ঢাকা ০৩:০০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১১ ডিসেম্বর ২০২৩, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

চাঁদের ৪ বছরের নাতনিসহ দুই মেয়েকে গ্রেপ্তারে বিএনপি মহাসচিবের উদ্বেগ

স্টাফ রিপোর্টার
  • Update Time : ১০:০৮:২৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ মে ২০২৩
  • / ৫৬ Time View

প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে রাজশাহী জেলা বিএনপির আহ্বায়ক মো. আবু সাঈদ চাঁদের বক্তব্যকে কেন্দ্র করে তাকে গ্রেপ্তারের উদ্দেশ্যে তার চার বছর বয়সী নাতনিসহ পরিবারের কয়েকজন সদস্যকে গ্রেপ্তার ও জিজ্ঞাসাবাদের নামে হয়রানির অভিযোগ এনেছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আজ বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ অভিযোগ করেন।

বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল বলেন, সম্প্রতি আবু সাঈদ চাঁদের মুখ ফসকে বেরিয়ে যাওয়া একটি অনাকাঙ্ক্ষিত বক্তব্যকে কেন্দ্র করে তাকে গ্রেপ্তারের উদ্দেশ্যে ঢাকায় বসবাসরত তার ঘনিষ্ঠ আত্মীয়-স্বজনদের বাসায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তল্লাশি চালাচ্ছে।

বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আওয়ামী সরকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে দিয়ে আবু সাঈদ চাঁদের মেয়ে জাকিয়া সুলতানা ও তার ৪ বছর বয়সী শিশু আরিশা, জাকিয়ার বড় বোনের মেয়ে মাসুদা আক্তার এবং ছোট মেয়ের জামাই শেখ সালাউদ্দিন আহমেদকে গ্রেপ্তার ও জিজ্ঞাসাবাদের নামে হয়রানির যে অমানবিকতা শুরু করেছে সেটির নিন্দা জানানোর ভাষা আমার জানা নেই।

তিনি বলেন, ৪ বছরের অবুঝ শিশুসহ গ্রেপ্তার নারীদের জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে আবু সাঈদের অন্যান্য আত্মীয়-স্বজন এবং আমরা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন।

বর্তমান ফ্যাসিস্ট সরকারের শাসনামলে নারীদের মানসম্মান ভূলুণ্ঠিত ও শিশুদের ওপর পাশবিক নির্যাতন অব্যাহত রয়েছে। অপরাধ না করেও নারী-পুরুষদের অপরাধী বানিয়ে কারান্তরীণ করা হচ্ছে। অবস্থা দৃষ্টে মনে হচ্ছে, আমরা একটি স্বাধীন দেশের মানুষ নই, বাংলাদেশকে যেন এক আদিম ও বর্বর যুগে ঠেলে দেওয়া হয়েছে।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, আওয়ামী কর্তৃত্ববাদী সরকার নিজেদের অস্তিত্বের প্রশ্নে এখন বেসামাল হয়ে উঠেছে। তাই অবৈধ শাসক গোষ্ঠী বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের ওপর নানা কায়দায় জুলুম-নির্যাতন চালিয়ে তাদের ভিত সন্ত্রস্ত করার কৌশল অবলম্বন করেছে। কিন্তু কোন নিষ্ঠুর নিপীড়ন-নির্যাতনেও জাতীয়তাবাদী শক্তিকে দমন করতে না পেরে রাষ্ট্রশক্তির যথেচ্ছ অপব্যবহার অব্যাহত রেখেছে।

‘আওয়ামী লীগ নেতারা প্রায়শই বিএনপির নেতৃবৃন্দকে হত্যার হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, আবু সাঈদ চাঁদের বক্তব্যকে অজুহাত হিসেবে নিয়ে বর্তমান শাসক গোষ্ঠী ঘৃণ্য অপরাজনীতি ও জুলুমের মাত্রা বৃদ্ধি করেছে। দেশবাসীর কাছে আমাদের প্রশ্ন-অবুঝ শিশু সন্তানসহ গ্রেপ্তার নারীদের অপরাধ কী? আসলে নানা অপকর্মের মাধ্যমে জনগণকে ভীত-সন্ত্রস্ত রেখে রাষ্ট্রক্ষমতার মসনদ চিরস্থায়ী করাই বর্তমান শাসক গোষ্ঠীর একমাত্র লক্ষ্য। তবে আওয়ামী অবৈধ সরকার যতই ষড়যন্ত্র ও কূটকৌশল করুক না কেন জনগণের রোষানল থেকে রেহাই পাবে না।

Please Share This Post in Your Social Media

চাঁদের ৪ বছরের নাতনিসহ দুই মেয়েকে গ্রেপ্তারে বিএনপি মহাসচিবের উদ্বেগ

Update Time : ১০:০৮:২৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ মে ২০২৩

প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে রাজশাহী জেলা বিএনপির আহ্বায়ক মো. আবু সাঈদ চাঁদের বক্তব্যকে কেন্দ্র করে তাকে গ্রেপ্তারের উদ্দেশ্যে তার চার বছর বয়সী নাতনিসহ পরিবারের কয়েকজন সদস্যকে গ্রেপ্তার ও জিজ্ঞাসাবাদের নামে হয়রানির অভিযোগ এনেছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আজ বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ অভিযোগ করেন।

বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল বলেন, সম্প্রতি আবু সাঈদ চাঁদের মুখ ফসকে বেরিয়ে যাওয়া একটি অনাকাঙ্ক্ষিত বক্তব্যকে কেন্দ্র করে তাকে গ্রেপ্তারের উদ্দেশ্যে ঢাকায় বসবাসরত তার ঘনিষ্ঠ আত্মীয়-স্বজনদের বাসায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তল্লাশি চালাচ্ছে।

বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আওয়ামী সরকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে দিয়ে আবু সাঈদ চাঁদের মেয়ে জাকিয়া সুলতানা ও তার ৪ বছর বয়সী শিশু আরিশা, জাকিয়ার বড় বোনের মেয়ে মাসুদা আক্তার এবং ছোট মেয়ের জামাই শেখ সালাউদ্দিন আহমেদকে গ্রেপ্তার ও জিজ্ঞাসাবাদের নামে হয়রানির যে অমানবিকতা শুরু করেছে সেটির নিন্দা জানানোর ভাষা আমার জানা নেই।

তিনি বলেন, ৪ বছরের অবুঝ শিশুসহ গ্রেপ্তার নারীদের জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে আবু সাঈদের অন্যান্য আত্মীয়-স্বজন এবং আমরা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন।

বর্তমান ফ্যাসিস্ট সরকারের শাসনামলে নারীদের মানসম্মান ভূলুণ্ঠিত ও শিশুদের ওপর পাশবিক নির্যাতন অব্যাহত রয়েছে। অপরাধ না করেও নারী-পুরুষদের অপরাধী বানিয়ে কারান্তরীণ করা হচ্ছে। অবস্থা দৃষ্টে মনে হচ্ছে, আমরা একটি স্বাধীন দেশের মানুষ নই, বাংলাদেশকে যেন এক আদিম ও বর্বর যুগে ঠেলে দেওয়া হয়েছে।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, আওয়ামী কর্তৃত্ববাদী সরকার নিজেদের অস্তিত্বের প্রশ্নে এখন বেসামাল হয়ে উঠেছে। তাই অবৈধ শাসক গোষ্ঠী বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের ওপর নানা কায়দায় জুলুম-নির্যাতন চালিয়ে তাদের ভিত সন্ত্রস্ত করার কৌশল অবলম্বন করেছে। কিন্তু কোন নিষ্ঠুর নিপীড়ন-নির্যাতনেও জাতীয়তাবাদী শক্তিকে দমন করতে না পেরে রাষ্ট্রশক্তির যথেচ্ছ অপব্যবহার অব্যাহত রেখেছে।

‘আওয়ামী লীগ নেতারা প্রায়শই বিএনপির নেতৃবৃন্দকে হত্যার হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, আবু সাঈদ চাঁদের বক্তব্যকে অজুহাত হিসেবে নিয়ে বর্তমান শাসক গোষ্ঠী ঘৃণ্য অপরাজনীতি ও জুলুমের মাত্রা বৃদ্ধি করেছে। দেশবাসীর কাছে আমাদের প্রশ্ন-অবুঝ শিশু সন্তানসহ গ্রেপ্তার নারীদের অপরাধ কী? আসলে নানা অপকর্মের মাধ্যমে জনগণকে ভীত-সন্ত্রস্ত রেখে রাষ্ট্রক্ষমতার মসনদ চিরস্থায়ী করাই বর্তমান শাসক গোষ্ঠীর একমাত্র লক্ষ্য। তবে আওয়ামী অবৈধ সরকার যতই ষড়যন্ত্র ও কূটকৌশল করুক না কেন জনগণের রোষানল থেকে রেহাই পাবে না।