ঢাকা ০৪:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঢাকায় আসছে ‘ইভিল ডেড’ সিরিজের নতুন ছবি

Reporter Name
  • Update Time : ০৯:৩৯:৫৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৩
  • / ১৯০ Time View

দর্শকমহলে আলোচিত ‘ইভিল ডেড’ সিরিজের নতুন ছবি ‘ইভিল ডেড রাইজ’ বিশ্বজুড়ে মুক্তি পাচ্ছে ২১ এপ্রিল। নির্মাতা লি ক্রনিন পরিচালিত এই অতিপ্রাকৃত ভৌতিক ছবি একই দিনে স্টার সিনেপ্লেক্সে মুক্তি পাবে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

পরিচালক স্যাম রেইমির হাত ধরে নির্মিত হয়েছে ‘ইভিল ডেড’ সিরিজ। ২০১৯ সালে সিরিজের পঞ্চম ছবি নির্মাণের ঘোষণা দেন স্যাম রেইমি। তবে এবার পরিচালনার ভার পড়ে লি ক্রনিনের ওপর।

‘ইভিল ডেড রাইজ’ সিনেমায় দেখা যাবে, দীর্ঘ যাত্রার পর বড় বোন এলির সঙ্গে দেখা করে বেথ। এলি লস অ্যাঞ্জেলেসের একটি ছোট অ্যাপার্টমেন্টে তিন সন্তানকে নিয়ে অকূলপাথারে পড়েছে। এর মধ্যেই তার ফ্ল্যাটে একটি অদ্ভুত বইয়ের খোঁজ মেলে। এর পর থেকে বিভিন্ন অতিপ্রাকৃত ঘটনা ঘটতে থাকে।
‘ইভিল ডেড’ ট্রিলজির প্রথম সিনেমা ‘দ্য ইভিল ডেড’ মুক্তি পায় ১৯৮১ সালে। ‘দ্য ইভিল ডেড’ সিনেমার কাহিনি মিশিগান স্টেট ইউনিভার্সিটির পাঁচ শিক্ষার্থী—অ্যাশ, তার বান্ধবী লিন্ডা, তার বোন সেরিল, তাদের বন্ধু স্কটি ও স্কটির বান্ধবী শেলিকে নিয়ে।

‘দ্য ইভিল ডেড’ সিনেমার সিকুয়েল ‘ইভিল ডেড টু: ডেড বাই ডন’ মুক্তি পায় ১৯৮৭ সালে। ‘দ্য ইভিল ডেড’ যেখানে শেষ হয়, এই সিনেমা শুরু হয় সেখান থেকেই। ট্রিলজির তৃতীয় পর্ব ‘আর্মি অব ডার্কনেস’ মুক্তি পায় ১৯৯২ সালে।

২০১৩ সালে ইভিল ডেড নামে মুক্তি পেয়েছে আরেকটি সিনেমা, অনেকটা রিমেক বলা যায় একে। ২০১৫ সালে এই ফ্র্যাঞ্চাইজি থেকে নির্মিত হয়েছে ‘অ্যাশ ভার্সেস ইভিল ডেড’ নামের একটি টেলিভিশন সিরিজ। ট্রিলজি থেকে কাহিনি নিয়ে বানানো হয়েছে এই টিভি সিরিজ, যার মূল চরিত্রে আছে অ্যাশ। ২০১৮ সাল পর্যন্ত চলে টিভি সিরিজটি।

Please Share This Post in Your Social Media

ঢাকায় আসছে ‘ইভিল ডেড’ সিরিজের নতুন ছবি

Update Time : ০৯:৩৯:৫৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৩

দর্শকমহলে আলোচিত ‘ইভিল ডেড’ সিরিজের নতুন ছবি ‘ইভিল ডেড রাইজ’ বিশ্বজুড়ে মুক্তি পাচ্ছে ২১ এপ্রিল। নির্মাতা লি ক্রনিন পরিচালিত এই অতিপ্রাকৃত ভৌতিক ছবি একই দিনে স্টার সিনেপ্লেক্সে মুক্তি পাবে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

পরিচালক স্যাম রেইমির হাত ধরে নির্মিত হয়েছে ‘ইভিল ডেড’ সিরিজ। ২০১৯ সালে সিরিজের পঞ্চম ছবি নির্মাণের ঘোষণা দেন স্যাম রেইমি। তবে এবার পরিচালনার ভার পড়ে লি ক্রনিনের ওপর।

‘ইভিল ডেড রাইজ’ সিনেমায় দেখা যাবে, দীর্ঘ যাত্রার পর বড় বোন এলির সঙ্গে দেখা করে বেথ। এলি লস অ্যাঞ্জেলেসের একটি ছোট অ্যাপার্টমেন্টে তিন সন্তানকে নিয়ে অকূলপাথারে পড়েছে। এর মধ্যেই তার ফ্ল্যাটে একটি অদ্ভুত বইয়ের খোঁজ মেলে। এর পর থেকে বিভিন্ন অতিপ্রাকৃত ঘটনা ঘটতে থাকে।
‘ইভিল ডেড’ ট্রিলজির প্রথম সিনেমা ‘দ্য ইভিল ডেড’ মুক্তি পায় ১৯৮১ সালে। ‘দ্য ইভিল ডেড’ সিনেমার কাহিনি মিশিগান স্টেট ইউনিভার্সিটির পাঁচ শিক্ষার্থী—অ্যাশ, তার বান্ধবী লিন্ডা, তার বোন সেরিল, তাদের বন্ধু স্কটি ও স্কটির বান্ধবী শেলিকে নিয়ে।

‘দ্য ইভিল ডেড’ সিনেমার সিকুয়েল ‘ইভিল ডেড টু: ডেড বাই ডন’ মুক্তি পায় ১৯৮৭ সালে। ‘দ্য ইভিল ডেড’ যেখানে শেষ হয়, এই সিনেমা শুরু হয় সেখান থেকেই। ট্রিলজির তৃতীয় পর্ব ‘আর্মি অব ডার্কনেস’ মুক্তি পায় ১৯৯২ সালে।

২০১৩ সালে ইভিল ডেড নামে মুক্তি পেয়েছে আরেকটি সিনেমা, অনেকটা রিমেক বলা যায় একে। ২০১৫ সালে এই ফ্র্যাঞ্চাইজি থেকে নির্মিত হয়েছে ‘অ্যাশ ভার্সেস ইভিল ডেড’ নামের একটি টেলিভিশন সিরিজ। ট্রিলজি থেকে কাহিনি নিয়ে বানানো হয়েছে এই টিভি সিরিজ, যার মূল চরিত্রে আছে অ্যাশ। ২০১৮ সাল পর্যন্ত চলে টিভি সিরিজটি।