ঢাকা ০৬:৫০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভাগ্নে-ভাগ্নিকে গলা কেটে হত্যার দায়ে মামার মৃত্যুদন্ড থমথমে রংপুর: কোটাবিরোধী শিক্ষার্থীদের দখলে রাজপথ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ মুক্ত ঘোষণা সিলেট শাবি’র হলে হলে আন্দোলকারীদের তল্লাশী, অস্ত্র উদ্ধার,ক্যাম্পাস না ছাড়ার ঘোষণা মোটরসাইকেল নিয়ে দ্বন্দ্বে ঘরে ঢুকে যুবককে গুলি করে হত্যা, গ্রেপ্তার ২ কোটাবিরোধী আন্দোলন: নোয়াখালীতে যুবদল-ছাত্রদলের ৫ নেতা গ্রেপ্তার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় আবাসিক হল বন্ধ ঘোষণা, হল ছাড়তে নারাজ শিক্ষার্থীরা পুলিশের ওপর হামলা ও আগুন লাগার ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে – আর‌পিএম‌পি ক‌মিশনার কোটা সংস্কার আন্দোলনে নিহত বেরোবি শিক্ষার্থী আবু সাঈদের দাফন সম্পন্ন আমার ভাই মরলো কেন! প্রশাসন জবাব চাই’ শ্লোগানে উত্তাল গাইবান্ধা

টঙ্গীতে ধর্ষণ মামলা তুলে নিতে ভুক্তভোগীকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ

জাহাঙ্গীর আকন্দ
  • Update Time : ০৪:২৯:১০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ নভেম্বর ২০২৩
  • / ১৮৩ Time View

গাজীপুরের টঙ্গীতে ধর্ষণের ঘটনায় দায়ের করা মামলা তুলে নিতে ভুক্তভোগী পরিবারকে ভয়ভীতি প্রদর্শন ও হত্যার হুমকি প্রদানের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে টঙ্গীর এরশাদ নগর ২নং ব্লকে এক সংবাদ সম্মেলন করেন ভুক্তভোগী কিশোরী মা মালা বেগম।

আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগীর মা মালা বেগম বলেন, গত ২৪ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ৮টার দিকে টঙ্গী পূর্ব থানাধীন লেদু মোল্লা রোড এলাকার আমাদের ভাড়া বাসায় এরশাদ নগর এলাকায় ৪ ব্লকের বাসিন্দা আ:করিম মিয়ার ছেলে সাব্বির আমার বাসায় আসে। যেহেতু সাব্বির আমাদের দূর সম্পর্কের আত্মীয় সেই সুবাদেস সাব্বির প্রায়ই আমাদের বাসায় যাতায়াত করতো। গত ২০ সেপ্টেম্বর এর দিকে জরুরি প্রয়োজন আমি গ্রামের বাড়ি যাই।

যেহেতু আমাদের পরিবারে সবাই কর্মজীবী, ঘটনার দিন ২৪ সেপ্টেম্বর রাতে সাড়ে ৮টার দিকে ঘরে শুধু আমার ১৫ বছর বয়সী মেয়েটি ছিলো। আমাদের পরিবারের সদস্যদের অবস্থান সম্পর্কে আমার মেয়ের কাছ থেকে অবগত হওয়ার পর সাব্বির আমার মেয়েকে হাত পা বেধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এরপর ২৬ তারিখ আমি গ্রামের বাড়ি থেকে আমার বর্তমান ভাড়াবাসায় আসলে আমার মেয়ের শারীরিক অবস্থা খারাপ দেখে জানতে চাইলে সে ঘটনার বিস্তারিত বলেন এবং আমি থানা পুলিশ কে লিখিত ভাবে অভিযোগ করলে টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশ অভিযুক্ত সাব্বির কে গ্রেপ্তার করে ও আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠায়।

এতেই ক্ষিপ্ত হয় সাব্বিরের বড় ভাই শামীম,শাহিন ও শাহিনুর প্রতিনিয়তই মামলাটি তুলে নিতে ভুক্তভোগী আমার মেয়েকে হত্যা করার হুমকি প্রদান করে আসছে। প্রতিনিয়তই স্থানীয় প্রভাবশালী মহল দিয়ে মামলা তুলে না নিলে এলাকা ছাড়াতে হুমকি দিচ্ছে। আমি আপনাদের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তাদের বিচার চাই।

Please Share This Post in Your Social Media

টঙ্গীতে ধর্ষণ মামলা তুলে নিতে ভুক্তভোগীকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ

জাহাঙ্গীর আকন্দ
Update Time : ০৪:২৯:১০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১২ নভেম্বর ২০২৩

গাজীপুরের টঙ্গীতে ধর্ষণের ঘটনায় দায়ের করা মামলা তুলে নিতে ভুক্তভোগী পরিবারকে ভয়ভীতি প্রদর্শন ও হত্যার হুমকি প্রদানের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় রবিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে টঙ্গীর এরশাদ নগর ২নং ব্লকে এক সংবাদ সম্মেলন করেন ভুক্তভোগী কিশোরী মা মালা বেগম।

আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগীর মা মালা বেগম বলেন, গত ২৪ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ৮টার দিকে টঙ্গী পূর্ব থানাধীন লেদু মোল্লা রোড এলাকার আমাদের ভাড়া বাসায় এরশাদ নগর এলাকায় ৪ ব্লকের বাসিন্দা আ:করিম মিয়ার ছেলে সাব্বির আমার বাসায় আসে। যেহেতু সাব্বির আমাদের দূর সম্পর্কের আত্মীয় সেই সুবাদেস সাব্বির প্রায়ই আমাদের বাসায় যাতায়াত করতো। গত ২০ সেপ্টেম্বর এর দিকে জরুরি প্রয়োজন আমি গ্রামের বাড়ি যাই।

যেহেতু আমাদের পরিবারে সবাই কর্মজীবী, ঘটনার দিন ২৪ সেপ্টেম্বর রাতে সাড়ে ৮টার দিকে ঘরে শুধু আমার ১৫ বছর বয়সী মেয়েটি ছিলো। আমাদের পরিবারের সদস্যদের অবস্থান সম্পর্কে আমার মেয়ের কাছ থেকে অবগত হওয়ার পর সাব্বির আমার মেয়েকে হাত পা বেধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এরপর ২৬ তারিখ আমি গ্রামের বাড়ি থেকে আমার বর্তমান ভাড়াবাসায় আসলে আমার মেয়ের শারীরিক অবস্থা খারাপ দেখে জানতে চাইলে সে ঘটনার বিস্তারিত বলেন এবং আমি থানা পুলিশ কে লিখিত ভাবে অভিযোগ করলে টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশ অভিযুক্ত সাব্বির কে গ্রেপ্তার করে ও আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠায়।

এতেই ক্ষিপ্ত হয় সাব্বিরের বড় ভাই শামীম,শাহিন ও শাহিনুর প্রতিনিয়তই মামলাটি তুলে নিতে ভুক্তভোগী আমার মেয়েকে হত্যা করার হুমকি প্রদান করে আসছে। প্রতিনিয়তই স্থানীয় প্রভাবশালী মহল দিয়ে মামলা তুলে না নিলে এলাকা ছাড়াতে হুমকি দিচ্ছে। আমি আপনাদের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তাদের বিচার চাই।