ঢাকা ০৩:৪৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
তৃষ্ণার্ত মানুষের জন্য খাবার পানি সরবরাহ করছেন কাফরুল থানা পুলিশ কিশোরগঞ্জে ২০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল প্রেস কাউন্সিল সাংবাদিকতার মান উন্নয়নে কাজ করছেঃ সিলেটে বিচারপতি মো. নিজামুল হক গাইবান্ধায় তৈরি হচ্ছে পরিবেশবান্ধব কংক্রিটের ইট গাইবান্ধায় মামলা প্রত্যাহার ও পুলিশি হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন সিলেট প্রেসক্লাব নির্বাচনে সভাপতি ইকরামুল কবির, সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ঝালকাঠিতে ট্রাকচাপায় ১৪ জন নিহতের ঘটনায় চালক-হেলপার কারাগারে সূর্যের প্রখরতা আর ভ্যাপসা গরমে জনজীবন অতিষ্ঠ বিএনপির লক্ষ্য একাত্তর মুছে সাত চল্লিশে ফিরে যাওয়া: শাহরিয়ার কবির  হানিমুনে যাওয়া হলো না নবদম্পতির, একই পরিবারের ৬ জন নিহত

কারামুক্ত হলেন বিএনপি নেতা রিজভী

Reporter Name
  • Update Time : ১২:১৫:৫৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৩
  • / ১৪০ Time View

দীর্ঘ ১৪০ দিন কারাভোগের পর জামিনে কারামুক্ত হলেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব এ্যাড. রুহুল কবির রিজভী।

মঙ্গলবার (২৫ এপ্রিল) বিকেল ৪টার দিকে কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্তি পান তিনি। ঈদের আগেই অর্ধশত মামলার সবকটিতেই জামিন পেয়েছিলেন তিনি।

তার আইনজীবী সৈয়দ জয়নাল আবেদীন মেজবাহ জানান, রুহুল কবির রিজভী গ্রেপ্তার হওয়ার পর থেকে ৫০টি মামলায় জামিন পান। সর্বশেষ মানহানির মামলায় গোপালগঞ্জের আদালত থেকে জামিন পান তিনি।

গত ১৮ এপ্রিল জামিন পেলেও জামিননামার মূল কপি কারাগারে না পৌঁছানোর কারণে ঈদের আগে তাকে মুক্তি দেওয়া হয়নি। মঙ্গলবার (২৫ এপ্রিল) জামিননামার মূল কপি হাতে কারা কর্তৃপক্ষের কাছে দেওয়া হলে আনুষঙ্গিক প্রক্রিয়া শেষে বিএনপির এই শীর্ষ নেতাকে মুক্তি দেওয়া হয়।

মুক্তির পর কারাফটকের সামনে তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান বিএনপি ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীরা। এ সময় রিজভীর স্ত্রী আরজুমান আরা বেগমসহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

কারামুক্ত হয়ে রিজভী বলেন, গোটা দেশই এখন কারাগার। বর্তমানে মানুষের কোনো অধিকার নেই।  ভোটের অধিকার নেই, কথা বলার অধিকার নেই। গণতন্ত্রের মুক্তি মিললেই মানুষ সকল অধিকার ফিরে পাবে। ছোট কারাগার থেকে বৃহত্তর কারাগারে প্রবেশ করেছি। আমাদেরকে এই বন্দিদশা থেকে মুক্ত হতে হবে।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ দেশবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান তিনি। পরে প্রাইভেট গাড়িতে করে সরাসরি বাসার উদ্দেশ্যে রওনা হন রিজভী।

উল্লেখ্য, গত বছরের ১০ ডিসেম্বর বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় গণসমাবেশকে ঘিরে ৭ ডিসেম্বর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে দলের নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ হয়।
সংঘর্ষের পর বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে প্রায় সাড়ে ৪ শতাধিক নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়। একই সময় রুহুল কবির রিজভীকেও গ্রেপ্তার করে। পরে তাকে বিভিন্ন মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়।

এরপর রিজভীর বিরুদ্ধে করা ৫০ মামলার সবকটিতেই জামিন পান তিনি। সর্বশেষে গত ১৮ এপ্রিল গোপালগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত মানহানি মামলায় তার জামিন মঞ্জুর করেন।

Please Share This Post in Your Social Media

কারামুক্ত হলেন বিএনপি নেতা রিজভী

Update Time : ১২:১৫:৫৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৩

দীর্ঘ ১৪০ দিন কারাভোগের পর জামিনে কারামুক্ত হলেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব এ্যাড. রুহুল কবির রিজভী।

মঙ্গলবার (২৫ এপ্রিল) বিকেল ৪টার দিকে কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্তি পান তিনি। ঈদের আগেই অর্ধশত মামলার সবকটিতেই জামিন পেয়েছিলেন তিনি।

তার আইনজীবী সৈয়দ জয়নাল আবেদীন মেজবাহ জানান, রুহুল কবির রিজভী গ্রেপ্তার হওয়ার পর থেকে ৫০টি মামলায় জামিন পান। সর্বশেষ মানহানির মামলায় গোপালগঞ্জের আদালত থেকে জামিন পান তিনি।

গত ১৮ এপ্রিল জামিন পেলেও জামিননামার মূল কপি কারাগারে না পৌঁছানোর কারণে ঈদের আগে তাকে মুক্তি দেওয়া হয়নি। মঙ্গলবার (২৫ এপ্রিল) জামিননামার মূল কপি হাতে কারা কর্তৃপক্ষের কাছে দেওয়া হলে আনুষঙ্গিক প্রক্রিয়া শেষে বিএনপির এই শীর্ষ নেতাকে মুক্তি দেওয়া হয়।

মুক্তির পর কারাফটকের সামনে তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান বিএনপি ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীরা। এ সময় রিজভীর স্ত্রী আরজুমান আরা বেগমসহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

কারামুক্ত হয়ে রিজভী বলেন, গোটা দেশই এখন কারাগার। বর্তমানে মানুষের কোনো অধিকার নেই।  ভোটের অধিকার নেই, কথা বলার অধিকার নেই। গণতন্ত্রের মুক্তি মিললেই মানুষ সকল অধিকার ফিরে পাবে। ছোট কারাগার থেকে বৃহত্তর কারাগারে প্রবেশ করেছি। আমাদেরকে এই বন্দিদশা থেকে মুক্ত হতে হবে।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ দেশবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান তিনি। পরে প্রাইভেট গাড়িতে করে সরাসরি বাসার উদ্দেশ্যে রওনা হন রিজভী।

উল্লেখ্য, গত বছরের ১০ ডিসেম্বর বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় গণসমাবেশকে ঘিরে ৭ ডিসেম্বর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে দলের নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ হয়।
সংঘর্ষের পর বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে প্রায় সাড়ে ৪ শতাধিক নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়। একই সময় রুহুল কবির রিজভীকেও গ্রেপ্তার করে। পরে তাকে বিভিন্ন মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়।

এরপর রিজভীর বিরুদ্ধে করা ৫০ মামলার সবকটিতেই জামিন পান তিনি। সর্বশেষে গত ১৮ এপ্রিল গোপালগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত মানহানি মামলায় তার জামিন মঞ্জুর করেন।