ঢাকা ০৪:০৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
কিশোরগঞ্জে ২০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল প্রেস কাউন্সিল সাংবাদিকতার মান উন্নয়নে কাজ করছেঃ সিলেটে বিচারপতি মো. নিজামুল হক গাইবান্ধায় তৈরি হচ্ছে পরিবেশবান্ধব কংক্রিটের ইট গাইবান্ধায় মামলা প্রত্যাহার ও পুলিশি হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন সিলেট প্রেসক্লাব নির্বাচনে সভাপতি ইকরামুল কবির, সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ঝালকাঠিতে ট্রাকচাপায় ১৪ জন নিহতের ঘটনায় চালক-হেলপার কারাগারে সূর্যের প্রখরতা আর ভ্যাপসা গরমে জনজীবন অতিষ্ঠ বিএনপির লক্ষ্য একাত্তর মুছে সাত চল্লিশে ফিরে যাওয়া: শাহরিয়ার কবির  হানিমুনে যাওয়া হলো না নবদম্পতির, একই পরিবারের ৬ জন নিহত ঝালকাঠিতে ট্রাকচাপায় নিহত ১৪ জনের মরদেহ হস্তান্তর

উত্তর কোরিয়ায় দুই বছরের শিশুর যাবজ্জীবন!

নওরোজ আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • Update Time : ০১:০৬:৪৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৭ মে ২০২৩
  • / ৬৬ Time View

দুই বছরের শিশুকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে উত্তর কোরিয়ার আদালত। বাবা-মায়ের অপরাধের সাজা ভুগতে হচ্ছে তাকে।

অভিযোগ উঠেছে, খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী নাগরিকদের কাছে বাইবেল পাওয়া গেলেই কড়া শাস্তি দিচ্ছে কিম জং উন প্রশাসন। এমনকি, যাদের কাছে বাইবেল পাওয়া যাচ্ছে, তাদের মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হচ্ছে। সেই সঙ্গে তাদের পরিবারের অন্য সদস্যরা পাচ্ছেন যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছে এ ঘটনা। তবে এ ঘটনা ২০০৯ সালের। সে বছর বাইবেল রাখা ও খ্রিস্টান ধর্ম পালনের অপরাধে শিশুটির বাবা-মাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। তার পর থেকেই সরকারের আদেশে রাজনৈতিক কারাগারে জীবন কাটাচ্ছে শিশুটি। সে হিসাব অনুযায়ী শিশুটির বর্তমান বয়স ১৫ বছর।

যুক্তরাষ্ট্রের এক অনুসন্ধানে উঠে এসেছে, উত্তর কোরিয়ায় গত কয়েক বছরে ৭০ হাজার খ্রিস্টানকে কারাবাসে পাঠানো হয়েছে। মৃত্যুদণ্ডও পেয়েছেন অনেকে । প্রতিবেদনে আরও দাবি করা হয়, জেলে বন্দিদের ওপর অত্যাচার করা হয়। নানা শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হন উত্তর কোরিয়ার বন্দিরা।

২০১০ সাল থেকে উত্তর কোরিয়া শাসন করছেন কিম জং উন। দেশটির কোনো নাগরিকের একনায়ক এ শাসকের কোনো সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করার ক্ষমতা নেই।

Please Share This Post in Your Social Media

উত্তর কোরিয়ায় দুই বছরের শিশুর যাবজ্জীবন!

Update Time : ০১:০৬:৪৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৭ মে ২০২৩

দুই বছরের শিশুকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে উত্তর কোরিয়ার আদালত। বাবা-মায়ের অপরাধের সাজা ভুগতে হচ্ছে তাকে।

অভিযোগ উঠেছে, খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী নাগরিকদের কাছে বাইবেল পাওয়া গেলেই কড়া শাস্তি দিচ্ছে কিম জং উন প্রশাসন। এমনকি, যাদের কাছে বাইবেল পাওয়া যাচ্ছে, তাদের মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হচ্ছে। সেই সঙ্গে তাদের পরিবারের অন্য সদস্যরা পাচ্ছেন যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছে এ ঘটনা। তবে এ ঘটনা ২০০৯ সালের। সে বছর বাইবেল রাখা ও খ্রিস্টান ধর্ম পালনের অপরাধে শিশুটির বাবা-মাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। তার পর থেকেই সরকারের আদেশে রাজনৈতিক কারাগারে জীবন কাটাচ্ছে শিশুটি। সে হিসাব অনুযায়ী শিশুটির বর্তমান বয়স ১৫ বছর।

যুক্তরাষ্ট্রের এক অনুসন্ধানে উঠে এসেছে, উত্তর কোরিয়ায় গত কয়েক বছরে ৭০ হাজার খ্রিস্টানকে কারাবাসে পাঠানো হয়েছে। মৃত্যুদণ্ডও পেয়েছেন অনেকে । প্রতিবেদনে আরও দাবি করা হয়, জেলে বন্দিদের ওপর অত্যাচার করা হয়। নানা শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হন উত্তর কোরিয়ার বন্দিরা।

২০১০ সাল থেকে উত্তর কোরিয়া শাসন করছেন কিম জং উন। দেশটির কোনো নাগরিকের একনায়ক এ শাসকের কোনো সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করার ক্ষমতা নেই।