ঢাকা ০৪:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে একজনকে কুপিয়ে হত্যা !

আব্দুস সবুর, কুষ্টিয়া
  • Update Time : ০৭:১২:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ জুন ২০২৩
  • / ৪৩২ Time View

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বেল্টু ইসলাম ওরফে বাটুল (৩৫) নামে একজনকে কুপিয়ে হত্যা করছে প্রতিপক্ষের লোকজন।

বুধবার রাত ৮ টার দিকে উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের বাগোয়ান শেখপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত বাটুল বাগেয়ান গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা কামাল হোসেনের ছেলে স্থানীয় আওয়ামী লীগের একজন কর্মী ছিলেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, স্থানীয় নেতৃত্ব নিয়ে নিহত বাটুলের সাথে একই গ্রামের এক পরিবারের সাথে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল।

বুধবার সন্ধ্যায় বাটুল বাড়ি থেকে বাজারে যাচ্ছিলেন। এ সময় বাটুলের উপস্থিতি টের পেয়ে সেই বিরোধী পরিবারের লোকজনের মধ্যে মোস্তাক ধারালো হাসুয়া দিয়ে তাকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। স্থানীয়রা মুমূর্ষু অবস্থায় বাটুলকে উদ্ধার করে দৌলতপুর হাসপাতালে নেযার পর কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

দৌলতপুর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক বলেন, নিহতের শরীরের কয়েক জায়গায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। যে কারণে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের ফলেই তার মৃত্যু হয়েছে।

বাগেয়ান গ্রামের বাসিন্দা মাসুদ জানান, স্থানীয় নেতৃত্ব নিয়েই মূলত তাদের মধ্যে দীর্ঘদিনের বিরোধ চলছিল। গত ইউপি নির্বাচনে সদস্য (মেম্বর) পদে বেল্টু ও ঘাতক মোস্তাকের ভাই হাসিব মেম্বার পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে বেল্টু পরাজিত হয়েছিল।

নির্বাচনের পর থেকেই মূলত তাদের মধ্যে বিরোধ প্রকট আকার ধারণ করে। এ নিয়ে দুই পক্ষের লোকজনের মধ্যে একাধিকবার সংঘর্ষ ও মামলা হয়েছে।

দৌলতপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সাক্কির আহমেদ বলেন, নিহত বেল্টুর বাবা একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা।দীর্ঘদিন যাবৎ এ বিরোধ চলছিলো

এ কারনে অতর্কিত হামলার কারনে মারাত্বক যখম হয়ে বেল্টুর মৃত্যু হয়েছে।দৌলতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মজিবুর রহমান বলেন, বেল্টুর সাথে দীর্ঘদিন ধরে তাদের মধ্যে বিরোধ চলছিল।

খবর পেয়েই তিনি সহ পুলিশের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত শুরু করেছেন। এ ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

উল্লেখ্য, গত এক সপ্তাহে এ উপজেলায় ৩ জনকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটলো। এ ধরনের হত্যাকান্ডের ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে উদ্বেগ বাড়ছে।

Please Share This Post in Your Social Media

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে একজনকে কুপিয়ে হত্যা !

Update Time : ০৭:১২:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ জুন ২০২৩

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বেল্টু ইসলাম ওরফে বাটুল (৩৫) নামে একজনকে কুপিয়ে হত্যা করছে প্রতিপক্ষের লোকজন।

বুধবার রাত ৮ টার দিকে উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের বাগোয়ান শেখপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত বাটুল বাগেয়ান গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা কামাল হোসেনের ছেলে স্থানীয় আওয়ামী লীগের একজন কর্মী ছিলেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, স্থানীয় নেতৃত্ব নিয়ে নিহত বাটুলের সাথে একই গ্রামের এক পরিবারের সাথে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল।

বুধবার সন্ধ্যায় বাটুল বাড়ি থেকে বাজারে যাচ্ছিলেন। এ সময় বাটুলের উপস্থিতি টের পেয়ে সেই বিরোধী পরিবারের লোকজনের মধ্যে মোস্তাক ধারালো হাসুয়া দিয়ে তাকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। স্থানীয়রা মুমূর্ষু অবস্থায় বাটুলকে উদ্ধার করে দৌলতপুর হাসপাতালে নেযার পর কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

দৌলতপুর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক বলেন, নিহতের শরীরের কয়েক জায়গায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। যে কারণে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের ফলেই তার মৃত্যু হয়েছে।

বাগেয়ান গ্রামের বাসিন্দা মাসুদ জানান, স্থানীয় নেতৃত্ব নিয়েই মূলত তাদের মধ্যে দীর্ঘদিনের বিরোধ চলছিল। গত ইউপি নির্বাচনে সদস্য (মেম্বর) পদে বেল্টু ও ঘাতক মোস্তাকের ভাই হাসিব মেম্বার পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে বেল্টু পরাজিত হয়েছিল।

নির্বাচনের পর থেকেই মূলত তাদের মধ্যে বিরোধ প্রকট আকার ধারণ করে। এ নিয়ে দুই পক্ষের লোকজনের মধ্যে একাধিকবার সংঘর্ষ ও মামলা হয়েছে।

দৌলতপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সাক্কির আহমেদ বলেন, নিহত বেল্টুর বাবা একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা।দীর্ঘদিন যাবৎ এ বিরোধ চলছিলো

এ কারনে অতর্কিত হামলার কারনে মারাত্বক যখম হয়ে বেল্টুর মৃত্যু হয়েছে।দৌলতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মজিবুর রহমান বলেন, বেল্টুর সাথে দীর্ঘদিন ধরে তাদের মধ্যে বিরোধ চলছিল।

খবর পেয়েই তিনি সহ পুলিশের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত শুরু করেছেন। এ ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

উল্লেখ্য, গত এক সপ্তাহে এ উপজেলায় ৩ জনকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটলো। এ ধরনের হত্যাকান্ডের ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে উদ্বেগ বাড়ছে।