ঢাকা ০৪:৫৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজঃ
বিমানবন্দর-টঙ্গী থেকে ধারালো অস্ত্রসহ ৮ ছিনতাইকারী গ্রেপ্তার কিশোরগঞ্জে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে স্কুলের উন্নয়ন খাতের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ সাংবাদিককে ৫ বছরের অভিজ্ঞতা ও গ্র্যাজুয়েট হতে হবে বেনজীরের আরও ১১৩ দলিলের সম্পদ ও গুলশানের ৪টি ফ্ল্যাট জব্দের আদেশ সুজানগরে গৃহবধূকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে কাউকে ছাড় দেব না : ইসি রাশেদা ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে একটি বাড়ি থেকে ১২ কোটি রুপির স্বর্ণ জব্দ সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে বৈধপথে রেমিট্যান্স প্রেরণের আহ্বান প্রবাসী কল্যাণ প্রতিমন্ত্রীর ঝালকাঠিতে রেমালের প্রভাবে নদীর পানি বেড়েছে ২১৭ নেতাকে বহিষ্কার করল বিএনপি

অপহৃত কিশোরীকে উদ্ধারসহ ধর্ষন মামলার প্রধান আসামী গ্রেফতার

শরিফুল হক পাভেল
  • Update Time : ০৪:৩১:১২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৩৯ Time View

রাজধানীর কাঠালবাগান এলাকায় ৮ এপ্রিল অভিযান চালিয়ে গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী এলাকা থেকে অপহৃত কিশোরীকে উদ্ধার করেছে র‍্যাব-৩।

এসময় ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামী নয়ন শেখকে (২০) গ্রেফতার করা হয়েছে।

স্টাফ অফিসার (মিডিয়া) সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ আজাহার হোসেন সাংবাদিকদের জানান, অপহৃত কিশোরী গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী এলাকার একটি স্থানীয় স্কুলের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী। গত ১ জানুয়ারি সকালে ভিকটিম তার বাড়ি থেকে স্কুলের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। পথিমধ্যে কাশিয়ানী পলিটেকনিক স্কুল এন্ড কলেজের সামনে পৌছালে গ্রেফতারকৃত নয়ন তার অপরাপর সহযোগী মাহাবুব ও আরিফুলসহ অজ্ঞাত ২/৩ জনের সহায়তায় ভিকটিমকে পথরোধ করে এবং জোরপূর্বক একটি প্রাইভেটকারে তুলে নিয়ে যায়।

পরবর্তীতে নির্দিষ্ট সময় পার হয়ে গেলেও ভিকটিম নিজ বাড়িতে না ফেরায় তার পরিবার বিষয়টি নিয়ে চিন্তিত হয়ে ভিকটিমের সহপাঠীদের সাথে মোবাইলফোনে যোগাযোগ করে। তার সহপাঠীরা জানায় ভিকটিম ঐদিন স্কুলে যায়নি।

ভিকটিমের পরিবার খোজাখুজির জন্য বের হলে প্রত্যক্ষদর্শী একজন পথচারীর থেকে অপহরণের বিষয়টি জানতে পেরে তারা নিশ্চিত হয় যে, ভিকটিমকে নয়ন অপহরণ করেছে। পরদিন ভিকটিম সুযোগ বুঝে নয়নের মোবাইল ফোন দিয়ে তার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে এবং জানায় যে তাকে অপহরণপূর্বক ধর্ষণ করা হয়েছে। উক্ত ঘটনায় ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে কাশিয়ানী থানায় গ্রেফতারকৃত নয়ন এবং সহযোগী ও পলাতক আসামি মাহাবুব, আরিফুলসহ অজ্ঞাত ২/৩ জন এর বিরুদ্ধে একটি অপহরণ ও ধর্ষণের মামলা দায়ের করে।

এপ্রেক্ষিতে ভিকটিমকে উদ্ধার ও আসামিদের গ্রেফতার করার জন্য র‌্যাব-৩ গোয়েন্দা নজরদারী শুরু করলে রাজধানীর কলবাগান এলাকায় অবস্থান সনাক্ত করে ৮ এপ্রিল দুপুরে ভিকটিমকে উদ্ধারসহ অপহরণকারী নয়নকে গ্রেফতার করে। পলাতক অপর আসামিদের গ্রেফতারে র‌্যাব-৩ এর গোয়েন্দা কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

উদ্ধারকৃত ভিকটিমকে তার পরিবারের নিকট হস্তান্তর এবং গ্রেফতারকৃত আসামির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা চলছে।

Please Share This Post in Your Social Media

অপহৃত কিশোরীকে উদ্ধারসহ ধর্ষন মামলার প্রধান আসামী গ্রেফতার

Update Time : ০৪:৩১:১২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০২৪

রাজধানীর কাঠালবাগান এলাকায় ৮ এপ্রিল অভিযান চালিয়ে গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী এলাকা থেকে অপহৃত কিশোরীকে উদ্ধার করেছে র‍্যাব-৩।

এসময় ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামী নয়ন শেখকে (২০) গ্রেফতার করা হয়েছে।

স্টাফ অফিসার (মিডিয়া) সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ আজাহার হোসেন সাংবাদিকদের জানান, অপহৃত কিশোরী গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী এলাকার একটি স্থানীয় স্কুলের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী। গত ১ জানুয়ারি সকালে ভিকটিম তার বাড়ি থেকে স্কুলের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। পথিমধ্যে কাশিয়ানী পলিটেকনিক স্কুল এন্ড কলেজের সামনে পৌছালে গ্রেফতারকৃত নয়ন তার অপরাপর সহযোগী মাহাবুব ও আরিফুলসহ অজ্ঞাত ২/৩ জনের সহায়তায় ভিকটিমকে পথরোধ করে এবং জোরপূর্বক একটি প্রাইভেটকারে তুলে নিয়ে যায়।

পরবর্তীতে নির্দিষ্ট সময় পার হয়ে গেলেও ভিকটিম নিজ বাড়িতে না ফেরায় তার পরিবার বিষয়টি নিয়ে চিন্তিত হয়ে ভিকটিমের সহপাঠীদের সাথে মোবাইলফোনে যোগাযোগ করে। তার সহপাঠীরা জানায় ভিকটিম ঐদিন স্কুলে যায়নি।

ভিকটিমের পরিবার খোজাখুজির জন্য বের হলে প্রত্যক্ষদর্শী একজন পথচারীর থেকে অপহরণের বিষয়টি জানতে পেরে তারা নিশ্চিত হয় যে, ভিকটিমকে নয়ন অপহরণ করেছে। পরদিন ভিকটিম সুযোগ বুঝে নয়নের মোবাইল ফোন দিয়ে তার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করে এবং জানায় যে তাকে অপহরণপূর্বক ধর্ষণ করা হয়েছে। উক্ত ঘটনায় ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে কাশিয়ানী থানায় গ্রেফতারকৃত নয়ন এবং সহযোগী ও পলাতক আসামি মাহাবুব, আরিফুলসহ অজ্ঞাত ২/৩ জন এর বিরুদ্ধে একটি অপহরণ ও ধর্ষণের মামলা দায়ের করে।

এপ্রেক্ষিতে ভিকটিমকে উদ্ধার ও আসামিদের গ্রেফতার করার জন্য র‌্যাব-৩ গোয়েন্দা নজরদারী শুরু করলে রাজধানীর কলবাগান এলাকায় অবস্থান সনাক্ত করে ৮ এপ্রিল দুপুরে ভিকটিমকে উদ্ধারসহ অপহরণকারী নয়নকে গ্রেফতার করে। পলাতক অপর আসামিদের গ্রেফতারে র‌্যাব-৩ এর গোয়েন্দা কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

উদ্ধারকৃত ভিকটিমকে তার পরিবারের নিকট হস্তান্তর এবং গ্রেফতারকৃত আসামির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা চলছে।