ঢাকা ০৩:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ

প্রেম করে বিয়ে, বিচ্ছেদের পর এক মণ দুধ দিয়ে গোসল!

Reporter Name
  • Update Time : ০৭:৩৬:২৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ মে ২০২৩
  • / ১৭৭ Time View

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে প্রেম করে বিয়ে করেছিলেন সিরাজ শেখ নাম এক যুবক। স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর এক মণ দুধ দিয়ে গোসল করেন তিনি।
শুক্রবার বিকালে উপজেলার বাইখির চৌরাস্তা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সিরাজ ওই গ্রামের মজিবর শেখের ছেলে। তিনি পেশায় একজন সিএনজিচালিত অটোরিকশা মেকানিক।

 

জানা যায়, ১৩ বছর আগে একই গ্রামের আফসার শেখের মেয়ে ইতি বেগমের সাথে প্রেম করে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। তাদের একটি ১১ বছরের পুত্রসন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই পারিবারিক কলহের জেরে দুজনের মধ্যে বনিবনা হচ্ছিল না। দুই বছর আগে স্বামীর অমতে স্ত্রী ইতি বেগম স্থানীয় একটি ফিজিওথেরাপি ক্লিনিকে চাকরি নেয়। এ নিয়ে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়ে স্বামী-স্ত্রী। দ্বন্দ্বের জেরে স্বামীর বাড়ি থেকে বাবার বাড়ি চলে গিয়ে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনদের বিরুদ্ধে যৌতুক, নারী নির্যাতনের অভিযোগ দিয়ে আদালতে একটি মামলা করেন। সম্প্রতি আইনি ঝামেলা থেকে মুক্তি পেয়ে এক মন দুধ দিয়ে গোসল করে আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করেন তিনি।

এ ব্যাপারে সিরাজ শেখ বলেন, ‘আমার স্ত্রীকে ডিভোর্স দিয়ে তাকে ৭০ হাজার টাকা ও তার বাবার কাছে ২ লাখ ৬৫ হাজার পাওনা টাকায় মিমাংসা করা হয়েছে। তবে ডিভোর্স দেওয়া স্ত্রী আমার অনেক টাকা নষ্ট করেছে এবং প্রচণ্ড যন্ত্রণা দিয়েছে। তাই যখন ঝামেলা সৃষ্টি হয়েছে তখই নিয়ত করেছিলাম এ ভেজাল থেকে মুক্তি পেলে ১ মণ গরুর দুধ দিয়ে গোসল করব এবং এ বছরেই ওমরাহ্ হজ পালন করব। তাই দুধ দিয়ে গোসল করেছি।’ তবে এনিয়ে ইতির পরিবার কোনো কথা বলতে রাজি না হওয়ায় তাদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে চতুল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘সিরাজ ও ইতির বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে। মামলা নিষ্পত্তির কারণে সিরাজ দুধ দিয়ে গোসল করেছেন বলে শুনেছি।’

Please Share This Post in Your Social Media

প্রেম করে বিয়ে, বিচ্ছেদের পর এক মণ দুধ দিয়ে গোসল!

Update Time : ০৭:৩৬:২৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ মে ২০২৩

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে প্রেম করে বিয়ে করেছিলেন সিরাজ শেখ নাম এক যুবক। স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর এক মণ দুধ দিয়ে গোসল করেন তিনি।
শুক্রবার বিকালে উপজেলার বাইখির চৌরাস্তা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সিরাজ ওই গ্রামের মজিবর শেখের ছেলে। তিনি পেশায় একজন সিএনজিচালিত অটোরিকশা মেকানিক।

 

জানা যায়, ১৩ বছর আগে একই গ্রামের আফসার শেখের মেয়ে ইতি বেগমের সাথে প্রেম করে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। তাদের একটি ১১ বছরের পুত্রসন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই পারিবারিক কলহের জেরে দুজনের মধ্যে বনিবনা হচ্ছিল না। দুই বছর আগে স্বামীর অমতে স্ত্রী ইতি বেগম স্থানীয় একটি ফিজিওথেরাপি ক্লিনিকে চাকরি নেয়। এ নিয়ে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়ে স্বামী-স্ত্রী। দ্বন্দ্বের জেরে স্বামীর বাড়ি থেকে বাবার বাড়ি চলে গিয়ে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনদের বিরুদ্ধে যৌতুক, নারী নির্যাতনের অভিযোগ দিয়ে আদালতে একটি মামলা করেন। সম্প্রতি আইনি ঝামেলা থেকে মুক্তি পেয়ে এক মন দুধ দিয়ে গোসল করে আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করেন তিনি।

এ ব্যাপারে সিরাজ শেখ বলেন, ‘আমার স্ত্রীকে ডিভোর্স দিয়ে তাকে ৭০ হাজার টাকা ও তার বাবার কাছে ২ লাখ ৬৫ হাজার পাওনা টাকায় মিমাংসা করা হয়েছে। তবে ডিভোর্স দেওয়া স্ত্রী আমার অনেক টাকা নষ্ট করেছে এবং প্রচণ্ড যন্ত্রণা দিয়েছে। তাই যখন ঝামেলা সৃষ্টি হয়েছে তখই নিয়ত করেছিলাম এ ভেজাল থেকে মুক্তি পেলে ১ মণ গরুর দুধ দিয়ে গোসল করব এবং এ বছরেই ওমরাহ্ হজ পালন করব। তাই দুধ দিয়ে গোসল করেছি।’ তবে এনিয়ে ইতির পরিবার কোনো কথা বলতে রাজি না হওয়ায় তাদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে চতুল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘সিরাজ ও ইতির বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে। মামলা নিষ্পত্তির কারণে সিরাজ দুধ দিয়ে গোসল করেছেন বলে শুনেছি।’