ঢাকা ০৯:০৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
সন্তানদের নতুন জামা পরিয়ে রাতে ঘর থেকে বের হয়ে আর ফিরলেন না বাবা প্রধানমন্ত্রীর জিরো টলারেন্স নীতির ফলে দেশে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নির্মুল হয়েছেঃ সিলেটে আইজিপি বড় পরিসরে আর. কে. মিশন রোডে ব্র্যাক ব্যাংকের শাখা উদ্বোধন সৌদিতে প্রথমবারের মতো সুইমস্যুট পরে র‌্যাম্পে হাঁটলেন মডেলরা ‘আয়রনম্যান’ চরিত্রে ফিরতে ‘আপত্তি নেই’ রবার্ট ডাউনি জুনিয়রের বাংলাদেশের গণতন্ত্র ধ্বংসের জন্য ভারত সরকার দায়ী : কর্নেল অলি বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র সিরিজ নিয়ে শঙ্কা কাঠালিয়ায় ডাকাতের গুলিতে আহত ২ বিএনপি একটা জালিয়ত রাজনৈতিক দল : পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেয়র তাপস মনগড়া ও অসত্য বক্তব্য দিচ্ছেন : সাঈদ খোকন

কেরানীগঞ্জে ওয়ার্ড আ.লীগের সম্পাদকের বিরুদ্ধে সভাপতির সংবাদ সম্মেলন

Reporter Name
  • Update Time : ১২:২৪:২৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২ জুন ২০২৩
  • / ২৫১ Time View

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের তেঘরিয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেম্বার সেলিম ব্যাপারীর বিরুদ্ধে মাদক, ভূমিদস্যুতা, মারধরসহ নানা অভিযোগ উঠেছে।

সম্প্রতি সে দলবল নিয়ে হামলা চালিয়ে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম বাদশা ও তার দুই ভাগ্নেকে গুরুতর জখম করেছে। সাজ্জাদ ও শাহাদাত নামের দুই সহোদর হাসপাতালে কাতরাচ্ছেন।

এ হামলার প্রতিবাদ ও সেলিম ব্যাপারীকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আমিনুর রহমান।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বেয়ারা বাজারে অবস্থিত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম বাদশার অফিসে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- স্থানীয় মাতবর বাবুল সওদাগর, আওয়ামী লীগ নেতা আসাদ মিয়া, থানা যুব মহিলা লীগের সহ-সভাপতি রুনা বেগমসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা।

সংবাদ সম্মেলনে আমিনুর রহমান বলেন, সেলিম ব্যাপারী নব্য আওয়ামী লীগার। এক সময় বিএনপি করলেও তিনি হাইব্রিড হিসেবে দলে ঢুকে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন। তিনি ওই ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার। মাদক, ভূমিদস্যুতা, লোকজনকে মারধর করা এগুলোই তার পেশা।

ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ১নং ওয়ার্ড মেম্বার জাহাঙ্গীর আলম বাদশা বলেন, ২৮ মে রাত সাড়ে ৯টার দিকে সেলিম ব্যাপারী বেয়ার বাজারে সরকারি জমিতে দোকানপাট নির্মাণ করতে আসেন। খবরটি শোনার পর জনপ্রতিনিধি হিসেবে সরকারি জায়গায় দোকান নির্মাণে সেলিম ব্যাপারীকে বাধা দিলে তার সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। ওই সময় তিনি চলে যান। পরে বেয়ারা বাজারে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের পাশে আমার ব্যক্তিগত অফিসে থাকা অবস্থায় রাত সাড়ে ১০টার দিকে সেলিমের নেতৃত্বে ৫০/৬০ জন সন্ত্রাসী লাঠিসোটা, লোহার রড, পাইপ, ছুরি-চাকু নিয়ে হামলা করে।

সংবাদ সম্মেলনে আনা অভিযোগের বিষয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে সেলিম ব্যাপারী বলেন, আমি এখন কোর্টে আছি। পরে কথা বলব। এরপর তিনি লাইন কেটে দেন। পরে তাকে কল দিলেও রিসিভ করেননি।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহজামান জানান, সেলিম ব্যাপারীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Please Share This Post in Your Social Media

কেরানীগঞ্জে ওয়ার্ড আ.লীগের সম্পাদকের বিরুদ্ধে সভাপতির সংবাদ সম্মেলন

Update Time : ১২:২৪:২৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২ জুন ২০২৩

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের তেঘরিয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেম্বার সেলিম ব্যাপারীর বিরুদ্ধে মাদক, ভূমিদস্যুতা, মারধরসহ নানা অভিযোগ উঠেছে।

সম্প্রতি সে দলবল নিয়ে হামলা চালিয়ে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম বাদশা ও তার দুই ভাগ্নেকে গুরুতর জখম করেছে। সাজ্জাদ ও শাহাদাত নামের দুই সহোদর হাসপাতালে কাতরাচ্ছেন।

এ হামলার প্রতিবাদ ও সেলিম ব্যাপারীকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আমিনুর রহমান।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বেয়ারা বাজারে অবস্থিত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম বাদশার অফিসে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- স্থানীয় মাতবর বাবুল সওদাগর, আওয়ামী লীগ নেতা আসাদ মিয়া, থানা যুব মহিলা লীগের সহ-সভাপতি রুনা বেগমসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা।

সংবাদ সম্মেলনে আমিনুর রহমান বলেন, সেলিম ব্যাপারী নব্য আওয়ামী লীগার। এক সময় বিএনপি করলেও তিনি হাইব্রিড হিসেবে দলে ঢুকে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন। তিনি ওই ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার। মাদক, ভূমিদস্যুতা, লোকজনকে মারধর করা এগুলোই তার পেশা।

ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ১নং ওয়ার্ড মেম্বার জাহাঙ্গীর আলম বাদশা বলেন, ২৮ মে রাত সাড়ে ৯টার দিকে সেলিম ব্যাপারী বেয়ার বাজারে সরকারি জমিতে দোকানপাট নির্মাণ করতে আসেন। খবরটি শোনার পর জনপ্রতিনিধি হিসেবে সরকারি জায়গায় দোকান নির্মাণে সেলিম ব্যাপারীকে বাধা দিলে তার সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। ওই সময় তিনি চলে যান। পরে বেয়ারা বাজারে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের পাশে আমার ব্যক্তিগত অফিসে থাকা অবস্থায় রাত সাড়ে ১০টার দিকে সেলিমের নেতৃত্বে ৫০/৬০ জন সন্ত্রাসী লাঠিসোটা, লোহার রড, পাইপ, ছুরি-চাকু নিয়ে হামলা করে।

সংবাদ সম্মেলনে আনা অভিযোগের বিষয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে সেলিম ব্যাপারী বলেন, আমি এখন কোর্টে আছি। পরে কথা বলব। এরপর তিনি লাইন কেটে দেন। পরে তাকে কল দিলেও রিসিভ করেননি।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহজামান জানান, সেলিম ব্যাপারীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।