ঢাকা ০৯:৩৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আন্তর্জাতিক শান্তিরক্ষী দিবসে রংপুরে ‘পিস কিপার রান’

কামরুল হাসান টিটু, রংপুর ব্যুরো
  • Update Time : ০৮:০০:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ মে ২০২৩
  • / ৯১ Time View

আন্তর্জাতিক শান্তিরক্ষী দিবস উপলক্ষে রংপুরে নানা কর্মসূচী পালন করেছে সেনাবাহিনীর ৬৬ পদাতিক ডিভিশন। সোমবার (২৯ মে) সকালে জিলা স্কুল মাঠ থেকে সেনাবাহিনী, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে ‘পিস কিপার রান’ নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

পরে ক্যান্টপাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ অডিটরিয়াম প্রাঙ্গনে বেলুন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন ৬৬ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি, এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল সাকিল আহমেদ। এরপর শান্তিরক্ষী কার্যক্রমে নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ৬৬ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি, এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল সাকিল আহমেদ বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালী জাতির মুক্তির আন্দোলন এবং বিশ্বশান্তির স্ব-পক্ষে অবদানের জন্য তাঁকে ১৯৭৩ সালের ২৩ মে ‘জুলিও কুরি শান্তি পদক’ দেওয়া হয়। এ পদক প্রাপ্তির ৫০ বছর হওয়ায় এ বছরের আন্তর্জাতিক শান্তিরক্ষী দিবস আমাদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশ সর্বোচ্চ সেনা সদস্য প্রেরণকারী দেশ হিসেবে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অবদান রেখে যাচ্ছে এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৭ জন উর্ধ্বতন কর্মকর্তা জাতিসংঘের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে নিয়োজিত রয়েছেন। বর্তমানে জাতিসংঘের অধীনে ১৪টি দেশে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী ও পুলিশ বাহিনীর ৭ হাজার ৪৩৬ জন সদস্য শান্তিরক্ষার কাজ করে যাচ্ছেন। এর মধ্যে ৫৭২ জন নারী সদস্যও রয়েছেন।

মেজর জেনারেল সাকিল আহমেদ বলেন, শান্তিরক্ষার সুমহান দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে সশস্ত্র বাহিনীর ১৪৪ জন ও পুলিশ বাহিনীর ২৩ জন সদস্য জীবনোৎসর্গ করেছেন। সশস্ত্র বাহিনীর ২৪৭ জন ও পুলিশ বাহিনীর ১২ জন সদস্য পঙ্গুত্ব বরণ করেছেন। বাংলাদেশ জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অন্যরকম গ্রহণযোগ্যতা অর্জন করেছে।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- রংপুর বিভাগীয় কমিশনার হাবিবুর রহমান, পুলিশের রংপুর রেঞ্জ ডিআইজি মোহাঃ আবদুল আলীম মাহমুদ, মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার নুরেআলম মিনা, র‌্যাব-১৩ এর অধিনায়ক আরাফাত ইসলাম প্রমুখ।

Please Share This Post in Your Social Media

আন্তর্জাতিক শান্তিরক্ষী দিবসে রংপুরে ‘পিস কিপার রান’

Update Time : ০৮:০০:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ মে ২০২৩

আন্তর্জাতিক শান্তিরক্ষী দিবস উপলক্ষে রংপুরে নানা কর্মসূচী পালন করেছে সেনাবাহিনীর ৬৬ পদাতিক ডিভিশন। সোমবার (২৯ মে) সকালে জিলা স্কুল মাঠ থেকে সেনাবাহিনী, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে ‘পিস কিপার রান’ নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

পরে ক্যান্টপাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ অডিটরিয়াম প্রাঙ্গনে বেলুন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন ৬৬ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি, এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল সাকিল আহমেদ। এরপর শান্তিরক্ষী কার্যক্রমে নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ৬৬ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি, এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল সাকিল আহমেদ বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালী জাতির মুক্তির আন্দোলন এবং বিশ্বশান্তির স্ব-পক্ষে অবদানের জন্য তাঁকে ১৯৭৩ সালের ২৩ মে ‘জুলিও কুরি শান্তি পদক’ দেওয়া হয়। এ পদক প্রাপ্তির ৫০ বছর হওয়ায় এ বছরের আন্তর্জাতিক শান্তিরক্ষী দিবস আমাদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশ সর্বোচ্চ সেনা সদস্য প্রেরণকারী দেশ হিসেবে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অবদান রেখে যাচ্ছে এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৭ জন উর্ধ্বতন কর্মকর্তা জাতিসংঘের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে নিয়োজিত রয়েছেন। বর্তমানে জাতিসংঘের অধীনে ১৪টি দেশে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী ও পুলিশ বাহিনীর ৭ হাজার ৪৩৬ জন সদস্য শান্তিরক্ষার কাজ করে যাচ্ছেন। এর মধ্যে ৫৭২ জন নারী সদস্যও রয়েছেন।

মেজর জেনারেল সাকিল আহমেদ বলেন, শান্তিরক্ষার সুমহান দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে সশস্ত্র বাহিনীর ১৪৪ জন ও পুলিশ বাহিনীর ২৩ জন সদস্য জীবনোৎসর্গ করেছেন। সশস্ত্র বাহিনীর ২৪৭ জন ও পুলিশ বাহিনীর ১২ জন সদস্য পঙ্গুত্ব বরণ করেছেন। বাংলাদেশ জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অন্যরকম গ্রহণযোগ্যতা অর্জন করেছে।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- রংপুর বিভাগীয় কমিশনার হাবিবুর রহমান, পুলিশের রংপুর রেঞ্জ ডিআইজি মোহাঃ আবদুল আলীম মাহমুদ, মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার নুরেআলম মিনা, র‌্যাব-১৩ এর অধিনায়ক আরাফাত ইসলাম প্রমুখ।