ঢাকা ০৭:০১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
পাঁচ কোটি টাকার বিনিয়োগ হারালেন আয়ামান সাদিক নোয়াখালীতে নকল ক্যাবল বিক্রির দায়ে জরিমানা কোটা সংস্কার আন্দোলনে যাওয়ায় ইবি শিক্ষার্থীকে বেধরক মারধর  পিবিআই এর দুই কর্মকর্তার বদলী জনিত বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত মোটরসাইকেল নিয়ে বিরোধ: নোয়াখালীতে বসতঘরে ঢুকে যুবককে গুলি করে হত্যা ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগরে সওজের জায়গায় অবৈধ দখলে থাকা দোকানপাট উচ্ছেদ দুই বঙ্গকন্যা ব্রিটিশ মন্ত্রীসভায় স্থান পাওয়ায় বঙ্গবন্ধু লেখক-সাংবাদিক ফোরামের আনন্দ সভা নতুন আশ্রয়ণের ঘর নির্মাণে খুশী গাইবান্ধার চরাঞ্চলের মানুষ গ্যাস সংকটে চার মাস ধরে শাহজালাল সার কারখানায় উৎপাদন বন্ধ সুবর্ণচরে বৃদ্ধকে জবাই করে হত্যা, গ্রেপ্তার ৩

ছবি-ভিডিও ফাঁসের প্রমাণ চেয়ে পাল্টা মামলার হুঁশিয়ারি পরীমনির

নওরোজ বিনোদন ডেস্ক
  • Update Time : ০৮:১১:৫৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ মে ২০২৩
  • / ৩১৯ Time View

তিন অভিনেত্রী সুনেরাহ বিনতে কামাল, নাজিফা তুষি ও তানজিন তিশার সঙ্গে স্বামী শরীফুল রাজের ভিডিও ফাঁস করার অভিযোগ উড়িয়ে এবার পাল্টা মামলার হুঁশিয়ারি দিলেন আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনি। অভিনেত্রী সুনেরাহ বিনতে কামাল অভিযোগ করেন, এই ছবি ও ভিডিওগুলো পরীমনি রাজের পেজ থেকে ফাঁস করেছেন।

সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পরীমনি। চেয়েছেন ছবি ও ভিডিও ফাঁস করার প্রমাণ। একইসঙ্গে দিয়েছেন পাল্টা মামলার হুঁশিয়ারি। মঙ্গলবার পরীমনি গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে বলেছেন, ‘কেউ আমাকে জড়ালে সরাসরি মামলা করব আমি।’

আইন সবার জন্য সমান উল্লেখ করে পরীমনি বলেন, ‘আমাকে নিয়ে কেউ কিছু বললে বা লিখলে আইনি ব্যবস্থা নেব। আইন সবার জন্য সমান। আইন কারও জন্য একার না। আমিও আইনি ব্যবস্থা নেব। আমার জন্যও আইন, আইন সবার জন্য। আমার নাম কেন নিয়েছে? কোনো প্রমাণ রয়েছে—আমি ওর (রাজ) সঙ্গে রাগ করেছি?’

সুনেরাহর দিকে নিশানা করে পরীমনি বলেন, ‘ওই মেয়েকে আমি চিনিই না। ওর সঙ্গে আমার কখনো কথাই হয়নি। তাহলে কেন ও আমাকে নিয়ে আজেবাজে মন্তব্য করছে। রাজের ফেসবুক থেকে প্রকাশিত ভিডিওগুলো অনেকেই দেখেছেন। ওখানে ওর মুখের ভাষা কেমন ছিল। আর ওরা কি স্বাভাবিক ছিল?

পরীমনির প্রশ্ন, ‘এটা কোন ধরণের বন্ধুত্ব? নায়িকার দাবি, ‘রাজের ফেসবুক হ্যাক হয়নি। এটি করেছে ওই মেয়েই! কারণ রাজ ঘুমালে তার কোনো হুশ থাকে না।’

পরীমনি আরও বলেন, ‘আমরা সংসার জীবন নিয়ে বেশ ভালোই ছিলাম। কিন্তু এটি অনেকের ভালো লাগছে না। তাই আমার সংসারের পেছনে লেগেছে তারা। তার কথা ও মাতলামি দেখেছেন? এবার বোঝেন। মানুষ মনে করে, দেশের সব মদ আমিই খাই! বাকিরা সবাই ধোয়া তুলসী পাতা। ওই মেয়ে হুমকি দিয়েছে, আইনের ভয় দেখিয়েছে- আইন কি শুধু তার জন্যই। আমিও তাকে দেখে নেব, ধৈর্যের একটা সীমা আছে! আমার মনে হয় ও (সুনেরাহ) আমার সংসারটা ভাঙার চেষ্টা করছে।’

সংসার জীবন ভালো যাচ্ছে না বলে অনেকদিনের গুঞ্জনকেও উড়িয়ে দিলেন পরীমনি। তিনি বলেন, ‘এসব আজাইরা কথা মানুষ কই পায়। আমরা ভালো আছি, সুখেই আছি। আমি অভিনয় আর সংসার জীবন নিয়ে ভালো আছি- এটা কারও পছন্দ হচ্ছে না। তাই এসব কথা ছড়াচ্ছে। কয়েকদিন ধরে ছবির প্রচারণার কারণে দম ফেলার সময় পাচ্ছি না। এর মধ্যে আবার উটকো ঝামেলা। আমাকে খেপালে এর পরিণাম ভালো হবে না!’

রাজ নাকি বাসায় ঠিকমত ফেরেন না আর আপনিও নাকি নিজ বাসায় থাকেন? এমন প্রশ্নের জবাবে পরীমনি বলেন, ‘এটা তো রাজের পুরোনো স্বভাব। আর আমি দুই বাসাতেই থাকি। এখন নিজ বাসায় আছি। আর আমাদের সংসার যদি ভেঙে যায়, তাহলে এর পেছনে দায়ী হবে ওই মেয়ে। আমি এর শেষটা দেখে নিতে চাই।’

এর আগে সুনেরাহ পরীমনিকে উদ্দেশ্য করে ফেসবুকে লেখেন, ‘রাজকে আমি ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে চিনি। সে আমার অনেক ভালো বন্ধু ছিল। তবে তার বিয়ের পর থেকে প্রায় যোগাযোগ ছিল না আমাদের। সেদিন একটি ডাবিং স্টুডিওতে দেখা হলো আমাদের। আমরা একসঙ্গে ছবি তুললাম। আমি জানি না, পুরনো বন্ধুর সঙ্গে একটি ছবি তোলা এমন কী অপরাধের বিষয়। তার স্ত্রী (পরীমনি) কোনো কারণ ছাড়াই পাগলপ্রায় এটা নিয়ে।’

পরে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে সুনেরাহ বলেন, ‘আমাকে কেউ যদি ডিস্টার্ব করে তাহলে এবার আমি ব্যবস্থা নেব। এর আগে একবার এক নায়িকা প্রচলিত আইনের হুমকি দিয়েছে। এবার যদি কেউ আমাকে নিয়ে খোঁচায় তাহলে আমি ডিরেক্ট মামলা করব তার নামে।’

অভিনেত্রী বলেন, ‘আপনারা যে ভিডিওগুলো দেখেছেন, (শরিফুল রাজের ফেসবুকে) সেগুলো পাঁচ বছর আগের। ‘ন ডরাই’ সিনেমার সময়ের। সেই সময় আমরা এভাবেই মজা করতাম, আর প্রতিদিন এভাবে কথা বলার প্র্যাকটিস করতাম। কারণ, আমাদের (বিশেষ করে আমাকে) সিনেমার প্রয়োজনে গালি দিতে হয়েছে এভাবে।’

সুনেরাহর আর্জি, ‘দয়া করে এ বিষয় নিয়ে বাড়াবাড়ি করবেন না। আমি নিশ্চিত, ওর (শরিফুল রাজ) আইডি হ্যাকড হয়েছে। আর কে হ্যাক করেছে, আমরা সবাই সেটা জানি, প্রকাশ্যে হইচই করতে কোনো কারণ লাগে না যার (সেই করেছে)। এ ভিডিওগুলো যারা ছড়াবে, তাদের সবার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেব আমি।’

এর আগে সোমবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে কয়েক মিনিটের ব্যবধানে কয়েকটি পোস্ট দেয়া হয় রাজের ফেসবুক প্রোফাইল থেকে। সেখানে অশ্লীল ও অসংলগ্ন ভাষায় কথা বলতে দেখা যায় সুনেরাহকে।

প্রথম পোস্টে ১২টি ছবি ও ভিডিও। এর মধ্যে কয়েকটি ছবি রাজ ও সুনেরাহর ভিডিও কলে কথা বলার। ভিডিওগুলো রাতের রাস্তায় তাদের ঘোরাঘুরির।

অন্য একটি ভিডিওতে মদ্যপ অবস্থায় দেখে গেছে তানজিন তিশাকে। রাজের ক্যামেরায় লিফটের ভেতরে মদ্যপ অবস্থায় নাচতে দেখা গেছে ছোটপর্দার এ অভিনেত্রীকে। অন্য একটি ভিডিওতে নাজিফা তুষিকে সিগারেট টানতে দেখা গেছে।

যদিও ছবি ও ভিডিওগুলো পোস্ট হওয়ার ২০ মিনিটের মধ্যেই রাজের আইডি থেকে সেগুলো সরিয়ে ফেলা হয়। ওই ভিডিওতে অভিনেত্রী সুনেরাহকে অসংলগ্ন ও অশ্লীল ভাষায় কথা বলতে শোনা গেছে। এ নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে চলছে জোর চর্চা, সমালোচনা।

Please Share This Post in Your Social Media

ছবি-ভিডিও ফাঁসের প্রমাণ চেয়ে পাল্টা মামলার হুঁশিয়ারি পরীমনির

নওরোজ বিনোদন ডেস্ক
Update Time : ০৮:১১:৫৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ মে ২০২৩

তিন অভিনেত্রী সুনেরাহ বিনতে কামাল, নাজিফা তুষি ও তানজিন তিশার সঙ্গে স্বামী শরীফুল রাজের ভিডিও ফাঁস করার অভিযোগ উড়িয়ে এবার পাল্টা মামলার হুঁশিয়ারি দিলেন আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনি। অভিনেত্রী সুনেরাহ বিনতে কামাল অভিযোগ করেন, এই ছবি ও ভিডিওগুলো পরীমনি রাজের পেজ থেকে ফাঁস করেছেন।

সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পরীমনি। চেয়েছেন ছবি ও ভিডিও ফাঁস করার প্রমাণ। একইসঙ্গে দিয়েছেন পাল্টা মামলার হুঁশিয়ারি। মঙ্গলবার পরীমনি গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে বলেছেন, ‘কেউ আমাকে জড়ালে সরাসরি মামলা করব আমি।’

আইন সবার জন্য সমান উল্লেখ করে পরীমনি বলেন, ‘আমাকে নিয়ে কেউ কিছু বললে বা লিখলে আইনি ব্যবস্থা নেব। আইন সবার জন্য সমান। আইন কারও জন্য একার না। আমিও আইনি ব্যবস্থা নেব। আমার জন্যও আইন, আইন সবার জন্য। আমার নাম কেন নিয়েছে? কোনো প্রমাণ রয়েছে—আমি ওর (রাজ) সঙ্গে রাগ করেছি?’

সুনেরাহর দিকে নিশানা করে পরীমনি বলেন, ‘ওই মেয়েকে আমি চিনিই না। ওর সঙ্গে আমার কখনো কথাই হয়নি। তাহলে কেন ও আমাকে নিয়ে আজেবাজে মন্তব্য করছে। রাজের ফেসবুক থেকে প্রকাশিত ভিডিওগুলো অনেকেই দেখেছেন। ওখানে ওর মুখের ভাষা কেমন ছিল। আর ওরা কি স্বাভাবিক ছিল?

পরীমনির প্রশ্ন, ‘এটা কোন ধরণের বন্ধুত্ব? নায়িকার দাবি, ‘রাজের ফেসবুক হ্যাক হয়নি। এটি করেছে ওই মেয়েই! কারণ রাজ ঘুমালে তার কোনো হুশ থাকে না।’

পরীমনি আরও বলেন, ‘আমরা সংসার জীবন নিয়ে বেশ ভালোই ছিলাম। কিন্তু এটি অনেকের ভালো লাগছে না। তাই আমার সংসারের পেছনে লেগেছে তারা। তার কথা ও মাতলামি দেখেছেন? এবার বোঝেন। মানুষ মনে করে, দেশের সব মদ আমিই খাই! বাকিরা সবাই ধোয়া তুলসী পাতা। ওই মেয়ে হুমকি দিয়েছে, আইনের ভয় দেখিয়েছে- আইন কি শুধু তার জন্যই। আমিও তাকে দেখে নেব, ধৈর্যের একটা সীমা আছে! আমার মনে হয় ও (সুনেরাহ) আমার সংসারটা ভাঙার চেষ্টা করছে।’

সংসার জীবন ভালো যাচ্ছে না বলে অনেকদিনের গুঞ্জনকেও উড়িয়ে দিলেন পরীমনি। তিনি বলেন, ‘এসব আজাইরা কথা মানুষ কই পায়। আমরা ভালো আছি, সুখেই আছি। আমি অভিনয় আর সংসার জীবন নিয়ে ভালো আছি- এটা কারও পছন্দ হচ্ছে না। তাই এসব কথা ছড়াচ্ছে। কয়েকদিন ধরে ছবির প্রচারণার কারণে দম ফেলার সময় পাচ্ছি না। এর মধ্যে আবার উটকো ঝামেলা। আমাকে খেপালে এর পরিণাম ভালো হবে না!’

রাজ নাকি বাসায় ঠিকমত ফেরেন না আর আপনিও নাকি নিজ বাসায় থাকেন? এমন প্রশ্নের জবাবে পরীমনি বলেন, ‘এটা তো রাজের পুরোনো স্বভাব। আর আমি দুই বাসাতেই থাকি। এখন নিজ বাসায় আছি। আর আমাদের সংসার যদি ভেঙে যায়, তাহলে এর পেছনে দায়ী হবে ওই মেয়ে। আমি এর শেষটা দেখে নিতে চাই।’

এর আগে সুনেরাহ পরীমনিকে উদ্দেশ্য করে ফেসবুকে লেখেন, ‘রাজকে আমি ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে চিনি। সে আমার অনেক ভালো বন্ধু ছিল। তবে তার বিয়ের পর থেকে প্রায় যোগাযোগ ছিল না আমাদের। সেদিন একটি ডাবিং স্টুডিওতে দেখা হলো আমাদের। আমরা একসঙ্গে ছবি তুললাম। আমি জানি না, পুরনো বন্ধুর সঙ্গে একটি ছবি তোলা এমন কী অপরাধের বিষয়। তার স্ত্রী (পরীমনি) কোনো কারণ ছাড়াই পাগলপ্রায় এটা নিয়ে।’

পরে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে সুনেরাহ বলেন, ‘আমাকে কেউ যদি ডিস্টার্ব করে তাহলে এবার আমি ব্যবস্থা নেব। এর আগে একবার এক নায়িকা প্রচলিত আইনের হুমকি দিয়েছে। এবার যদি কেউ আমাকে নিয়ে খোঁচায় তাহলে আমি ডিরেক্ট মামলা করব তার নামে।’

অভিনেত্রী বলেন, ‘আপনারা যে ভিডিওগুলো দেখেছেন, (শরিফুল রাজের ফেসবুকে) সেগুলো পাঁচ বছর আগের। ‘ন ডরাই’ সিনেমার সময়ের। সেই সময় আমরা এভাবেই মজা করতাম, আর প্রতিদিন এভাবে কথা বলার প্র্যাকটিস করতাম। কারণ, আমাদের (বিশেষ করে আমাকে) সিনেমার প্রয়োজনে গালি দিতে হয়েছে এভাবে।’

সুনেরাহর আর্জি, ‘দয়া করে এ বিষয় নিয়ে বাড়াবাড়ি করবেন না। আমি নিশ্চিত, ওর (শরিফুল রাজ) আইডি হ্যাকড হয়েছে। আর কে হ্যাক করেছে, আমরা সবাই সেটা জানি, প্রকাশ্যে হইচই করতে কোনো কারণ লাগে না যার (সেই করেছে)। এ ভিডিওগুলো যারা ছড়াবে, তাদের সবার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেব আমি।’

এর আগে সোমবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে কয়েক মিনিটের ব্যবধানে কয়েকটি পোস্ট দেয়া হয় রাজের ফেসবুক প্রোফাইল থেকে। সেখানে অশ্লীল ও অসংলগ্ন ভাষায় কথা বলতে দেখা যায় সুনেরাহকে।

প্রথম পোস্টে ১২টি ছবি ও ভিডিও। এর মধ্যে কয়েকটি ছবি রাজ ও সুনেরাহর ভিডিও কলে কথা বলার। ভিডিওগুলো রাতের রাস্তায় তাদের ঘোরাঘুরির।

অন্য একটি ভিডিওতে মদ্যপ অবস্থায় দেখে গেছে তানজিন তিশাকে। রাজের ক্যামেরায় লিফটের ভেতরে মদ্যপ অবস্থায় নাচতে দেখা গেছে ছোটপর্দার এ অভিনেত্রীকে। অন্য একটি ভিডিওতে নাজিফা তুষিকে সিগারেট টানতে দেখা গেছে।

যদিও ছবি ও ভিডিওগুলো পোস্ট হওয়ার ২০ মিনিটের মধ্যেই রাজের আইডি থেকে সেগুলো সরিয়ে ফেলা হয়। ওই ভিডিওতে অভিনেত্রী সুনেরাহকে অসংলগ্ন ও অশ্লীল ভাষায় কথা বলতে শোনা গেছে। এ নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে চলছে জোর চর্চা, সমালোচনা।