ঢাকা ০৭:৫১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঢাবিতে শিক্ষা অনুদান পেলেন বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিক্ষার্থীরা

জাননাহ, ঢাবি প্রতিনিধি
  • Update Time : ০২:৪৪:৩৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৬৬ Time View

জাননাহ, ঢাবি প্রতিনিধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগে অধ্যয়নরত ৫২ জন বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিক্ষার্থীকে শিক্ষা অনুদান দেওয়া হয়েছে।

রোববার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের মুজাফফর আহমেদ চৌধুরী মিলনায়তনে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক আয়োজিত অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের হাতে অনুদানের চেক তুলে দেওয়া হয়। সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু এসব চেক হস্তান্তর করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু বলেন, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় দেশের অসহায়, দুস্থ, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় ৫২টির অধিক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। বাংলাদেশ জাতীয় সমাজকল্যাণ পরিষদ থেকে দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা অনুদান দেওয়া হয়। প্রতি বছর এ খাতে সরকারের প্রায় ২ কোটি টাকা খরচ হয়।

প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা অদম্য উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন,তারা নানা প্রতিকূলতা জয় করে দেশের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন। আপনাদের শিক্ষাজীবন সুন্দর হোক, আমি এই শুভ কামনা রাখছি।

তিনি আরও বলেন, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় থেকে আজ যে ৫২ জন শিক্ষার্থীকে অনুদান দেওয়া হলো, এ অর্থ সামান্য হলেও আপনাদের জন্য এটি অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে। ভবিষ্যতে এ খাতে বরাদ্দ আরও বৃদ্ধি করাসহ এমন অনুদান প্রদান অব্যাহত রাখা হবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, তোমরা দেশের সর্বোচ্চ মেধাবী, তাই তোমরা যা-ই শুনো না কেন, সেটা বিশ্বাস না করে যাচাই করবে । তথ্যপ্রযুক্তির এ যুগে সবাইকে তথ্য যাচাই করতে হবে। নয়তো মিস ইনফরমেশন ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

উপাচার্য বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের প্রতিবন্ধী বলি না, আমরা বলি বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিক্ষার্থী। অন্তর্ভুক্তিমূলক সমাজ বিনির্মাণের একটি দিক হলো তোমরা এতজন শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ পাচ্ছ। আমাদের প্রধানমন্ত্রীও তোমাদের বিভিন্নভাবে সহায়তা করে যাচ্ছেন। এ মানবিক উদ্যোগগুলো এসডিজি অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এসবের জন্য প্রধানমন্ত্রী বৈশ্বিকভাবে সম্মাননা-স্বীকৃতি লাভ করছেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রবীর কুমার সরকারের সঞ্চালনায় ও ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ এবং সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. জিয়া রহমান।

Please Share This Post in Your Social Media

ঢাবিতে শিক্ষা অনুদান পেলেন বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিক্ষার্থীরা

Update Time : ০২:৪৪:৩৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩

জাননাহ, ঢাবি প্রতিনিধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগে অধ্যয়নরত ৫২ জন বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিক্ষার্থীকে শিক্ষা অনুদান দেওয়া হয়েছে।

রোববার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের মুজাফফর আহমেদ চৌধুরী মিলনায়তনে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক আয়োজিত অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের হাতে অনুদানের চেক তুলে দেওয়া হয়। সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু এসব চেক হস্তান্তর করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু বলেন, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় দেশের অসহায়, দুস্থ, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় ৫২টির অধিক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। বাংলাদেশ জাতীয় সমাজকল্যাণ পরিষদ থেকে দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা অনুদান দেওয়া হয়। প্রতি বছর এ খাতে সরকারের প্রায় ২ কোটি টাকা খরচ হয়।

প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা অদম্য উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন,তারা নানা প্রতিকূলতা জয় করে দেশের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন। আপনাদের শিক্ষাজীবন সুন্দর হোক, আমি এই শুভ কামনা রাখছি।

তিনি আরও বলেন, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় থেকে আজ যে ৫২ জন শিক্ষার্থীকে অনুদান দেওয়া হলো, এ অর্থ সামান্য হলেও আপনাদের জন্য এটি অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে। ভবিষ্যতে এ খাতে বরাদ্দ আরও বৃদ্ধি করাসহ এমন অনুদান প্রদান অব্যাহত রাখা হবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, তোমরা দেশের সর্বোচ্চ মেধাবী, তাই তোমরা যা-ই শুনো না কেন, সেটা বিশ্বাস না করে যাচাই করবে । তথ্যপ্রযুক্তির এ যুগে সবাইকে তথ্য যাচাই করতে হবে। নয়তো মিস ইনফরমেশন ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

উপাচার্য বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের প্রতিবন্ধী বলি না, আমরা বলি বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিক্ষার্থী। অন্তর্ভুক্তিমূলক সমাজ বিনির্মাণের একটি দিক হলো তোমরা এতজন শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ পাচ্ছ। আমাদের প্রধানমন্ত্রীও তোমাদের বিভিন্নভাবে সহায়তা করে যাচ্ছেন। এ মানবিক উদ্যোগগুলো এসডিজি অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এসবের জন্য প্রধানমন্ত্রী বৈশ্বিকভাবে সম্মাননা-স্বীকৃতি লাভ করছেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রবীর কুমার সরকারের সঞ্চালনায় ও ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ এবং সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. জিয়া রহমান।