ঢাকা ০২:০৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দেশে নির্বাচনে সহিংসতা কমে গেছে: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার
  • Update Time : ০৫:৪৭:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ মে ২০২৩
  • / ৭৪ Time View

বাংলাদেশে নির্বাচনের সময় সময় সহিংসতা আগের তুলনায় কমে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

বুধবার সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘সরকার চায় সুষ্ঠু গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হোক। বাংলাদেশে নির্বাচনে সহিংসতা আগের চেয়ে অনেক কমে গেছে।’

দেশের চার সিটি করপোরেশনে নির্বাচন চলছে। বৃহস্পতিবার হবে গাজীপুর সিটির নির্বাচন। খুলনা ও বরিশাল সিটিতে ১২ জুন এবং রাজশাহী ও সিলেট সিটিতে ভোট হবে ২১ জুন।

স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, ‘সিটি নির্বাচনের ব্যাপারে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের ন্যুনতম কোন সংযোগ- সংশ্লিষ্টতা নাই। নির্বাচন কমিশন নির্বাচন করবে। যারা নির্বাচিত হবে মন্ত্রণালয় তাদের পূর্ণ সহযোগিতা করবে।’

এ সময় ডেঙ্গু প্রতিরোধে প্রস্তুতির কথা জানিয়ে তাজুল ইসলাম বলেন, ‘ডেঙ্গু মোকাবেলায় বাংলাদেশের সাকসেস রেট অন্য যে কোনো দেশের তুলনায় বেশি। এ বছর ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব হবে তাই জানুয়ারি মাসেই মিটিং করি। সর্বাত্মক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।’

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে, বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ছিল ২০১৯ সালে। আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়ে যায়। ওই বছর ডেঙ্গু শুরু হয়েছিল মে মাসে, মৃত্যু হয়েছিল ৯০ জনের।

কিন্তু আক্রান্তে মৃত্যুর হার অন্যান্য সব বছরকে ছাড়িয়ে যায় ২০২২ সাল। ৬২ হাজার রোগী পাওয়া গেলে গেল বছর মারা গেছেন রেকর্ড ২৮১ জন।

Please Share This Post in Your Social Media

দেশে নির্বাচনে সহিংসতা কমে গেছে: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

Update Time : ০৫:৪৭:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ মে ২০২৩

বাংলাদেশে নির্বাচনের সময় সময় সহিংসতা আগের তুলনায় কমে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

বুধবার সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘সরকার চায় সুষ্ঠু গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হোক। বাংলাদেশে নির্বাচনে সহিংসতা আগের চেয়ে অনেক কমে গেছে।’

দেশের চার সিটি করপোরেশনে নির্বাচন চলছে। বৃহস্পতিবার হবে গাজীপুর সিটির নির্বাচন। খুলনা ও বরিশাল সিটিতে ১২ জুন এবং রাজশাহী ও সিলেট সিটিতে ভোট হবে ২১ জুন।

স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, ‘সিটি নির্বাচনের ব্যাপারে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের ন্যুনতম কোন সংযোগ- সংশ্লিষ্টতা নাই। নির্বাচন কমিশন নির্বাচন করবে। যারা নির্বাচিত হবে মন্ত্রণালয় তাদের পূর্ণ সহযোগিতা করবে।’

এ সময় ডেঙ্গু প্রতিরোধে প্রস্তুতির কথা জানিয়ে তাজুল ইসলাম বলেন, ‘ডেঙ্গু মোকাবেলায় বাংলাদেশের সাকসেস রেট অন্য যে কোনো দেশের তুলনায় বেশি। এ বছর ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব হবে তাই জানুয়ারি মাসেই মিটিং করি। সর্বাত্মক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।’

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে, বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ছিল ২০১৯ সালে। আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়ে যায়। ওই বছর ডেঙ্গু শুরু হয়েছিল মে মাসে, মৃত্যু হয়েছিল ৯০ জনের।

কিন্তু আক্রান্তে মৃত্যুর হার অন্যান্য সব বছরকে ছাড়িয়ে যায় ২০২২ সাল। ৬২ হাজার রোগী পাওয়া গেলে গেল বছর মারা গেছেন রেকর্ড ২৮১ জন।