

তিনি আরও বলেন, কাজ করতে গেলে ভুল-ত্রুটি হতে পারে। মানুষের কল্যানে করা করতে হবে। সর্বকালের সর্ব শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে আমরা সকলে কাজ করছি। দীর্ঘ ২০ বছর ধরে যেভাবে আমরা উৎপাদন বাড়িয়েছি, ৫ থেকে ৬ গুন বাড়িয়েছি। কোটি কোটি মেট্রিক টন ধান উৎপাদন হয়েছে। ধানের দাম পাচ্ছি, ভুট্টার দাম পাচ্ছি, এটাই আমাদের গর্ব। যারা চাকুরীজীবী তাদের হয়তো কিছুটা কষ্ট রয়েছে। সরকার প্রতৌকটি ক্ষেত্রে উন্নয়ন করেছে। পাটের আশ তৈরী করতে হবে। পাটের কাপড় তৈরী করা হচ্ছে। আমাদের কাপড়ের অভাব নেই। যেগুলো বিদেশ থেকে আনতে হয় সেগুলোর ব্যাপারে আমরা নিজেরা কিছুটা সচেতন হলে সমস্যা অনেকটা সমাধান হবে।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. অরুনাংশু দত্ত টিটোর সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন প্রধান অতিথি বাংলাদেশ আ’লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও ঠাকুরগাঁও-১ আসনের সংসদ সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন, বিশেষ অতিথি সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু তাহের মো: সামসুজ্জামান, জেলা আ’লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম স্বপন, ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাব সভাপতি মনসুর আলী প্রমুখ।

বাজেট অধিবেশনে সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যানসহ স্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।

বাজেট উপস্থাপন করেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তাহের মো: সামসুজ্জামান। এ সময় ২৩-২৪ অর্থ বছরের জন্য ৩ কোটি ৯৯ লাখ ৯৮ হাজার ৫৫০ টাকা প্রাপ্ত আয় ও ব্যয় ধরে নতুন বাজেট ঘোষনা করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

রমেশ চন্দ্র সেন এমপি

বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশে পরিনত করতে প্রধানমন্ত্রী নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন

Update Time : ০৯:৪২:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ মে ২০২৩

বাংলাদেশ আ’লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও ঠাকুরগাঁও-১ আসনের সংসদ সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন বলেছেন, বাংলাদেশকে উন্নয়ণশীল দেশে পরিনত করতে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী এদেশটাকে উন্নত করার জন্য বিভিন্ন দেশে যাচ্ছেন। যে সকল জিনিস আমাদের দেশে নেই সে সকল জিনিস নিয়ে আসছেন। মানুষের জীবন মান উন্নয়নে নিজের সর্বোচ্চ দিয়ে কাজ করে চলেছেন।

তিনি বৃহস্পতিবার বিকেলে সদর উপজেলা পরিষদ হলরুমে ২৩-২৪ অর্থবছরের বাজেট অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।

তিনি বলেন, দেশকে উন্নত করতে হলে দেশের মর্যাদা রাখতে হবে। দেশে যারা কাজ করছে তাদের সহযোগিতা করতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু কামনা করবেন এবং যে সমস্ত কাজ এখনও হয়নি সেগুলো করার চেষ্টা করবো। দিবা রাত্রি চেষ্টা করছি দেশের জন্য। এদেশের উন্নয়নের জন্য সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। আমাদের কাজ হলো মানুষের সেবা করা। কেউ যাতে করে কারও ক্ষতি না করে সেদিকে লক্ষ্য রাখা। আগামী জানুয়ারিতে হয়তো জাতীয় নির্বাচন হবে। এবারের নির্বাচন অত্যন্ত পরিচ্ছন্ন হবে। যাতে কেউ কোন সমস্যা সৃষ্টি করতে পারবে না মনে হয়। ঠাকুরগাঁওয়ে আশাতীত উন্নয়ন হয়েছে। ১শ বেড থেকে ২৫০ শর্যায় উন্নীত করা হয়েছে। আমাদের উপজেলা অনেক পুরাতন উপজেলা। আমাদের এ অঞ্চলের মানুষ অত্যন্ত সৎ, সচেতন এবং ঠান্ডা মাথায় ভোট দেন। স্কুল-কলেজের ভবন নির্মান করা হয়েছে। হাসপাতালে প্রতিদিন ৭শ থেকে ৮শ মানুষ চিকিৎসা সেবা নিচ্ছেন।

সদর উপজেলা যে কাজগুলি বর্তমান সরকার করেছে সেটা অত্যন্ত দেখার মত। আমাদের সদর উপজেলা হয়েছে আলোকিত ঠাকুরগাঁও। প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ সরকার দিয়েছে। প্রতি ঘরে ঘরে নলকূপ দেওয়া হচ্ছে। আমাদের কাজই হচ্ছে মানুষকে দেওয়া। আমরা নেইনা। আমরা শুধু দেই। সরকারী বরাদ্দ সুষ্ঠভাবে বন্টন করার চেষ্টা করি।

তিনি আরও বলেন, কাজ করতে গেলে ভুল-ত্রুটি হতে পারে। মানুষের কল্যানে করা করতে হবে। সর্বকালের সর্ব শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে আমরা সকলে কাজ করছি। দীর্ঘ ২০ বছর ধরে যেভাবে আমরা উৎপাদন বাড়িয়েছি, ৫ থেকে ৬ গুন বাড়িয়েছি। কোটি কোটি মেট্রিক টন ধান উৎপাদন হয়েছে। ধানের দাম পাচ্ছি, ভুট্টার দাম পাচ্ছি, এটাই আমাদের গর্ব। যারা চাকুরীজীবী তাদের হয়তো কিছুটা কষ্ট রয়েছে। সরকার প্রতৌকটি ক্ষেত্রে উন্নয়ন করেছে। পাটের আশ তৈরী করতে হবে। পাটের কাপড় তৈরী করা হচ্ছে। আমাদের কাপড়ের অভাব নেই। যেগুলো বিদেশ থেকে আনতে হয় সেগুলোর ব্যাপারে আমরা নিজেরা কিছুটা সচেতন হলে সমস্যা অনেকটা সমাধান হবে।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. অরুনাংশু দত্ত টিটোর সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন প্রধান অতিথি বাংলাদেশ আ’লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও ঠাকুরগাঁও-১ আসনের সংসদ সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন, বিশেষ অতিথি সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু তাহের মো: সামসুজ্জামান, জেলা আ’লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম স্বপন, ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাব সভাপতি মনসুর আলী প্রমুখ।

বাজেট অধিবেশনে সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যানসহ স্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।

বাজেট উপস্থাপন করেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তাহের মো: সামসুজ্জামান। এ সময় ২৩-২৪ অর্থ বছরের জন্য ৩ কোটি ৯৯ লাখ ৯৮ হাজার ৫৫০ টাকা প্রাপ্ত আয় ও ব্যয় ধরে নতুন বাজেট ঘোষনা করা হয়।