ঢাকা ০৬:০৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ছাত্রলীগকে নিয়ে কটুক্তি, প্রবাসীসহ ৪ জনের নামে মামলা

Reporter Name
  • Update Time : ০৫:৩৯:০০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ মে ২০২৩
  • / ১১৬ Time View

কামরুল হাসান টিটু, রংপুর: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ সরকার দলীয় সংগঠন ছাত্রলীগকে নিয়ে কটূক্তি করায় কানাডা-আমেরিকা প্রবাসীসহ চারজনের বিরুদ্ধে রংপুর সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে মামলা করা হয়েছে।

সোমবার (৮ মে) দুপুরে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাটি করেন মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আসিফ হোসেন।

আসামিরা হলেন- ঢাকার জিগাতলা এলাকার বাসিন্দা কানাডা প্রবাসী মোস্তাফিজার রহমান টিটো, সবুজবাগ এলাকার আমেরিকা প্রবাসী নাজমুস সাকিব, একই এলাকার আনিছ মিয়া ও গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ইব্রাহিম আলী। এছাড়া আরও অজ্ঞাত ৮-১০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

আদালতের বিচারক ড. আবদুল মজিদ মামলার আবেদনটি আমলে নিয়ে তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দিয়েছেন।

এদিকে মামলা সূত্রে জানা গেছে, কানাডা প্রবাসী মোস্তাফিজার রহমান টিটো, আমেরিকা প্রবাসী নাজমুস সাকিবসহ অন্যান্যরা বিভিন্ন সময়ে অনলা্ইন নাগরিক টিভি নামে ফেসবুকে থাকা একটি পেজে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তার পুত্র সজিব ওয়াজেদ জয়সহ আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা ও ছাত্রলীগকে নিয়ে কটুক্তি ও অশালীন মন্তব্য করে আসছে। এতে বিদেশে বাংলাদেশসহ সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে। এসব অপপ্রচার বন্ধ করাসহ জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত বিচার চেয়ে সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে আরেকটি মামলা করা হয়েছে।

মামলার বাদী মহানগর মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আসিফ হোসেন বলেন, মামলার আসামিরা দেশ ও জাতির ক্ষতি করতে বিভিন্ন ভাবে অপপ্রচার চালাচ্ছেন। আর ছাত্রলীগকে কুত্তালীগ বলা হচ্ছে। এ কারণে ছাত্রলীগের মানহানিকর ও সম্মানহানি হয়েছে। আমরা চাই এ ধরণের অপ্রপ্রচার বন্ধ করা হোক। একই সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা হোক।

সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতের রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবি রুহুল আমিন তালুদার বলেন, আদালতের বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে পিবিআইকে তদন্তের আদেশ দিয়েছেন। নাগরিক টিভি নামে অনুমোদনহীন একটি ইউটিবে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও তার পরিবারসহ আওয়ামী নেতাদের নিয়ে কটুক্তি ও ও ছাত্রলীগকে কুত্তালিগ বলায় এ কারণে মামলা করেছেন সংক্ষুদ্ধ ছাত্রলীগ নেতা। এর ফলে রংপুর মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আসিফ হোসেন নাজমুস সাকিবসহ ৪জন অজ্ঞাত আরও ৮-১০ জনের নামে সাইবার আইনে মামলা দায়ের করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

ছাত্রলীগকে নিয়ে কটুক্তি, প্রবাসীসহ ৪ জনের নামে মামলা

Update Time : ০৫:৩৯:০০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ মে ২০২৩

কামরুল হাসান টিটু, রংপুর: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ সরকার দলীয় সংগঠন ছাত্রলীগকে নিয়ে কটূক্তি করায় কানাডা-আমেরিকা প্রবাসীসহ চারজনের বিরুদ্ধে রংপুর সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে মামলা করা হয়েছে।

সোমবার (৮ মে) দুপুরে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাটি করেন মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আসিফ হোসেন।

আসামিরা হলেন- ঢাকার জিগাতলা এলাকার বাসিন্দা কানাডা প্রবাসী মোস্তাফিজার রহমান টিটো, সবুজবাগ এলাকার আমেরিকা প্রবাসী নাজমুস সাকিব, একই এলাকার আনিছ মিয়া ও গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ইব্রাহিম আলী। এছাড়া আরও অজ্ঞাত ৮-১০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

আদালতের বিচারক ড. আবদুল মজিদ মামলার আবেদনটি আমলে নিয়ে তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দিয়েছেন।

এদিকে মামলা সূত্রে জানা গেছে, কানাডা প্রবাসী মোস্তাফিজার রহমান টিটো, আমেরিকা প্রবাসী নাজমুস সাকিবসহ অন্যান্যরা বিভিন্ন সময়ে অনলা্ইন নাগরিক টিভি নামে ফেসবুকে থাকা একটি পেজে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তার পুত্র সজিব ওয়াজেদ জয়সহ আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা ও ছাত্রলীগকে নিয়ে কটুক্তি ও অশালীন মন্তব্য করে আসছে। এতে বিদেশে বাংলাদেশসহ সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে। এসব অপপ্রচার বন্ধ করাসহ জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত বিচার চেয়ে সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে আরেকটি মামলা করা হয়েছে।

মামলার বাদী মহানগর মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আসিফ হোসেন বলেন, মামলার আসামিরা দেশ ও জাতির ক্ষতি করতে বিভিন্ন ভাবে অপপ্রচার চালাচ্ছেন। আর ছাত্রলীগকে কুত্তালীগ বলা হচ্ছে। এ কারণে ছাত্রলীগের মানহানিকর ও সম্মানহানি হয়েছে। আমরা চাই এ ধরণের অপ্রপ্রচার বন্ধ করা হোক। একই সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা হোক।

সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতের রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবি রুহুল আমিন তালুদার বলেন, আদালতের বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে পিবিআইকে তদন্তের আদেশ দিয়েছেন। নাগরিক টিভি নামে অনুমোদনহীন একটি ইউটিবে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও তার পরিবারসহ আওয়ামী নেতাদের নিয়ে কটুক্তি ও ও ছাত্রলীগকে কুত্তালিগ বলায় এ কারণে মামলা করেছেন সংক্ষুদ্ধ ছাত্রলীগ নেতা। এর ফলে রংপুর মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আসিফ হোসেন নাজমুস সাকিবসহ ৪জন অজ্ঞাত আরও ৮-১০ জনের নামে সাইবার আইনে মামলা দায়ের করেন।