ঢাকা ০৩:২২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ন্যান্সির জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার চুরি: স্বামীসহ গৃহকর্মী কারাগারে

Reporter Name
  • Update Time : ১০:৫৬:৪৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ এপ্রিল ২০২৩
  • / ১৯৪ Time View

জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী নাজমুন মুনিরা ন্যান্সির বাসা থেকে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ও অলঙ্কার চুরির মামলায় গৃহকর্মী মোছা. তাহমিনা এবং তার স্বামী শাকিলকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৭ এপ্রিল) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রশিদুল আলম আসামিদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গুলশান থানার উপ-পরিদর্শক ছাদেক মিয়া দুই আসামির পাঁচ দিন করে রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন। আসামিদের পক্ষে অ্যাডভোকেট নাসিম গাজী রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। বাদীপক্ষে গোপাল চন্দ্র সাহা এর বিরোধিতা করেন।

এদিন তদন্ত কর্মকর্তা আদালতে আসেননি। এজন্য আদালত আসামিদের কারাগারে পাঠিয়ে আগামী ২ মে তদন্ত কর্মকর্তার উপস্থিতিতে রিমান্ড শুনানির তারিখ ধার্য করেন।
আদালতে গুলশান থানার সাধারণ নিবন্ধন শাখার কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক আলমগীর হোসেন এসব তথ্য জানিয়েছেন।

তাহমিনা ও রিপা ন্যান্সির বাসায় গৃহপরিচারিকা হিসেবে কাজ করতেন। শাকিল তাহমিনাকেনিতে প্রায়ই ন্যান্সির বাসায় আসতেন। গত ৫ এপ্রিল ন্যান্সির বাসার কাউকে না জানিয়ে চলে যান তারা। এর আগে ২৬ ফেব্রুয়ারি রিপাও বাসার কাউকে কিছু না জানিয়ে চলে যান।

এদিকে গত ১৮ এপ্রিল ন্যান্সি দেখতে পান আলমারিতে তার দুটি স্বর্ণের চেইন, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, ডায়মন্ডের লকেটসহ মূল্যবান অলঙ্কার নেই। এসবের মূল্য ৩ লাখ ২১ হাজার টাকা।
এ ঘটনায় ন্যান্সির ভাই শাহরিয়া আমান সানি তিনজনকে আসামি করে গুলশান থানায় মামলা করেন।

উল্লেখ্য, ‘প্রজাপ্রতি’ সিনেমার জন্য চুরি হওয়া জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারটি পেয়েছিলেন ন্যান্সি।

Please Share This Post in Your Social Media

ন্যান্সির জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার চুরি: স্বামীসহ গৃহকর্মী কারাগারে

Update Time : ১০:৫৬:৪৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ এপ্রিল ২০২৩

জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী নাজমুন মুনিরা ন্যান্সির বাসা থেকে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ও অলঙ্কার চুরির মামলায় গৃহকর্মী মোছা. তাহমিনা এবং তার স্বামী শাকিলকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৭ এপ্রিল) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রশিদুল আলম আসামিদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গুলশান থানার উপ-পরিদর্শক ছাদেক মিয়া দুই আসামির পাঁচ দিন করে রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন। আসামিদের পক্ষে অ্যাডভোকেট নাসিম গাজী রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। বাদীপক্ষে গোপাল চন্দ্র সাহা এর বিরোধিতা করেন।

এদিন তদন্ত কর্মকর্তা আদালতে আসেননি। এজন্য আদালত আসামিদের কারাগারে পাঠিয়ে আগামী ২ মে তদন্ত কর্মকর্তার উপস্থিতিতে রিমান্ড শুনানির তারিখ ধার্য করেন।
আদালতে গুলশান থানার সাধারণ নিবন্ধন শাখার কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক আলমগীর হোসেন এসব তথ্য জানিয়েছেন।

তাহমিনা ও রিপা ন্যান্সির বাসায় গৃহপরিচারিকা হিসেবে কাজ করতেন। শাকিল তাহমিনাকেনিতে প্রায়ই ন্যান্সির বাসায় আসতেন। গত ৫ এপ্রিল ন্যান্সির বাসার কাউকে না জানিয়ে চলে যান তারা। এর আগে ২৬ ফেব্রুয়ারি রিপাও বাসার কাউকে কিছু না জানিয়ে চলে যান।

এদিকে গত ১৮ এপ্রিল ন্যান্সি দেখতে পান আলমারিতে তার দুটি স্বর্ণের চেইন, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, ডায়মন্ডের লকেটসহ মূল্যবান অলঙ্কার নেই। এসবের মূল্য ৩ লাখ ২১ হাজার টাকা।
এ ঘটনায় ন্যান্সির ভাই শাহরিয়া আমান সানি তিনজনকে আসামি করে গুলশান থানায় মামলা করেন।

উল্লেখ্য, ‘প্রজাপ্রতি’ সিনেমার জন্য চুরি হওয়া জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারটি পেয়েছিলেন ন্যান্সি।