ঢাকা ১২:৩০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভাগ্নে-ভাগ্নিকে গলা কেটে হত্যার দায়ে মামার মৃত্যুদন্ড থমথমে রংপুর: কোটাবিরোধী শিক্ষার্থীদের দখলে রাজপথ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ মুক্ত ঘোষণা সিলেট শাবি’র হলে হলে আন্দোলকারীদের তল্লাশী, অস্ত্র উদ্ধার,ক্যাম্পাস না ছাড়ার ঘোষণা মোটরসাইকেল নিয়ে দ্বন্দ্বে ঘরে ঢুকে যুবককে গুলি করে হত্যা, গ্রেপ্তার ২ কোটাবিরোধী আন্দোলন: নোয়াখালীতে যুবদল-ছাত্রদলের ৫ নেতা গ্রেপ্তার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় আবাসিক হল বন্ধ ঘোষণা, হল ছাড়তে নারাজ শিক্ষার্থীরা পুলিশের ওপর হামলা ও আগুন লাগার ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে – আর‌পিএম‌পি ক‌মিশনার কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত বেরোবি শিক্ষার্থী আবু সাঈদের দাফন সম্পন্ন আমার ভাই মরলো কেন! প্রশাসন জবাব চাই’ শ্লোগানে উত্তাল গাইবান্ধা

ঠাকুরগাঁওয়ে ড.সেলিমা আখতারকে সংবর্ধনা

Reporter Name
  • Update Time : ০৯:২৭:০৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩ মে ২০২৩
  • / ৩৩৩ Time View

মো: মেহেদী হাসান, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করায় ইকো পাঠশালা এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ড. সেলিমা আখতারকে আলপনা সাহিত্য সংস্কৃতি সংসদের পক্ষ থেকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। সোমবার রাতে সাধারণ পাঠাগার মাঠে অনুষ্ঠিত ৩৫তম বৈশাখী মেলা মঞ্চে তাকে সম্মাননা স্মারক ও পঙ্ক্তিমালার মাধ্যমে সংবর্ধনা প্রদানকরা হয়।

পঙ্ক্তিমালায় উল্লেখ করা হয়, ড. সেলিমা আখতার বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের শিক্ষাঙ্গনে একজন আলোকিত মুখ।

ঠাকুরগাঁও জেলা শহরে বৃহত্তম শিক্ষায়তন ইকো পাঠশালা এন্ড কলেজ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে তিনি গুণগত ও মানসম্মত শিক্ষাদানের উদাহরণ সৃষ্টি করেছেন। তিনি ১৯৬৮ সালে জামালপুর জেলা শহরে সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।তার পিতা মরহুম অধ্যক্ষ সুজায়াত আলী মিয়া জামালপুর সরকারি আশেক মাহমুদকলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ ছিলেন। তাঁর ভাই-বোনেরাও স্ব স্ব ক্ষেত্রে সুপ্রতিষ্ঠিত।

ড.সেলিমা আখতার জামালপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি,সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজ থেকে এইচএসসি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণও গবেষণা ইনস্টিটিউট থেকে সমাজকল্যাণ বিষয়ে স্নাতক (সম্মান) এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে প্রগতিশীল বলিষ্ঠ নেতৃত্বে ছাত্র-ছাত্রীদের নানা ধরনের সমস্যা মোকাবেলা করেছেন তিনি। ১৯৯৬ সালে ইএসডিও’র নির্বাহী পরিচালক ড. মুহম্মদ শহীদ উজ জামানের সাথে বৈবাহিক বন্ধনে আবদ্ধ হন এবং ইএসডিও’র বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডে সেই থেকে নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছেন। এ অঞ্চলের গুণগত শিক্ষার মানোন্নয়নে তিনি ২০০১সালে প্রতিষ্ঠা করেন ইকো পাঠশালা এবং ২০১১ সালে প্রতিষ্ঠা করেন ইকো কলেজ। ইকো পাঠশালা এন্ড কলেজ ইতোমধ্যে এ অঞ্চলের মানসম্মত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উদাহরণে পরিনত হয়েছে।

ড. সেলিমা আখতার ২০০৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে “পলিটিক্যাল এমপাওয়ারমেন্ট অফ উইমেন” বিষয়ে এম.ফিল এবং ২০২২ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়থেকে “উইমেন ইন এনজিও’স অপরচুনিটিস এন্ড চ্যালেঞ্জেস” শীর্ষক অতিসন্দর্ভেরজন্য পিএইচ.ডি ডিগ্রী অর্জন করেছেন। কর্মজীবনে তিনি ইকো পাঠশালা এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ছাড়াও ইএসডিওসহ নানা ধরনের সামাজিক সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে যুক্ত। তিনি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ৭টি গবেষণাপত্র উপস্থাপন করেছেন। মান সম্মত শিক্ষাদান এবং শিক্ষাক্ষেত্রে কার্যকর ভূমিকা রাখার স্বীকৃতি স্বরুপ ব্রিটিশ কাউন্সিল তাঁকে ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এ্যাওয়ার্ড-২০১৬-১৯ প্রদান করে এবং “লিডিং দ্যা ইন্টিগ্রেশন লার্নিং ইন দ্যা স্কুল” হিসেবে স্বীকৃতি দান করে। এছাড়াও বাংলাদেশ খামার পর্যায়ে প্রথমবারের মতো পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলায় ৮জন প্রান্তিক কিষানিদের মাধ্যমে “টিউলিপ ফুল উৎপাদন”এ তিনি মূল নেতৃত্ব দিয়েছেন। তাছাড়া, লোকায়ন জীবন বৈচিত্র্য জাদুঘরের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতাও তিনি।

ঠাকুরগাঁও জেলায় মুক্তিযুদ্ধের একমাত্র স্মৃতিসৌধ অপরাজেয়-৭১নির্মানেও তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। নারী উন্নয়ন, শিক্ষা, সাহিত্য,সংস্কৃতি, গবেষণা ও সমাজ উন্নয়নে উত্তরের প্রান্তিক জেলা ঠাকুরগাঁওয়ের একটি বিশিষ্ট নাম সেলিমা আখতার। তাঁর নানামুখী কর্মকান্ডের জন্য তিনি বিভিন্নদেশীয় ও আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান থেকে একাধিক সম্মাননা অর্জন করেছেন।

অনুষ্ঠানে ড. সেলিমা আখতারকে “ঠাকুরগাঁওয়ের বেগম রোকেয়া” হিসেবে অভিহিত করা যায় উল্লেখ করে তাকে প্রাণঢালা অভিনন্দন জানানো হয়।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রধান অতিথি জেলা আ’লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুহ: সাদেক কুরাইশী, বিশেষ অতিথি জেলা আ’লীগের সিনিয়র সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহাবুবুর রহমান বাবলু, উন্নয়ন সংস্থা ইএসডিও’র প্রতিষ্ঠাতা নির্বাহী পরিচালক ড. মুহম্মদ শহীদ উজ জামান, পৌর মেয়র আঞ্জুমান আরা বেগম বন্যা, ইকো স্কুল পাঠশালা এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ড. সেলিমা আখতার, আলপনা সাহিত্য সংস্কৃতি সংসদের সভাপতি সফিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মো: আখতারুজ্জামান সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষজন।

Please Share This Post in Your Social Media

ঠাকুরগাঁওয়ে ড.সেলিমা আখতারকে সংবর্ধনা

Reporter Name
Update Time : ০৯:২৭:০৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩ মে ২০২৩

মো: মেহেদী হাসান, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করায় ইকো পাঠশালা এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ড. সেলিমা আখতারকে আলপনা সাহিত্য সংস্কৃতি সংসদের পক্ষ থেকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। সোমবার রাতে সাধারণ পাঠাগার মাঠে অনুষ্ঠিত ৩৫তম বৈশাখী মেলা মঞ্চে তাকে সম্মাননা স্মারক ও পঙ্ক্তিমালার মাধ্যমে সংবর্ধনা প্রদানকরা হয়।

পঙ্ক্তিমালায় উল্লেখ করা হয়, ড. সেলিমা আখতার বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের শিক্ষাঙ্গনে একজন আলোকিত মুখ।

ঠাকুরগাঁও জেলা শহরে বৃহত্তম শিক্ষায়তন ইকো পাঠশালা এন্ড কলেজ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে তিনি গুণগত ও মানসম্মত শিক্ষাদানের উদাহরণ সৃষ্টি করেছেন। তিনি ১৯৬৮ সালে জামালপুর জেলা শহরে সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।তার পিতা মরহুম অধ্যক্ষ সুজায়াত আলী মিয়া জামালপুর সরকারি আশেক মাহমুদকলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ ছিলেন। তাঁর ভাই-বোনেরাও স্ব স্ব ক্ষেত্রে সুপ্রতিষ্ঠিত।

ড.সেলিমা আখতার জামালপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি,সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজ থেকে এইচএসসি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণও গবেষণা ইনস্টিটিউট থেকে সমাজকল্যাণ বিষয়ে স্নাতক (সম্মান) এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে প্রগতিশীল বলিষ্ঠ নেতৃত্বে ছাত্র-ছাত্রীদের নানা ধরনের সমস্যা মোকাবেলা করেছেন তিনি। ১৯৯৬ সালে ইএসডিও’র নির্বাহী পরিচালক ড. মুহম্মদ শহীদ উজ জামানের সাথে বৈবাহিক বন্ধনে আবদ্ধ হন এবং ইএসডিও’র বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডে সেই থেকে নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছেন। এ অঞ্চলের গুণগত শিক্ষার মানোন্নয়নে তিনি ২০০১সালে প্রতিষ্ঠা করেন ইকো পাঠশালা এবং ২০১১ সালে প্রতিষ্ঠা করেন ইকো কলেজ। ইকো পাঠশালা এন্ড কলেজ ইতোমধ্যে এ অঞ্চলের মানসম্মত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উদাহরণে পরিনত হয়েছে।

ড. সেলিমা আখতার ২০০৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে “পলিটিক্যাল এমপাওয়ারমেন্ট অফ উইমেন” বিষয়ে এম.ফিল এবং ২০২২ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়থেকে “উইমেন ইন এনজিও’স অপরচুনিটিস এন্ড চ্যালেঞ্জেস” শীর্ষক অতিসন্দর্ভেরজন্য পিএইচ.ডি ডিগ্রী অর্জন করেছেন। কর্মজীবনে তিনি ইকো পাঠশালা এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ছাড়াও ইএসডিওসহ নানা ধরনের সামাজিক সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে যুক্ত। তিনি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ৭টি গবেষণাপত্র উপস্থাপন করেছেন। মান সম্মত শিক্ষাদান এবং শিক্ষাক্ষেত্রে কার্যকর ভূমিকা রাখার স্বীকৃতি স্বরুপ ব্রিটিশ কাউন্সিল তাঁকে ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এ্যাওয়ার্ড-২০১৬-১৯ প্রদান করে এবং “লিডিং দ্যা ইন্টিগ্রেশন লার্নিং ইন দ্যা স্কুল” হিসেবে স্বীকৃতি দান করে। এছাড়াও বাংলাদেশ খামার পর্যায়ে প্রথমবারের মতো পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলায় ৮জন প্রান্তিক কিষানিদের মাধ্যমে “টিউলিপ ফুল উৎপাদন”এ তিনি মূল নেতৃত্ব দিয়েছেন। তাছাড়া, লোকায়ন জীবন বৈচিত্র্য জাদুঘরের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতাও তিনি।

ঠাকুরগাঁও জেলায় মুক্তিযুদ্ধের একমাত্র স্মৃতিসৌধ অপরাজেয়-৭১নির্মানেও তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। নারী উন্নয়ন, শিক্ষা, সাহিত্য,সংস্কৃতি, গবেষণা ও সমাজ উন্নয়নে উত্তরের প্রান্তিক জেলা ঠাকুরগাঁওয়ের একটি বিশিষ্ট নাম সেলিমা আখতার। তাঁর নানামুখী কর্মকান্ডের জন্য তিনি বিভিন্নদেশীয় ও আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান থেকে একাধিক সম্মাননা অর্জন করেছেন।

অনুষ্ঠানে ড. সেলিমা আখতারকে “ঠাকুরগাঁওয়ের বেগম রোকেয়া” হিসেবে অভিহিত করা যায় উল্লেখ করে তাকে প্রাণঢালা অভিনন্দন জানানো হয়।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রধান অতিথি জেলা আ’লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুহ: সাদেক কুরাইশী, বিশেষ অতিথি জেলা আ’লীগের সিনিয়র সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহাবুবুর রহমান বাবলু, উন্নয়ন সংস্থা ইএসডিও’র প্রতিষ্ঠাতা নির্বাহী পরিচালক ড. মুহম্মদ শহীদ উজ জামান, পৌর মেয়র আঞ্জুমান আরা বেগম বন্যা, ইকো স্কুল পাঠশালা এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ড. সেলিমা আখতার, আলপনা সাহিত্য সংস্কৃতি সংসদের সভাপতি সফিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মো: আখতারুজ্জামান সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষজন।