ঢাকা ০৮:৫৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অবৈধ সরকারের গলায় গামছা পেচিয়ে ক্ষমতা থেকে নামাতে হবে: সাকি

কামরুল হাসান টিটু,রংপুর ব‌্যু‌রো
  • Update Time : ১২:৫৭:০১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ জুন ২০২৩
  • / ১৫৯ Time View

গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়দে সাকি বলেছেন, এই অবৈধ সরকারের কাছে দেশের নাগরিক সার্বভৌম নিরাপদ নয়। এই সরকার ক্ষমতায় থাকলে অনিরাপদ হয়ে উঠবে সবার জীবন। তাই এই অবৈধ সরকারের গলায় গামছা পেচিয়ে ক্ষমতা থেকে নামাতে হবে। তাদের আর ক্ষমতায় রাখা যাবে না।

বুধবার (৭ জুন) বিকেলে রংপুর প্রেসক্লাব চত্বর সড়কে গণতন্ত্র মঞ্চের ঢাকা-দিনাজপুর রোডমার্চ উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। সমাবেশ শেষ হয় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়।

সমাবেশ চলাকালীন সময়ে পুলিশের সঙ্গে হাতাহাতি হয় গণসংহতি আন্দোলনের নেতাকর্মীদের। এসময় তারা সরকার ও পুলিশ বিরোধী বিভিন্ন স্লোগান দেন।

রোডমার্চে পুলিশি বাধা নিয়ে জোনায়েদ সাকি বলেন, মার্কিন ভিসা নীতির কারণে পুলিশ কৌশল অবলম্বন করে আমাদের রোডমার্চে বাঁধা দিচ্ছেন। সরকার দলীয় অঙ্গ সংগঠন আমাদের সমাবেশের স্থলে শান্তি সমাবেশের ডাক দিচ্ছেন। শান্তি সমাবেশের অজুহাত দিয়ে পুলিশ বাধা দিচ্ছে। কারা কারা বাধা দিচ্ছেন, কারা সমস্যা তৈরী করছেন, তাদের তালিকা হচ্ছে। ১৪ বছরে অনেক বাধা দিয়েছেন। এবারে জনতা জেগে উঠেছে। জেগে ওঠা জনতার আদালত থেকে রক্ষা পাবেন না।

লোডশেডিং ও দ্রব্যেমূল্যের উর্ধ্বগতি নিয়ে রোডমার্চ সমাবেশে গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী বলেন, দেশের মানুষ আর ঘুমাতে পারছে না। দ্রব্যেমূল্যের ঊর্ধ্বগতির মধ্যে বিদ্যুতের ভেলকিবাজি চলছে। তাই এখন আর উন্নয়ন উন্নয়ন করে চিৎকার করে না। ফেরি করে বিদ্যুৎ দেওয়ার কথা বলে না। কারণ সরকার লুটপাট করে বিদেশের মাটিতে নিজেদের আরাম আয়েশের ব্যবস্থা করছে, আর এদেশের মানুষকে কষ্ট দিচ্ছে।

সরকার নতুন টাকা ছাপানো সিদ্ধান্ত নিয়েছে জানিয়ে জোনায়েদ সাকি বলেন, ডলার সংকটের কথা বলছেন সরকার। তাই টাকা ছাপানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এই টাকা ছাপানো হলে দিনমজুর, কৃষক, শ্রমিকের আরও খারাপ অবস্থা হবে। দ্রব্যেমূল্যের দাম আরও বাড়বে। কারণ সরকারই সিন্ডিকেট তৈরি করেছে। তাই তাঁরা সিন্ডিকেট ভাঙতে চায় না, ভাঙে না।

অবৈধ সরকারের পদত্যাগ, অর্ন্তবর্তীকালীন সরকারের অধীনে নির্বাচন ও সংবিধান সংস্কারসহ ১৪ দফা দাবিতে এই রোডমার্চ করেন গণতন্ত্র মঞ্চ।

সমাবেশে গণতন্ত্র মঞ্চ রংপুরের সমন্বয়ক আমিন উদ্দিনের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন, নাগরিক ঐক্যের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল্লাহ কায়সার, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক হাসনাত কাইয়ূম, ভাসানী অনুসারী পরিষদের আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কামাল উদ্দিন পাটোয়ারীসহ জেএসডিসহ স্থানীয় নেতাকর্মীরা।

এর আগে রংপুর প্রেসক্লাবের সামনে সড়ক বন্ধ করে সমাবেশ করতে চাইলে পুলিশের সাথে গণতন্ত্র মঞ্চের কর্মীদের মাঝে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এতে পুলিশের ধাক্কাধাক্কিতে গণতন্ত্র মঞ্চের ২ জন আহত হন। পরে সিনিয়র নেতাদের হস্তক্ষেপে সড়কের একপাশে শান্তিপূর্ণভাবে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

অবৈধ সরকারের গলায় গামছা পেচিয়ে ক্ষমতা থেকে নামাতে হবে: সাকি

Update Time : ১২:৫৭:০১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ জুন ২০২৩

গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়দে সাকি বলেছেন, এই অবৈধ সরকারের কাছে দেশের নাগরিক সার্বভৌম নিরাপদ নয়। এই সরকার ক্ষমতায় থাকলে অনিরাপদ হয়ে উঠবে সবার জীবন। তাই এই অবৈধ সরকারের গলায় গামছা পেচিয়ে ক্ষমতা থেকে নামাতে হবে। তাদের আর ক্ষমতায় রাখা যাবে না।

বুধবার (৭ জুন) বিকেলে রংপুর প্রেসক্লাব চত্বর সড়কে গণতন্ত্র মঞ্চের ঢাকা-দিনাজপুর রোডমার্চ উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। সমাবেশ শেষ হয় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়।

সমাবেশ চলাকালীন সময়ে পুলিশের সঙ্গে হাতাহাতি হয় গণসংহতি আন্দোলনের নেতাকর্মীদের। এসময় তারা সরকার ও পুলিশ বিরোধী বিভিন্ন স্লোগান দেন।

রোডমার্চে পুলিশি বাধা নিয়ে জোনায়েদ সাকি বলেন, মার্কিন ভিসা নীতির কারণে পুলিশ কৌশল অবলম্বন করে আমাদের রোডমার্চে বাঁধা দিচ্ছেন। সরকার দলীয় অঙ্গ সংগঠন আমাদের সমাবেশের স্থলে শান্তি সমাবেশের ডাক দিচ্ছেন। শান্তি সমাবেশের অজুহাত দিয়ে পুলিশ বাধা দিচ্ছে। কারা কারা বাধা দিচ্ছেন, কারা সমস্যা তৈরী করছেন, তাদের তালিকা হচ্ছে। ১৪ বছরে অনেক বাধা দিয়েছেন। এবারে জনতা জেগে উঠেছে। জেগে ওঠা জনতার আদালত থেকে রক্ষা পাবেন না।

লোডশেডিং ও দ্রব্যেমূল্যের উর্ধ্বগতি নিয়ে রোডমার্চ সমাবেশে গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী বলেন, দেশের মানুষ আর ঘুমাতে পারছে না। দ্রব্যেমূল্যের ঊর্ধ্বগতির মধ্যে বিদ্যুতের ভেলকিবাজি চলছে। তাই এখন আর উন্নয়ন উন্নয়ন করে চিৎকার করে না। ফেরি করে বিদ্যুৎ দেওয়ার কথা বলে না। কারণ সরকার লুটপাট করে বিদেশের মাটিতে নিজেদের আরাম আয়েশের ব্যবস্থা করছে, আর এদেশের মানুষকে কষ্ট দিচ্ছে।

সরকার নতুন টাকা ছাপানো সিদ্ধান্ত নিয়েছে জানিয়ে জোনায়েদ সাকি বলেন, ডলার সংকটের কথা বলছেন সরকার। তাই টাকা ছাপানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এই টাকা ছাপানো হলে দিনমজুর, কৃষক, শ্রমিকের আরও খারাপ অবস্থা হবে। দ্রব্যেমূল্যের দাম আরও বাড়বে। কারণ সরকারই সিন্ডিকেট তৈরি করেছে। তাই তাঁরা সিন্ডিকেট ভাঙতে চায় না, ভাঙে না।

অবৈধ সরকারের পদত্যাগ, অর্ন্তবর্তীকালীন সরকারের অধীনে নির্বাচন ও সংবিধান সংস্কারসহ ১৪ দফা দাবিতে এই রোডমার্চ করেন গণতন্ত্র মঞ্চ।

সমাবেশে গণতন্ত্র মঞ্চ রংপুরের সমন্বয়ক আমিন উদ্দিনের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন, নাগরিক ঐক্যের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল্লাহ কায়সার, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক হাসনাত কাইয়ূম, ভাসানী অনুসারী পরিষদের আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কামাল উদ্দিন পাটোয়ারীসহ জেএসডিসহ স্থানীয় নেতাকর্মীরা।

এর আগে রংপুর প্রেসক্লাবের সামনে সড়ক বন্ধ করে সমাবেশ করতে চাইলে পুলিশের সাথে গণতন্ত্র মঞ্চের কর্মীদের মাঝে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এতে পুলিশের ধাক্কাধাক্কিতে গণতন্ত্র মঞ্চের ২ জন আহত হন। পরে সিনিয়র নেতাদের হস্তক্ষেপে সড়কের একপাশে শান্তিপূর্ণভাবে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।