ঢাকা ১১:৪৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টিকটক নিষিদ্ধ হলে টুইটার সুফল পাবে : ইলন মাস্ক

Reporter Name
  • Update Time : ০৫:৫২:১৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৩
  • / ২১৯ Time View

মাইক্রো ব্লগিং সাইট টুইটারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ইলন মাস্ক জানিয়েছেন, তিনি ভিডিও শেয়ারিং সাইট টিকটক নিষিদ্ধের বিপক্ষে।

সম্প্রতি সান ফ্রান্সিসকোতে টুইটার সদর দপ্তরে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মাস্ক বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি ডাউনলোড হওয়া অ্যাপটি (টিকটক) তিনি ব্যবহার করেন না। কিন্তু তিনি এটি বন্ধ করে দেওয়ার বিপক্ষে।

চীনের মালিকানাধীন থাকায় নিরাপত্তা ইস্যুকে বিবেচনায় নিয়ে টিকটকের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার কথা বিবেচনা করছে যুক্তরাষ্ট্র। কিছু দেশ এর মধ্যেই সরকারি কর্মকর্তাদের মোবাইলে এটি ব্যবহারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে।

এ বিষয়ে মাস্ক বলেন, আমি সাধারণত কোনো জিনিস নিষিদ্ধের বিপক্ষে। যদিও তিনি বলেছেন, নিষেধাজ্ঞা টুইটারকে সুফল দেবে। কারণ আরো বেশি লোক এই প্ল্যাটফর্মে বেশি সময় ব্যয় করবে।

সাক্ষাৎকারে টুইটারে ঘৃণা ছড়ানোর অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেন মাস্ক। এছাড়া তিনি দায়িত্ব নেওয়ার পর অটোমেটেড অ্যাকাউন্ট অপসারণে টুইটারে ভুল তথ্য দেওয়া কমেছে বলে দাবি করেন তিনি। পাশাপাশি টুইটার এখন লাভ-খরচের মাঝামাঝি অবস্থায় রয়েছে বলে জানান মাস্ক।

Please Share This Post in Your Social Media

টিকটক নিষিদ্ধ হলে টুইটার সুফল পাবে : ইলন মাস্ক

Update Time : ০৫:৫২:১৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৩

মাইক্রো ব্লগিং সাইট টুইটারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ইলন মাস্ক জানিয়েছেন, তিনি ভিডিও শেয়ারিং সাইট টিকটক নিষিদ্ধের বিপক্ষে।

সম্প্রতি সান ফ্রান্সিসকোতে টুইটার সদর দপ্তরে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মাস্ক বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি ডাউনলোড হওয়া অ্যাপটি (টিকটক) তিনি ব্যবহার করেন না। কিন্তু তিনি এটি বন্ধ করে দেওয়ার বিপক্ষে।

চীনের মালিকানাধীন থাকায় নিরাপত্তা ইস্যুকে বিবেচনায় নিয়ে টিকটকের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার কথা বিবেচনা করছে যুক্তরাষ্ট্র। কিছু দেশ এর মধ্যেই সরকারি কর্মকর্তাদের মোবাইলে এটি ব্যবহারের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে।

এ বিষয়ে মাস্ক বলেন, আমি সাধারণত কোনো জিনিস নিষিদ্ধের বিপক্ষে। যদিও তিনি বলেছেন, নিষেধাজ্ঞা টুইটারকে সুফল দেবে। কারণ আরো বেশি লোক এই প্ল্যাটফর্মে বেশি সময় ব্যয় করবে।

সাক্ষাৎকারে টুইটারে ঘৃণা ছড়ানোর অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেন মাস্ক। এছাড়া তিনি দায়িত্ব নেওয়ার পর অটোমেটেড অ্যাকাউন্ট অপসারণে টুইটারে ভুল তথ্য দেওয়া কমেছে বলে দাবি করেন তিনি। পাশাপাশি টুইটার এখন লাভ-খরচের মাঝামাঝি অবস্থায় রয়েছে বলে জানান মাস্ক।