ঢাকা ০৮:২০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ

চুয়াডাঙ্গার আলোকদিয়া ইউনিয়নে বহুমুখী বয়স্ক ভাতার পরিচয় পত্র বিতরণ

Reporter Name
  • Update Time : ১২:৪৯:৫৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ মে ২০২৩
  • / ৭৮ Time View
চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার ১ নং আলোকদিয়া ইউনিয়নে আনুষ্ঠানিকভাবে বহুমুখী সুবিধার বয়স্ক ভাতার পরিচয় পত্র বিতরণ করা হয়েছে।
গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টায় আলোকদিয়া ইউনিয়ন কমপ্লেক্সের সভাকক্ষে  সরকারিভাতা ভোগী বয়স্ক নারী পুরুষের মাঝে এ পরিচয় পত্র বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম ভূঁইয়া।
আলোকদিয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হাজী আবুল কালাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মৌমিতা পারভিন, সদর উপজেলা প্রশাসনিক কর্মকর্তা আয়নাল হক, চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবের জয়েন্ট সেক্রেটারি ও দৈনিক আমার সংবাদের চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রতিনিধি ইসলাম রকিব সহ ইউনিয়ন পরিষদের সকল সদস্যগণ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার জন্য এ ধরনের আইডেন্টিটি বা পরিচয় পত্র খুবই প্রয়োজন। যে সকল সিনিয়র সিটিজেন সরকারি ভাতা ভোগ করছেন এই সরকারি সুবিধার পাশাপাশি আরো কিছু সুবিধা দেওয়ার জন্যই চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ ধরনের পরিচয় পত্র প্রদান করা হচ্ছে। ইনোভেশন প্রকল্পের আওতায় সদর উপজেলার নিজ খরচে সারা বাংলাদেশের মধ্যে সর্বপ্রথম চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলার ১নম্বর আলোকদিয়া ইউনিয়নে এটি চালু করা হলো।
এই পরিচয় পত্রের মাধ্যমে  সরকারি সুযোগ-সুবিধার পাশাপাশি স্থানীয়ভাবে বাস-ট্রেন সহ  সকল যানবাহনে সিনিয়র সিটিজেনগণ অর্ধেক ভাড়ায় যাতায়াত করতে পারবে। আমরা উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে  সকল বাস-ট্রাক এবং যানবাহনের মালিকদের সাথে এ বিষয়ে আলোচনা করেছি এবং তারা এতে সম্মতি প্রদান করেছেন। এছাড়া সরকারি যেকোনো অফিস আদালতে এই কার্ড প্রদর্শন করলে তাদেরকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সেই কাজে সেবা প্রদান করা হবে। অর্থাৎ স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের জন্য এই ধরনের কার্ড পর্যায়ক্রমে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার প্রত্যেকটি ইউনিয়নের বয়স্ক নারী পুরুষদের প্রদান করা হবে।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সভাপতি সদর উপজেলার আলোকদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাজী আবুল কালাম বলেন, বাংলাদেশের মধ্যে সর্বপ্রথম আমার ইউনিয়নে এই ধরনের পরিচয় পত্র প্রদান করে যে যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে এতে আমি অত্যন্ত খুশি এবং গর্বিত। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ স্থানীয় উপজেলা প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানাই।
আজকের আমার ইউনিয়নে সদর উপজেলা  নির্বাহী কর্মকর্তা শামীম ভূঁইয়া আনুষ্ঠানিকভাবে এটি উদ্বোধন করলেন। এ ইউনিয়নের ১৩২০ জন বয়স্ক নারী পুরুষের মাঝে এ পরিচয় পত্র প্রদান করা হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে ইউনিয়নের প্রত্যেকটি গ্রামের বয়স্ক নারী পুরুষের মাঝে এই পরিচয় পত্র প্রদান করা হবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন আলোকদিয়া ইউনিয়নের সচিব জিয়াউর রহমান।

Please Share This Post in Your Social Media

চুয়াডাঙ্গার আলোকদিয়া ইউনিয়নে বহুমুখী বয়স্ক ভাতার পরিচয় পত্র বিতরণ

Update Time : ১২:৪৯:৫৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ মে ২০২৩
চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার ১ নং আলোকদিয়া ইউনিয়নে আনুষ্ঠানিকভাবে বহুমুখী সুবিধার বয়স্ক ভাতার পরিচয় পত্র বিতরণ করা হয়েছে।
গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১০টায় আলোকদিয়া ইউনিয়ন কমপ্লেক্সের সভাকক্ষে  সরকারিভাতা ভোগী বয়স্ক নারী পুরুষের মাঝে এ পরিচয় পত্র বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম ভূঁইয়া।
আলোকদিয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হাজী আবুল কালাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মৌমিতা পারভিন, সদর উপজেলা প্রশাসনিক কর্মকর্তা আয়নাল হক, চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবের জয়েন্ট সেক্রেটারি ও দৈনিক আমার সংবাদের চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রতিনিধি ইসলাম রকিব সহ ইউনিয়ন পরিষদের সকল সদস্যগণ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার জন্য এ ধরনের আইডেন্টিটি বা পরিচয় পত্র খুবই প্রয়োজন। যে সকল সিনিয়র সিটিজেন সরকারি ভাতা ভোগ করছেন এই সরকারি সুবিধার পাশাপাশি আরো কিছু সুবিধা দেওয়ার জন্যই চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ ধরনের পরিচয় পত্র প্রদান করা হচ্ছে। ইনোভেশন প্রকল্পের আওতায় সদর উপজেলার নিজ খরচে সারা বাংলাদেশের মধ্যে সর্বপ্রথম চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলার ১নম্বর আলোকদিয়া ইউনিয়নে এটি চালু করা হলো।
এই পরিচয় পত্রের মাধ্যমে  সরকারি সুযোগ-সুবিধার পাশাপাশি স্থানীয়ভাবে বাস-ট্রেন সহ  সকল যানবাহনে সিনিয়র সিটিজেনগণ অর্ধেক ভাড়ায় যাতায়াত করতে পারবে। আমরা উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে  সকল বাস-ট্রাক এবং যানবাহনের মালিকদের সাথে এ বিষয়ে আলোচনা করেছি এবং তারা এতে সম্মতি প্রদান করেছেন। এছাড়া সরকারি যেকোনো অফিস আদালতে এই কার্ড প্রদর্শন করলে তাদেরকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সেই কাজে সেবা প্রদান করা হবে। অর্থাৎ স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের জন্য এই ধরনের কার্ড পর্যায়ক্রমে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার প্রত্যেকটি ইউনিয়নের বয়স্ক নারী পুরুষদের প্রদান করা হবে।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সভাপতি সদর উপজেলার আলোকদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাজী আবুল কালাম বলেন, বাংলাদেশের মধ্যে সর্বপ্রথম আমার ইউনিয়নে এই ধরনের পরিচয় পত্র প্রদান করে যে যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে এতে আমি অত্যন্ত খুশি এবং গর্বিত। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ স্থানীয় উপজেলা প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানাই।
আজকের আমার ইউনিয়নে সদর উপজেলা  নির্বাহী কর্মকর্তা শামীম ভূঁইয়া আনুষ্ঠানিকভাবে এটি উদ্বোধন করলেন। এ ইউনিয়নের ১৩২০ জন বয়স্ক নারী পুরুষের মাঝে এ পরিচয় পত্র প্রদান করা হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে ইউনিয়নের প্রত্যেকটি গ্রামের বয়স্ক নারী পুরুষের মাঝে এই পরিচয় পত্র প্রদান করা হবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন আলোকদিয়া ইউনিয়নের সচিব জিয়াউর রহমান।