ঢাকা ০৩:৩৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
কিশোরগঞ্জে ২০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল প্রেস কাউন্সিল সাংবাদিকতার মান উন্নয়নে কাজ করছেঃ সিলেটে বিচারপতি মো. নিজামুল হক গাইবান্ধায় তৈরি হচ্ছে পরিবেশবান্ধব কংক্রিটের ইট গাইবান্ধায় মামলা প্রত্যাহার ও পুলিশি হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন সিলেট প্রেসক্লাব নির্বাচনে সভাপতি ইকরামুল কবির, সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ঝালকাঠিতে ট্রাকচাপায় ১৪ জন নিহতের ঘটনায় চালক-হেলপার কারাগারে সূর্যের প্রখরতা আর ভ্যাপসা গরমে জনজীবন অতিষ্ঠ বিএনপির লক্ষ্য একাত্তর মুছে সাত চল্লিশে ফিরে যাওয়া: শাহরিয়ার কবির  হানিমুনে যাওয়া হলো না নবদম্পতির, একই পরিবারের ৬ জন নিহত ঝালকাঠিতে ট্রাকচাপায় নিহত ১৪ জনের মরদেহ হস্তান্তর

নিম্নমানের খোয়া ব্যবহারের অভিযোগে রাস্তার কাজ বন্ধ করে দিলেন স্থানীয়রা

কামরুল হাসান টিটু, রংপুর ব্যুরো
  • Update Time : ১১:৩৬:০১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৪ জুন ২০২৩
  • / ১৬৮ Time View

রংপুরের কাউনিয়ায় মীরবাগ থেকে হারাগাছ সড়কের সংস্কার ও সম্প্রসারণ কাজে নিম্নমানের ইটের খোয়া ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে। এ অভিযোগে শনিবার (৩ জুন) দুপুরে নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন স্থানীয় জনগণ। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার খানসামা জামতলা বাজার এলাকায়।

উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয় সূত্র জানা গেছে, আমফান প্রকল্পে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের আওতায় ৮ কোটি ৬৪ লাখ টাকা ব্যয়ে উপজেলার মীরবাগ থেকে হারাগাছ বাংলাবাজার বাধের পার পর্যন্ত ৬ দশমিক ৬৩২ মিটার রাস্তা সম্প্রসারণ ও সংস্কারের দায়িত্ব দেয়া হয় শাম্মী বিল্ডার্স নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটি নির্মাণ কাজে ১ নম্বর ইটের খোয়ার স্থলে ৩ নম্বর ও নিম্নমানের ইটের খোয়া নির্মাণে ব্যবহার করছে। শনিবার খানসামা জামতলা বাজার এলাকায় স্থানীয় লোকজন নিম্নমানের ইটের খোয়া দিয়ে রাস্তার কাজ বন্ধ করে দেয়। বেশি লাভের আশায় ঠিকাদার এমন কাজ করছে বলে জানায় এলাকাবাসী। খবর পেয়ে ছুটে আসেন উপজেলা প্রকৌশলী। পরে তার উপস্থিততে স্থানীয় লোকজন প্রতিবাদের মুখে রাস্তা থেকে নিম্মমানের খোয়া সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন ঠিকাদারের প্রতিনিধিরা।

খানসামা জামতলা বাজার এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, নির্মাণাধীন রাস্তায় ফেলা হয়েছে নিম্নমানের ইটের খোয়া। রাস্তার দুই পাশে বিছানো হয়েছে ইট। যা নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গেছে।

জামতলা গ্রামের বাসিন্দা আলী বলেন, দীর্ঘ একযুগ পর এই রাস্তা সংস্কার করা হচ্ছে। সঠিক ভাবে নির্মাণ কাজ করা হচ্ছে না। নিম্নমানের ইট দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করা হচ্ছে। রাস্তাটি বেশি দিন স্থায়ী হবে না।

একই এলাকার বাসিন্দা সাইফুল ইসলাম বলেন, আমরা এলাকাবাসী সকালে এসে দেখি ঠিকাদারের লোকজন নিম্নমানের ইটের খোয়া ফেলছে। এছাড়া রাস্তার দুই ধারে এজিনে ভালো ও নিম্নমানের ইট বিছানো হয়েছে। এখনেই গাড়ি চলাচলে ইট ভেঙে যায়। ওই এলাকার আরেক বাসিন্দা বলেন, আমরা এলাকাবাসীর নিম্নমানের কাজের বাধা দিলে ঠিকাদারের লোকজন আমাদেরকে দেখে নেওয়ার ভয়-ভীতি দেখায়।

রাস্তায় চলাচলকারী শফিকুল ইসলাম, সুমন বলেন, পুরাতন রাস্তার কার্পেটিং ও রাস্তার খোয়া আলগা করে তা মিশিয়ে রাস্তায় ব্যবহার করা হচ্ছে। পরে সেগুলো রোলার দিয়ে পিষে সমান করা হয়। সেই সাথে কিছু কিছু স্থানে অত্যন্ত নিম্নমানের ডাস্ট খোয়া ব্যবহার করা হয়েছে। সম্প্রসারিত কিছু কিছু স্থানে ঠিক ভাবে খনন এবং রোলার করা হয় নাই। এতে করে রাস্তার ওই সব স্থান দেবে যাবে। ইতোপূর্বে কোনো রাস্তা এভাবে নির্মাণ করতে দেখেননি বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন।

উপজেলা প্রকৌশলী আসাদুজ্জামান জেমি বলেন, নির্মাণ কাজে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করার কোনো সুযোগ নেই। মীরবাগ -হারাগাছ রাস্তায় নিম্নমানের ইটের খোয়া ব্যবহারের করা হচ্ছে সংবাদ পেয়ে শনিবার বিকেলে তিনি নিজেই ঘটনাস্থলে গিয়ে নিম্নমানের ইটের খোয়া ব্যবহারের সত্যতা পান। পরে ঠিকাদারের ম্যানেজারকে নির্মাণ কাজে নিম্নমানের ইট ব্যবহার না করার সতর্ক করা হয়েছে।

এছাড়া রাস্তা থেকে নিম্নমানের ইটের খোয়া এবং এজিনে বিছানা নিম্নমানের ইট সরানোর জন্য বলা হয়েছে। পুরাতন রাস্তার কার্পেটিং তুলে ফেলে দেওয়ার নিয়ম থাকলেও তা ব্যবহারে রাস্তা শক্ত হয় এবং এর ওপরে ৪ ইঞ্চি ইঁটের খোয়া বিছানো হবে। এরপর কার্পেটিং করা হবে। আর ডাস্ট খোয়া গুলো ভাল ফিনিসিং এর জন্য ব্যবহার করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

নিম্নমানের খোয়া ব্যবহারের অভিযোগে রাস্তার কাজ বন্ধ করে দিলেন স্থানীয়রা

Update Time : ১১:৩৬:০১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৪ জুন ২০২৩

রংপুরের কাউনিয়ায় মীরবাগ থেকে হারাগাছ সড়কের সংস্কার ও সম্প্রসারণ কাজে নিম্নমানের ইটের খোয়া ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে। এ অভিযোগে শনিবার (৩ জুন) দুপুরে নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন স্থানীয় জনগণ। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার খানসামা জামতলা বাজার এলাকায়।

উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয় সূত্র জানা গেছে, আমফান প্রকল্পে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের আওতায় ৮ কোটি ৬৪ লাখ টাকা ব্যয়ে উপজেলার মীরবাগ থেকে হারাগাছ বাংলাবাজার বাধের পার পর্যন্ত ৬ দশমিক ৬৩২ মিটার রাস্তা সম্প্রসারণ ও সংস্কারের দায়িত্ব দেয়া হয় শাম্মী বিল্ডার্স নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটি নির্মাণ কাজে ১ নম্বর ইটের খোয়ার স্থলে ৩ নম্বর ও নিম্নমানের ইটের খোয়া নির্মাণে ব্যবহার করছে। শনিবার খানসামা জামতলা বাজার এলাকায় স্থানীয় লোকজন নিম্নমানের ইটের খোয়া দিয়ে রাস্তার কাজ বন্ধ করে দেয়। বেশি লাভের আশায় ঠিকাদার এমন কাজ করছে বলে জানায় এলাকাবাসী। খবর পেয়ে ছুটে আসেন উপজেলা প্রকৌশলী। পরে তার উপস্থিততে স্থানীয় লোকজন প্রতিবাদের মুখে রাস্তা থেকে নিম্মমানের খোয়া সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন ঠিকাদারের প্রতিনিধিরা।

খানসামা জামতলা বাজার এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, নির্মাণাধীন রাস্তায় ফেলা হয়েছে নিম্নমানের ইটের খোয়া। রাস্তার দুই পাশে বিছানো হয়েছে ইট। যা নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গেছে।

জামতলা গ্রামের বাসিন্দা আলী বলেন, দীর্ঘ একযুগ পর এই রাস্তা সংস্কার করা হচ্ছে। সঠিক ভাবে নির্মাণ কাজ করা হচ্ছে না। নিম্নমানের ইট দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করা হচ্ছে। রাস্তাটি বেশি দিন স্থায়ী হবে না।

একই এলাকার বাসিন্দা সাইফুল ইসলাম বলেন, আমরা এলাকাবাসী সকালে এসে দেখি ঠিকাদারের লোকজন নিম্নমানের ইটের খোয়া ফেলছে। এছাড়া রাস্তার দুই ধারে এজিনে ভালো ও নিম্নমানের ইট বিছানো হয়েছে। এখনেই গাড়ি চলাচলে ইট ভেঙে যায়। ওই এলাকার আরেক বাসিন্দা বলেন, আমরা এলাকাবাসীর নিম্নমানের কাজের বাধা দিলে ঠিকাদারের লোকজন আমাদেরকে দেখে নেওয়ার ভয়-ভীতি দেখায়।

রাস্তায় চলাচলকারী শফিকুল ইসলাম, সুমন বলেন, পুরাতন রাস্তার কার্পেটিং ও রাস্তার খোয়া আলগা করে তা মিশিয়ে রাস্তায় ব্যবহার করা হচ্ছে। পরে সেগুলো রোলার দিয়ে পিষে সমান করা হয়। সেই সাথে কিছু কিছু স্থানে অত্যন্ত নিম্নমানের ডাস্ট খোয়া ব্যবহার করা হয়েছে। সম্প্রসারিত কিছু কিছু স্থানে ঠিক ভাবে খনন এবং রোলার করা হয় নাই। এতে করে রাস্তার ওই সব স্থান দেবে যাবে। ইতোপূর্বে কোনো রাস্তা এভাবে নির্মাণ করতে দেখেননি বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন।

উপজেলা প্রকৌশলী আসাদুজ্জামান জেমি বলেন, নির্মাণ কাজে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করার কোনো সুযোগ নেই। মীরবাগ -হারাগাছ রাস্তায় নিম্নমানের ইটের খোয়া ব্যবহারের করা হচ্ছে সংবাদ পেয়ে শনিবার বিকেলে তিনি নিজেই ঘটনাস্থলে গিয়ে নিম্নমানের ইটের খোয়া ব্যবহারের সত্যতা পান। পরে ঠিকাদারের ম্যানেজারকে নির্মাণ কাজে নিম্নমানের ইট ব্যবহার না করার সতর্ক করা হয়েছে।

এছাড়া রাস্তা থেকে নিম্নমানের ইটের খোয়া এবং এজিনে বিছানা নিম্নমানের ইট সরানোর জন্য বলা হয়েছে। পুরাতন রাস্তার কার্পেটিং তুলে ফেলে দেওয়ার নিয়ম থাকলেও তা ব্যবহারে রাস্তা শক্ত হয় এবং এর ওপরে ৪ ইঞ্চি ইঁটের খোয়া বিছানো হবে। এরপর কার্পেটিং করা হবে। আর ডাস্ট খোয়া গুলো ভাল ফিনিসিং এর জন্য ব্যবহার করা হয়েছে।