ঢাকা ০৩:২৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভাগ্নে-ভাগ্নিকে গলা কেটে হত্যার দায়ে মামার মৃত্যুদন্ড থমথমে রংপুর: কোটাবিরোধী শিক্ষার্থীদের দখলে রাজপথ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ মুক্ত ঘোষণা সিলেট শাবি’র হলে হলে আন্দোলকারীদের তল্লাশী, অস্ত্র উদ্ধার,ক্যাম্পাস না ছাড়ার ঘোষণা মোটরসাইকেল নিয়ে দ্বন্দ্বে ঘরে ঢুকে যুবককে গুলি করে হত্যা, গ্রেপ্তার ২ কোটাবিরোধী আন্দোলন: নোয়াখালীতে যুবদল-ছাত্রদলের ৫ নেতা গ্রেপ্তার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় আবাসিক হল বন্ধ ঘোষণা, হল ছাড়তে নারাজ শিক্ষার্থীরা পুলিশের ওপর হামলা ও আগুন লাগার ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে – আর‌পিএম‌পি ক‌মিশনার কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত বেরোবি শিক্ষার্থী আবু সাঈদের দাফন সম্পন্ন আমার ভাই মরলো কেন! প্রশাসন জবাব চাই’ শ্লোগানে উত্তাল গাইবান্ধা

নায়ক থাকতেই বিদায় নিতে চাই: ফেরদৌস

নওরোজ বিনোদন ডেস্ক
  • Update Time : ০৮:৪৪:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ জুন ২০২৩
  • / ১৮০ Time View

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়ক ফেরদৌস আহমেদ। নয় থেকে নব্বই—সবার পছন্দের তালিকায় রয়েছেন তিনি। সম্প্রতি ক্যারিয়ারের ২৫ বছর পূর্ণ হয়েছে তার। তবে অভিনেতা হিসেবেই নিজেকে সীমাবদ্ধ রাখেননি ফেরদৌস। একাধারে প্রযোজক, মডেল, উপস্থাপক ও রিয়েলিটি শো’র বিচারক হয়ে হাজির হয়েছেন পর্দায়। দেশের গণ্ডি পেরিয়ে খ্যাতি পেয়েছেন বিদেশেও।

জীবনের এই পর্যায়ে এসে ‘নায়ক জীবন’ নিয়ে তার পরিকল্পনা জানালেন তিনি। আর কতদিন অভিনেতা ফেরদৌসকে বড় পর্দায় দেখা যাবে? নাকি তিনি রাজনীতিতেই ব্যস্ত হবেন?

ফেরদৌস বলেন, ‘আমি তো সবসময় বলে এসেছি, একটা পর্যায়ে গিয়ে সিনেমা করব না। নিজেকে নায়কের বাইরে দেখতে চাই না। আমাকে বাবা, চাচা, দাদার চরিত্রে দেখা যাবে না।’

কিন্তু কি কারণে এমন সিদ্ধান্ত? রহস্য ভাঙলেন ফেরদৌস নিজেই। ‘এমন নয় যে ওই ধরনের চরিত্র আমি করতে চাই না। বিষয়টি হলো, আপনি যত বড় শিল্পীই হন, নায়ক ছাড়া কাউকে মূল্যায়ন করা হয় না।’

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়ক রাজ রাজ্জাক, সদ্য প্রয়াত আকবর হোসেন ফারুক পাঠান বা চিত্রনায়িকা ববিতাকে বেশ কিছু সিনেমায় পার্শ্ব চরিত্রে দেখা গেছে। ফেরদৌসের মতে, ‘তাদের মূল্যায়ন করা হয়নি। এমনকি তাদের উপযোগী চরিত্রও তৈরি করা হয়নি। তাই আমি নায়ক থাকতেই বিদায় নিতে চাই।’

কিন্তু নায়ক জীবনের ইতি ঘটলে কি নিয়ে ব্যস্ত হবেন ফেরদৌস? তিনি বলেন, ‘তখন আমি রাজনীতিটা সিরিয়াসলি করতে চাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে ভালোবাসেন। তিনি যদি কোনো দায়িত্ব দেন সেটি আমি মন দিয়ে পালন করব।’

আর যদি রাজনীতিবিদ হিসেবে সফল না হন? ফেরদৌসের সপ্রতিভ উত্তর, ‘কিছু একটা করতে হবে বলে রাজনীতি করব, তেমন কোনও কথা নেই। যদি রাজনীতিতে সফল না হই, তবে অন্য কিছু করব। আর সেটি হবে জনকল্যাণমূলক কিছু।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী ফেরদৌস। র‌্যাম্প মডেল হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু হয় তার। অচিরেই এসে পড়েন সিনেমাপাড়ায়। বাসু চট্টোপাধ্যায় পরিচালিত ‘হঠাৎ বৃষ্টি’তে অভিনয় করে খ্যাতির চূড়ায় উঠেন ফেরদৌস। সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারে পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন।

তার উল্লেখযোগ্য সিনেমাগুলো হলো- ‘হঠাৎ বৃষ্টি’ ‘চুপি চুপি’, ‘ব্যাচেলর’, ‘আমার আছে জল’, ‘দুই নয়নের আলো’, ‘সন্তান যখন শত্রু’, ‘গেরিলা’, ‘বৃহন্নলা’, ‘চন্দ্রকথা’, ‘রাক্ষুসী’ ইত্যাদি।

Please Share This Post in Your Social Media

নায়ক থাকতেই বিদায় নিতে চাই: ফেরদৌস

নওরোজ বিনোদন ডেস্ক
Update Time : ০৮:৪৪:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ জুন ২০২৩

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়ক ফেরদৌস আহমেদ। নয় থেকে নব্বই—সবার পছন্দের তালিকায় রয়েছেন তিনি। সম্প্রতি ক্যারিয়ারের ২৫ বছর পূর্ণ হয়েছে তার। তবে অভিনেতা হিসেবেই নিজেকে সীমাবদ্ধ রাখেননি ফেরদৌস। একাধারে প্রযোজক, মডেল, উপস্থাপক ও রিয়েলিটি শো’র বিচারক হয়ে হাজির হয়েছেন পর্দায়। দেশের গণ্ডি পেরিয়ে খ্যাতি পেয়েছেন বিদেশেও।

জীবনের এই পর্যায়ে এসে ‘নায়ক জীবন’ নিয়ে তার পরিকল্পনা জানালেন তিনি। আর কতদিন অভিনেতা ফেরদৌসকে বড় পর্দায় দেখা যাবে? নাকি তিনি রাজনীতিতেই ব্যস্ত হবেন?

ফেরদৌস বলেন, ‘আমি তো সবসময় বলে এসেছি, একটা পর্যায়ে গিয়ে সিনেমা করব না। নিজেকে নায়কের বাইরে দেখতে চাই না। আমাকে বাবা, চাচা, দাদার চরিত্রে দেখা যাবে না।’

কিন্তু কি কারণে এমন সিদ্ধান্ত? রহস্য ভাঙলেন ফেরদৌস নিজেই। ‘এমন নয় যে ওই ধরনের চরিত্র আমি করতে চাই না। বিষয়টি হলো, আপনি যত বড় শিল্পীই হন, নায়ক ছাড়া কাউকে মূল্যায়ন করা হয় না।’

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়ক রাজ রাজ্জাক, সদ্য প্রয়াত আকবর হোসেন ফারুক পাঠান বা চিত্রনায়িকা ববিতাকে বেশ কিছু সিনেমায় পার্শ্ব চরিত্রে দেখা গেছে। ফেরদৌসের মতে, ‘তাদের মূল্যায়ন করা হয়নি। এমনকি তাদের উপযোগী চরিত্রও তৈরি করা হয়নি। তাই আমি নায়ক থাকতেই বিদায় নিতে চাই।’

কিন্তু নায়ক জীবনের ইতি ঘটলে কি নিয়ে ব্যস্ত হবেন ফেরদৌস? তিনি বলেন, ‘তখন আমি রাজনীতিটা সিরিয়াসলি করতে চাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে ভালোবাসেন। তিনি যদি কোনো দায়িত্ব দেন সেটি আমি মন দিয়ে পালন করব।’

আর যদি রাজনীতিবিদ হিসেবে সফল না হন? ফেরদৌসের সপ্রতিভ উত্তর, ‘কিছু একটা করতে হবে বলে রাজনীতি করব, তেমন কোনও কথা নেই। যদি রাজনীতিতে সফল না হই, তবে অন্য কিছু করব। আর সেটি হবে জনকল্যাণমূলক কিছু।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী ফেরদৌস। র‌্যাম্প মডেল হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু হয় তার। অচিরেই এসে পড়েন সিনেমাপাড়ায়। বাসু চট্টোপাধ্যায় পরিচালিত ‘হঠাৎ বৃষ্টি’তে অভিনয় করে খ্যাতির চূড়ায় উঠেন ফেরদৌস। সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারে পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন।

তার উল্লেখযোগ্য সিনেমাগুলো হলো- ‘হঠাৎ বৃষ্টি’ ‘চুপি চুপি’, ‘ব্যাচেলর’, ‘আমার আছে জল’, ‘দুই নয়নের আলো’, ‘সন্তান যখন শত্রু’, ‘গেরিলা’, ‘বৃহন্নলা’, ‘চন্দ্রকথা’, ‘রাক্ষুসী’ ইত্যাদি।