ঢাকা ১১:২৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টঙ্গীতে বকেয়া বেতন পরিশোধ না করে কারখানায় তালা॥ শ্রমিকদের বিক্ষোভ

জাহাঙ্গীর আকন্দ
  • Update Time : ০৭:২৪:১৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ জুন ২০২৩
  • / ৬৯ Time View

টঙ্গীতে বকেয়া বেতন পরিশোধ না করে কারখানায় তালা দেয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছেন একটি সোয়েটার কারখানার শ্রমিকেরা।

বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে টঙ্গীর সাতাইশ বাগানবাড়ি এলাকার প্রিন্স জ্যাকার্ড সোয়েটার লিমিটেড নামের কারখানাটিতে এ ঘটনা ঘটে। পরে শ্রমিকরা একত্রিত হয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করতে গেলে পুলিশ বাধা দেয়। পরে শ্রমিকরা কারখানার পাশে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে।

কারখানার শ্রমিকরা জানায়, এই কারখানায় ৭৫০ জন শ্রমিক কাজ করেন। গত এপ্রিল মাসের ৫০জন শ্রমিকের ৫০শতাংশ বেতন বকেয়া রাখেন কারখানার কর্তৃপক্ষ।

এছাড়াও গত মে মাসের বেতনও বকেয়া রাখেন তাঁরা। মঙ্গলবার সকালে শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধের কথা থাকলেও তা করা হয়নি। ওই দিন শ্রমিকরা দিনভর বেতন-ভাতার জন্য অপেক্ষা করে বিকেলের দিকে বিক্ষোভ করে চলে যান।

শ্রমিকরা আরও জানান, সকালে শ্রমিকরা কারখানায় গিয়ে দেখতে পায় গেট তালাবদ্ধ। পরে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা কারখানার সামনে অবস্থান এবং পরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধের উদ্দেশ্যে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে বাগানবাড়ি এলাকা থেকে বের হন। এ সময় পুলিশ শ্রমিকদের মহাসড়কে উঠতে বাধা দেয়।
এ বিষয়ে কারখানার মালিক মো. সাইফুদ্দিন বলেন, বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করতে শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে।

গাজীপুর শিল্প পুলিশের পরিদর্শক (টঙ্গী জোন) মো. ওসমান গনি বলেন, বেতনের দাবিতে শ্রমিকরা বিক্ষোভ শুরু করেন। পরে গাজীপুরা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় গিয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবস্থান নিতে চাইলে বাধা দেয় পুলিশ। এতে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকেরা পুলিশের ওপর ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ দুই রাউন্ড সাউন্ড গ্রেনেড ছুড়ে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। পরে শ্রমিকেরা কারখানাটির দক্ষিণ পাশে বালুর মাঠে অবস্থান নেন।

Please Share This Post in Your Social Media

টঙ্গীতে বকেয়া বেতন পরিশোধ না করে কারখানায় তালা॥ শ্রমিকদের বিক্ষোভ

Update Time : ০৭:২৪:১৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ জুন ২০২৩

টঙ্গীতে বকেয়া বেতন পরিশোধ না করে কারখানায় তালা দেয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছেন একটি সোয়েটার কারখানার শ্রমিকেরা।

বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে টঙ্গীর সাতাইশ বাগানবাড়ি এলাকার প্রিন্স জ্যাকার্ড সোয়েটার লিমিটেড নামের কারখানাটিতে এ ঘটনা ঘটে। পরে শ্রমিকরা একত্রিত হয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করতে গেলে পুলিশ বাধা দেয়। পরে শ্রমিকরা কারখানার পাশে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে।

কারখানার শ্রমিকরা জানায়, এই কারখানায় ৭৫০ জন শ্রমিক কাজ করেন। গত এপ্রিল মাসের ৫০জন শ্রমিকের ৫০শতাংশ বেতন বকেয়া রাখেন কারখানার কর্তৃপক্ষ।

এছাড়াও গত মে মাসের বেতনও বকেয়া রাখেন তাঁরা। মঙ্গলবার সকালে শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধের কথা থাকলেও তা করা হয়নি। ওই দিন শ্রমিকরা দিনভর বেতন-ভাতার জন্য অপেক্ষা করে বিকেলের দিকে বিক্ষোভ করে চলে যান।

শ্রমিকরা আরও জানান, সকালে শ্রমিকরা কারখানায় গিয়ে দেখতে পায় গেট তালাবদ্ধ। পরে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা কারখানার সামনে অবস্থান এবং পরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধের উদ্দেশ্যে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে বাগানবাড়ি এলাকা থেকে বের হন। এ সময় পুলিশ শ্রমিকদের মহাসড়কে উঠতে বাধা দেয়।
এ বিষয়ে কারখানার মালিক মো. সাইফুদ্দিন বলেন, বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করতে শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে।

গাজীপুর শিল্প পুলিশের পরিদর্শক (টঙ্গী জোন) মো. ওসমান গনি বলেন, বেতনের দাবিতে শ্রমিকরা বিক্ষোভ শুরু করেন। পরে গাজীপুরা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় গিয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবস্থান নিতে চাইলে বাধা দেয় পুলিশ। এতে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকেরা পুলিশের ওপর ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ দুই রাউন্ড সাউন্ড গ্রেনেড ছুড়ে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। পরে শ্রমিকেরা কারখানাটির দক্ষিণ পাশে বালুর মাঠে অবস্থান নেন।