ঢাকা ০৫:১৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
সন্তানদের নতুন জামা পরিয়ে রাতে ঘর থেকে বের হয়ে আর ফিরলেন না বাবা প্রধানমন্ত্রীর জিরো টলারেন্স নীতির ফলে দেশে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নির্মুল হয়েছেঃ সিলেটে আইজিপি বড় পরিসরে আর. কে. মিশন রোডে ব্র্যাক ব্যাংকের শাখা উদ্বোধন সৌদিতে প্রথমবারের মতো সুইমস্যুট পরে র‌্যাম্পে হাঁটলেন মডেলরা ‘আয়রনম্যান’ চরিত্রে ফিরতে ‘আপত্তি নেই’ রবার্ট ডাউনি জুনিয়রের বাংলাদেশের গণতন্ত্র ধ্বংসের জন্য ভারত সরকার দায়ী : কর্নেল অলি বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র সিরিজ নিয়ে শঙ্কা কাঠালিয়ায় ডাকাতের গুলিতে আহত ২ বিএনপি একটা জালিয়ত রাজনৈতিক দল : পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেয়র তাপস মনগড়া ও অসত্য বক্তব্য দিচ্ছেন : সাঈদ খোকন

আকাশ কলি দাসকে ‘পাখি-বন্ধু’ পদকে ভূষিত করলো অ্যাপস

আরিফুল হক নভেল
  • Update Time : ০৯:৩০:০৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৫ মে ২০২৪
  • / ১৯ Time View

পাবনার আকাশ কলি দাসকে পাখি-বন্ধু পদকে ভূষিত করলেন আ্যাপস, অ্যাসোসিয়েশন অব প্যারোট অ্যান্ড প্যারাকিট স্টকব্রিডার্স, বাংলাদেশ।

সোমবার (১৩ই মে) পাবনার বেড়া উপজেলার অন্তর্গত কৈটোলা গ্রামে শ্রী আকাশ কলি দাসের বাড়িতে উপস্থিত হয়ে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এই পদক ও পুরস্কারের নগদ অর্থ তাঁর হাতে তুলে দেন।

দেশের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো একজোটিক বার্ড ব্রিডারদের কোনো সংগঠন বনের পাখি, প্রকৃতি ও পরিবেশ সংরক্ষণে বিশেষ অবদানের জন্যে এ পাখি-বন্ধু পদক ঘোষণা করলো। পুরস্কারের অর্থমূল্য নগদ দশ হাজার টাকা বলে জানা গেছে।

এর আগে গত পহেলা মে সংগঠনটির প্রথম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে এ পদক ঘোষণা করা হয় কিন্তু শারীরিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়ায় নব্বই ছুঁই ছুঁই বৃদ্ধ মানুষ আকাশ কলি দাসকে ঢাকায় না নিয়ে গিয়ে সংগঠনটির নেতৃবৃন্দ নিজেরাই ছুটে আসেন তাঁর কাছে।

পাখিকে ভালোবেসে চিরকুমার আকাশ কলি দাসের বাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে অনেক সম্পত্তির মালিক হয়েও তিনি জীবনযাপন করেন অতি সাধারণ মানুষের মতো।

পৈতৃক সূত্রে প্রাপ্ত দুই একর জমিতে প্রায় ষাট বছর ধরে কয়েক হাজার বৃক্ষ রোপন ও পরিচর্যা করে প্রতিষ্ঠিত করেন পাখির এক অভয়াশ্রম যেখানে আনাগোনা ও বসবাস করে দেশি-বিদেশি হাজারো প্রজাতির পাখি।

পুরস্কার পেয়ে আ্যাপস সংগঠনকে অশেষ ধন্যবাদ জানিয়ে ৮৮ বছর বয়সি পাখি-বন্ধু প্রকৃতিপ্রেমী আকাশ কলি দাস বলেন, আপনাদের মত মানুষকে আমি নিমন্ত্রণ করেও আনতে পারতাম না এখানে কিন্তু আপনারা নিজে থেকে আমাকে খোঁজ করে এই অজপাড়া গাঁয়ে চলে এসেছেন, আর আমার মত একজন সাধারণ মানুষের কাছে আপনারা এসেছেন বলে আমি কৃতজ্ঞ। আপনাদের সংগঠন ও তার সকল শুভ উদ্যোগের সফলতা কামনা করি।

এ সময়ে ঢাকা থেকে আগত সিনিয়র বার্ড ব্রিডার ও বিশিষ্ট ফটো সাংবাদিক বুলবুল আহমেদ বলেন, সারা বাংলাদেশে সকল পাখিপ্রেমীদের নিয়েই আমরা কাজ করতে আগ্রহী। পর্যায়ক্রমে আকাশ দাদার মত অন্যান্য পাখি ও প্রকৃতি প্রেমীদের খুঁজে বের করে আমাদের সংগঠন তাদেরকে স্বীকৃতি দিয়ে উৎসাহিত করবে।

আ্যপসের প্রতিষ্ঠাতা ও সাধারণ সম্পাদক চলচ্চিত্রকার ও আইনজীবী জনাব খান জেহাদ বলেন, আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রথমবারের মত শ্রী আকাশ কলি দাসকে পাখি-বন্ধু পদকে ভূষিত করা হলো। সকলে মিলে তাঁর প্রতিষ্ঠিত পাখির অভয়ারণ্য ঘুরে দেখলাম। নিজেরাও পাখি ও প্রকৃতি নিয়ে কাজ করার বিষয়ে আরো বেশি উৎসাহিত বোধ করলাম। তিনি আরো বলেন, আকাশ কলি দাসকে আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে একটি মেড্যাল, একটি ক্রেস্ট ও নগদ দশ হাজার টাকা পুরস্কার হিসেবে দেয়া হলো যা তাঁর চিকিৎসায় সামান্য হলেও কাজে আসবে বলে আমাদের আশা। আ্যাপস দেশের আনাচে কানাচে ছড়িয়ে ছিটিয়ে নীরবে নিভৃতে থাকা আকাশ কলি দাসের মত অপরাপর পাখিপ্রেমীদেরকেও খুঁজে বের করে প্রতি বছরই সম্মানিত করতে চায়। মূলত তাদেরকে সম্মানিত করে আমরা আ্যাপসের সকল সদস্যরাই সম্মানিত হতে চাই।

অ্যাপসের সভাপতি ও সংগঠনটির প্রাণপুরুষ, পাখি পালন ও চিকিৎসায় কিংবদন্তীতুল্য ডাঃ এম এ মান্নান বলেন, আমরা এ সংগঠনের মাধ্যমে খাঁচার পাখি এবং প্রকৃতিতে থাকা উভয় পাখি নিয়েই কাজ করি। বাংলাদেশে যারা পাখি ও প্রকৃতি নিয়ে কাজ করেন আমরা এখন থেকে প্রতি বছরই তাদের কাউকে না কাউকে তাদের অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ এ পদক দিয়ে যাব। প্রকৃতি ও পাখির প্রতি ভালোবাসাই আকাশ কলি দাসদের সঙ্গে আমাদের যোগাযোগ ও সম্পর্কের সেতু বন্ধন। সে কারণেই আমরা ঢাকা থেকে এখানে চলে এসেছি তাঁকে ও তাঁর কীর্তিকে প্রত্যক্ষ করতে।

উল্লেখ্য, তোতা ও টিয়া জাতীয় পাখির আদি ও দেশীয় জাতগুলোকে প্রকৃতিতে যথাযথভাবে সংরক্ষণের পাশাপাশি জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের মাধ্যমে তৈরি খাঁচায় পোষার উপযোগী মিউটেশনগুলোকে বাণিজ্যিকভাবে বা শখের বশে লালন পালন করার সঠিক পদ্ধতির প্রসার ও উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি এবং পালনকারীদের মধ্যে সৌহার্দ্য ও সহযোগিতা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে ২০২৩ সালের পহেলা মে তারিখে গঠিত হয় অ্যাসোসিয়েশন অব প্যারোট অ্যান্ড প্যারাকিট স্টকব্রিডার্স, বাংলাদেশ (Association of Parrot and Parakeet Stockbreeders, Bangladesh) সংক্ষেপে যা অ্যাপস (APPS) নামেই বহুল পরিচিত। মাত্র এক বছরের মধ্যেই সংগঠনটি তার ব্যতিক্রমী কর্মযজ্ঞ দিয়ে পাখি পালনের সাথে জড়িত মানুষের মধ্যে নতুন আশা ও আস্থার সঞ্চার করতে সমর্থ হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

আকাশ কলি দাসকে ‘পাখি-বন্ধু’ পদকে ভূষিত করলো অ্যাপস

Update Time : ০৯:৩০:০৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৫ মে ২০২৪

পাবনার আকাশ কলি দাসকে পাখি-বন্ধু পদকে ভূষিত করলেন আ্যাপস, অ্যাসোসিয়েশন অব প্যারোট অ্যান্ড প্যারাকিট স্টকব্রিডার্স, বাংলাদেশ।

সোমবার (১৩ই মে) পাবনার বেড়া উপজেলার অন্তর্গত কৈটোলা গ্রামে শ্রী আকাশ কলি দাসের বাড়িতে উপস্থিত হয়ে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এই পদক ও পুরস্কারের নগদ অর্থ তাঁর হাতে তুলে দেন।

দেশের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো একজোটিক বার্ড ব্রিডারদের কোনো সংগঠন বনের পাখি, প্রকৃতি ও পরিবেশ সংরক্ষণে বিশেষ অবদানের জন্যে এ পাখি-বন্ধু পদক ঘোষণা করলো। পুরস্কারের অর্থমূল্য নগদ দশ হাজার টাকা বলে জানা গেছে।

এর আগে গত পহেলা মে সংগঠনটির প্রথম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে এ পদক ঘোষণা করা হয় কিন্তু শারীরিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়ায় নব্বই ছুঁই ছুঁই বৃদ্ধ মানুষ আকাশ কলি দাসকে ঢাকায় না নিয়ে গিয়ে সংগঠনটির নেতৃবৃন্দ নিজেরাই ছুটে আসেন তাঁর কাছে।

পাখিকে ভালোবেসে চিরকুমার আকাশ কলি দাসের বাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে অনেক সম্পত্তির মালিক হয়েও তিনি জীবনযাপন করেন অতি সাধারণ মানুষের মতো।

পৈতৃক সূত্রে প্রাপ্ত দুই একর জমিতে প্রায় ষাট বছর ধরে কয়েক হাজার বৃক্ষ রোপন ও পরিচর্যা করে প্রতিষ্ঠিত করেন পাখির এক অভয়াশ্রম যেখানে আনাগোনা ও বসবাস করে দেশি-বিদেশি হাজারো প্রজাতির পাখি।

পুরস্কার পেয়ে আ্যাপস সংগঠনকে অশেষ ধন্যবাদ জানিয়ে ৮৮ বছর বয়সি পাখি-বন্ধু প্রকৃতিপ্রেমী আকাশ কলি দাস বলেন, আপনাদের মত মানুষকে আমি নিমন্ত্রণ করেও আনতে পারতাম না এখানে কিন্তু আপনারা নিজে থেকে আমাকে খোঁজ করে এই অজপাড়া গাঁয়ে চলে এসেছেন, আর আমার মত একজন সাধারণ মানুষের কাছে আপনারা এসেছেন বলে আমি কৃতজ্ঞ। আপনাদের সংগঠন ও তার সকল শুভ উদ্যোগের সফলতা কামনা করি।

এ সময়ে ঢাকা থেকে আগত সিনিয়র বার্ড ব্রিডার ও বিশিষ্ট ফটো সাংবাদিক বুলবুল আহমেদ বলেন, সারা বাংলাদেশে সকল পাখিপ্রেমীদের নিয়েই আমরা কাজ করতে আগ্রহী। পর্যায়ক্রমে আকাশ দাদার মত অন্যান্য পাখি ও প্রকৃতি প্রেমীদের খুঁজে বের করে আমাদের সংগঠন তাদেরকে স্বীকৃতি দিয়ে উৎসাহিত করবে।

আ্যপসের প্রতিষ্ঠাতা ও সাধারণ সম্পাদক চলচ্চিত্রকার ও আইনজীবী জনাব খান জেহাদ বলেন, আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রথমবারের মত শ্রী আকাশ কলি দাসকে পাখি-বন্ধু পদকে ভূষিত করা হলো। সকলে মিলে তাঁর প্রতিষ্ঠিত পাখির অভয়ারণ্য ঘুরে দেখলাম। নিজেরাও পাখি ও প্রকৃতি নিয়ে কাজ করার বিষয়ে আরো বেশি উৎসাহিত বোধ করলাম। তিনি আরো বলেন, আকাশ কলি দাসকে আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে একটি মেড্যাল, একটি ক্রেস্ট ও নগদ দশ হাজার টাকা পুরস্কার হিসেবে দেয়া হলো যা তাঁর চিকিৎসায় সামান্য হলেও কাজে আসবে বলে আমাদের আশা। আ্যাপস দেশের আনাচে কানাচে ছড়িয়ে ছিটিয়ে নীরবে নিভৃতে থাকা আকাশ কলি দাসের মত অপরাপর পাখিপ্রেমীদেরকেও খুঁজে বের করে প্রতি বছরই সম্মানিত করতে চায়। মূলত তাদেরকে সম্মানিত করে আমরা আ্যাপসের সকল সদস্যরাই সম্মানিত হতে চাই।

অ্যাপসের সভাপতি ও সংগঠনটির প্রাণপুরুষ, পাখি পালন ও চিকিৎসায় কিংবদন্তীতুল্য ডাঃ এম এ মান্নান বলেন, আমরা এ সংগঠনের মাধ্যমে খাঁচার পাখি এবং প্রকৃতিতে থাকা উভয় পাখি নিয়েই কাজ করি। বাংলাদেশে যারা পাখি ও প্রকৃতি নিয়ে কাজ করেন আমরা এখন থেকে প্রতি বছরই তাদের কাউকে না কাউকে তাদের অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ এ পদক দিয়ে যাব। প্রকৃতি ও পাখির প্রতি ভালোবাসাই আকাশ কলি দাসদের সঙ্গে আমাদের যোগাযোগ ও সম্পর্কের সেতু বন্ধন। সে কারণেই আমরা ঢাকা থেকে এখানে চলে এসেছি তাঁকে ও তাঁর কীর্তিকে প্রত্যক্ষ করতে।

উল্লেখ্য, তোতা ও টিয়া জাতীয় পাখির আদি ও দেশীয় জাতগুলোকে প্রকৃতিতে যথাযথভাবে সংরক্ষণের পাশাপাশি জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের মাধ্যমে তৈরি খাঁচায় পোষার উপযোগী মিউটেশনগুলোকে বাণিজ্যিকভাবে বা শখের বশে লালন পালন করার সঠিক পদ্ধতির প্রসার ও উপযুক্ত পরিবেশ তৈরি এবং পালনকারীদের মধ্যে সৌহার্দ্য ও সহযোগিতা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে ২০২৩ সালের পহেলা মে তারিখে গঠিত হয় অ্যাসোসিয়েশন অব প্যারোট অ্যান্ড প্যারাকিট স্টকব্রিডার্স, বাংলাদেশ (Association of Parrot and Parakeet Stockbreeders, Bangladesh) সংক্ষেপে যা অ্যাপস (APPS) নামেই বহুল পরিচিত। মাত্র এক বছরের মধ্যেই সংগঠনটি তার ব্যতিক্রমী কর্মযজ্ঞ দিয়ে পাখি পালনের সাথে জড়িত মানুষের মধ্যে নতুন আশা ও আস্থার সঞ্চার করতে সমর্থ হয়েছে।