ঢাকা ০৪:৪৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
তৃষ্ণার্ত মানুষের জন্য খাবার পানি সরবরাহ করছেন কাফরুল থানা পুলিশ কিশোরগঞ্জে ২০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল প্রেস কাউন্সিল সাংবাদিকতার মান উন্নয়নে কাজ করছেঃ সিলেটে বিচারপতি মো. নিজামুল হক গাইবান্ধায় তৈরি হচ্ছে পরিবেশবান্ধব কংক্রিটের ইট গাইবান্ধায় মামলা প্রত্যাহার ও পুলিশি হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন সিলেট প্রেসক্লাব নির্বাচনে সভাপতি ইকরামুল কবির, সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ঝালকাঠিতে ট্রাকচাপায় ১৪ জন নিহতের ঘটনায় চালক-হেলপার কারাগারে সূর্যের প্রখরতা আর ভ্যাপসা গরমে জনজীবন অতিষ্ঠ বিএনপির লক্ষ্য একাত্তর মুছে সাত চল্লিশে ফিরে যাওয়া: শাহরিয়ার কবির  হানিমুনে যাওয়া হলো না নবদম্পতির, একই পরিবারের ৬ জন নিহত

নরসিংদীতে মসজিদের পরিবেশ নষ্ট করে জমি দখলের চেষ্টার অভিযোগ

Reporter Name
  • Update Time : ০৬:৫২:৪৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ মে ২০২৩
  • / ২৫৬ Time View

মো.শফিকুল ইসলাম মতি, নরসিংদী প্রতিনিধি: নরসিংদীর মাধবদী আমদিয়া ইউনিয়নের মাথরা গ্রামের ৬০ বছরের পুরনো মাথরা বাইতুন নূর জামে মসজিদের পরিবেশ নষ্ট করা সহ জমি দখলের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে।

এই ঘটনায় শনিবার (২৯ এপ্রিল) মাধবদী থানায় মসজিদের মুসল্লীগণের গণস্বাক্ষরকৃত একটি অভিযোগ দেয়া হয়েছে। অভিযোগেরভিত্তিতে ও সরজমিন গিয়ে জানা যায়, মাথরা জামে মসজিদটি এই গ্রাম তথা আশেপাশের এলাকার প্রথম মসজিদ। মসজিদের সীমানা ঘেঁষে বিশ থেকে পচিশ বছর আগে বাড়ির জমি ক্রয় করেন মর্জিনা ও তার স্বামী হারিছ মিয়া। তাদের ক্রয়কৃত জমির সীমানা ছাড়িয়ে মসজিদটির খালি জমি ভোগ দখলের চেষ্টা করে আসছেন তারা। মসজিদের মুসল্লীরা বিভিন্ন সময়ে মর্জিনার এমন কর্মকান্ডে বাঁধা দিলে শুনতে হয় অকথ্য ভাষায় গালাগালি এমনকি মিথ্যা নারী নির্যাতনের মামলার হুমকিও।

গত ২৬ রমজান মসজিদের ব্যবহৃত টয়লেটের ময়লা-আবর্জনা বের হওয়ার পাইপ ও টয়লেটের চাক ভেঙে দেন মর্জিনা ও তার স্বামী। এতে মসজিদের ইমাম এবং নামাজ পড়তে আসা মুসল্লীরা দুর্গন্ধে সমস্যায় পড়েন।

স্থানীয়দের অভিযোগ, মর্জিনা এই এলাকায় বসবাস শুরু করার পর থেকেই পাড়া-প্রতিবেশীর সাথে ঝগড়ায় লিপ্ত থাকেন। সবসময় তুচ্ছ ঘটনায় ঝগড়া বিবাদ সৃষ্টি করাটা মর্জিনার নেশা। মর্জিনার বেফাঁস গালাগালি ও আচার-আচরণের জন্য প্রতিবেশিরাও তার বাড়িতে যাতায়াত ও কথাবার্তা বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়।

মাথরা বাইতুন নূর জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক যুদ্ধাহত বীরমুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান মিয়া বলেন, মিথ্যা স্বাক্ষী দেওয়া আর মিথ্যা মামলা করা মর্জিনার নেশা। স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বারকে জানিয়েও মর্জিনাকে থামানো যায়নি। মাধবদী থানায় মসজিদের মুসল্লীদের গণস্বাক্ষরকৃত একটি অভিযোগ করা হয়েছে। মর্জিনার কাছে জানতে চাইলে তিনি কোন কথা বলতে রাজি হয়নি।

অভিযোগ বিষয়ে জানতে চাইলে মাধবদী থানার অফিসার ইনর্চাজ(ওসি)রকিবুজ্জামান বলেন এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হইবে।

Tag :

Please Share This Post in Your Social Media

নরসিংদীতে মসজিদের পরিবেশ নষ্ট করে জমি দখলের চেষ্টার অভিযোগ

Update Time : ০৬:৫২:৪৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ মে ২০২৩

মো.শফিকুল ইসলাম মতি, নরসিংদী প্রতিনিধি: নরসিংদীর মাধবদী আমদিয়া ইউনিয়নের মাথরা গ্রামের ৬০ বছরের পুরনো মাথরা বাইতুন নূর জামে মসজিদের পরিবেশ নষ্ট করা সহ জমি দখলের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে।

এই ঘটনায় শনিবার (২৯ এপ্রিল) মাধবদী থানায় মসজিদের মুসল্লীগণের গণস্বাক্ষরকৃত একটি অভিযোগ দেয়া হয়েছে। অভিযোগেরভিত্তিতে ও সরজমিন গিয়ে জানা যায়, মাথরা জামে মসজিদটি এই গ্রাম তথা আশেপাশের এলাকার প্রথম মসজিদ। মসজিদের সীমানা ঘেঁষে বিশ থেকে পচিশ বছর আগে বাড়ির জমি ক্রয় করেন মর্জিনা ও তার স্বামী হারিছ মিয়া। তাদের ক্রয়কৃত জমির সীমানা ছাড়িয়ে মসজিদটির খালি জমি ভোগ দখলের চেষ্টা করে আসছেন তারা। মসজিদের মুসল্লীরা বিভিন্ন সময়ে মর্জিনার এমন কর্মকান্ডে বাঁধা দিলে শুনতে হয় অকথ্য ভাষায় গালাগালি এমনকি মিথ্যা নারী নির্যাতনের মামলার হুমকিও।

গত ২৬ রমজান মসজিদের ব্যবহৃত টয়লেটের ময়লা-আবর্জনা বের হওয়ার পাইপ ও টয়লেটের চাক ভেঙে দেন মর্জিনা ও তার স্বামী। এতে মসজিদের ইমাম এবং নামাজ পড়তে আসা মুসল্লীরা দুর্গন্ধে সমস্যায় পড়েন।

স্থানীয়দের অভিযোগ, মর্জিনা এই এলাকায় বসবাস শুরু করার পর থেকেই পাড়া-প্রতিবেশীর সাথে ঝগড়ায় লিপ্ত থাকেন। সবসময় তুচ্ছ ঘটনায় ঝগড়া বিবাদ সৃষ্টি করাটা মর্জিনার নেশা। মর্জিনার বেফাঁস গালাগালি ও আচার-আচরণের জন্য প্রতিবেশিরাও তার বাড়িতে যাতায়াত ও কথাবার্তা বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়।

মাথরা বাইতুন নূর জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক যুদ্ধাহত বীরমুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান মিয়া বলেন, মিথ্যা স্বাক্ষী দেওয়া আর মিথ্যা মামলা করা মর্জিনার নেশা। স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বারকে জানিয়েও মর্জিনাকে থামানো যায়নি। মাধবদী থানায় মসজিদের মুসল্লীদের গণস্বাক্ষরকৃত একটি অভিযোগ করা হয়েছে। মর্জিনার কাছে জানতে চাইলে তিনি কোন কথা বলতে রাজি হয়নি।

অভিযোগ বিষয়ে জানতে চাইলে মাধবদী থানার অফিসার ইনর্চাজ(ওসি)রকিবুজ্জামান বলেন এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হইবে।